• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কালো জল আর দুর্গন্ধ উধাও, যমুনা টলটলে নীল, ছবি ঘুরছে সোশ্যাল মিডিয়ায়

Yamuna
দূষণমুক্ত যমুনার এই ছবিই সামনে এসেছে।

‘ওরে নীল যমুনার জল, বল রে মোরে বল কোথায় ঘনশ্যাম’, যমুনার নীল জল নিয়ে এমন অনেক গান বাঁধা হয়েছে। কিন্তু কালো কুচকুচে যমুনার জল কোনও কালে আদৌ নীল ছিল কিনা, তা নিয়ে বিস্তর প্রশ্ন রয়েছে মানুষের মনে। কিন্তু করোনা আতঙ্কে গোটা দেশ যখন ঘরবন্দি, ঠিক সেইসময় দূষণমুক্ত পরিবেশ পেয়ে যমুনা নাকি স্বমহিমায় ধরা দিয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া বেশ কিছু ছবি অন্তত এমনই দাবি করছে, যাতে সিলমোহর দিয়েছে কেন্দ্রীয় জলশক্তি মন্ত্রকও।

রবিবার বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে যমুনার বুকে টলটলে নীল জলের একাধিক ছবি ছড়িয়েছে। কেন্দ্রীয় জলশক্তি মন্ত্রকের টুইটার হ্যান্ডল এবং ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে তেমনই একাধিক ছবি শেয়ার করা হয়। প্রকাশ করা হয় একটি ভিডিয়োও। যমুনার যে তীরে বিদ্যুৎ কেন্দ্র রয়েছে, ঠিক তার উল্টো দিকে কালিন্দি কুঞ্জে ভিডিয়োটি তোলা হয়। তাতে দেখা যায়, মাথার উপর পরিষ্কার নীল আকাশ। আর তার নীচে কুচকুচে কালো জলের পরিবর্তে যমুনার বুকে টলটল করছে স্বচ্ছ জল। তার মধ্য দিয়ে জলের নীচের পলিও স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে।

যে ব্যক্তি ভিডিয়োটি তোলেন তাঁকে বলতে শোনা যায়, ‘‘এপ্রিলের দুপুরে দিল্লির যমুনা তটকে চেনাই যাচ্ছে না। একসময় যে নদীতে নর্দমার কালো জলের মতো জল বয়ে যেত, আজ সেখান দিয়ে কুলকুল করে পরিষ্কার, স্বচ্ছ জল বয়ে যাচ্ছে। যেখান থেকে আগে দুর্গন্ধ পাওয়া যেত, আজ সেখানে ঠান্ডা হাওয়া বইছে। দুর্গন্ধের নামগন্ধও নেই। আর এ সবই সম্ভব হয়েছে করোনার জন্য। মানুষ যমুনার জল নোংরা করা বন্ধ করে দিয়েছেন। আসলে যমুনা সাফাইয়ের কোনও প্রয়োজনই নেই, মানুষ জল নোংরা না করলেই চলবে। নোংরা না করলে পরিষ্কার করার প্রয়োজনই পড়ে না।’’

আরও পড়ুন: দেশে করোনা-আক্রান্ত বেড়ে ৩৩৭৪, মৃত্যু ৭৭ জনের​

এই ছবি এবং ভিডিয়োই সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করেছে কেন্দ্রীয় জলশক্তি মন্ত্রক।

এই ছবি এবং ভিডিয়োর সত্যতা সরাসরি যাচাই করে দেখেনি আনন্দবাজার। এনডিটিভি-র তরফে রবিবারই একটি ফ্যাক্টচেক রিপোর্ট করা হয়েছে।তাতে দেখা গিয়েছে, যমুনার যে অংশকে তারা ক্যামেরাবন্দি করেছে তার জল এ দিনও বেশ কালো এবং তাতে শিল্পবর্জ্য ভেসে বেড়াচ্ছে। এনডিটিভির দাবি, যমুনা দূষণ অনেকটাই কমেছে বলে যে প্রচার চলছে, তাদের পর্যবেক্ষণে অন্তত তা ধরা পডড়েনি।

আরও পড়ুন: মোদীর ডাকে আজ দেশ জুড়ে যুদ্ধ বিদ্যুৎ নিয়ে​

এতকাল যমুনার এই ছবিই ছিল চেনা। ছবি: রয়টার্স।

নোভেল করোনার প্রকোপ কাটিয়ে উঠতে গত ২৪ মার্চ মধ্যরাত থেকে দেশ জুড়ে ২১ দিনব্যাপী লকডাউন ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। তাতে সাধারণ মানুষের রাস্তায় বেরনো একেবারে বন্ধ হয়ে গিয়েছে। চলছে না কলকারখানা, অফিস-আদালতও। রাস্তায় যানবাহনের দেখাও মিলছে না সে ভাবে। এমন পরিস্থিতে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে দূষণ একধাক্কায় অনেকটাই কমে গিয়েছে বলে দাবি বিভিন্ন মহলের। সেই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেক ছবিও ছড়িয়েছে। কোথাও জলন্ধর থেকে হিমাচলের বরফে ঢাকা পাহাড় দেখা গিয়েছে বলে ছবি পোস্ট করেছেন কেউ। কেউ কেউ আবার মুম্বইয়ের রাস্তায় ময়ূর নাচতে দেখা গিয়েছে বলেও ছবি দিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

হোয়াটস‌্অ্যাপ, ফেসবুক, টুইটারে যা-ই দেখবেন, তা-ই বিশ্বাস করবেন না। শেয়ারও করে দেবেন না। বিশেষত এই আতঙ্কগ্রস্ত অবস্থায় তো তো নয়ই। এ ভাবেই ছড়িয়ে পড়ে ভুয়ো খবর। যাচাই করুন। কোনও খবর, তথ্য, ছবি বা ভিডিয়ো নিয়ে মনে সংশয় দেখা দিলে আমাদের জানান এই ঠিকানায় feedback@abpdigital.in

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন