• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কোভিড, নোটবন্দি, জিএসটি, মোদী সরকারের ব্যর্থতা নিয়ে গবেষণা হবে হার্ভার্ডে: রাহুল

Rahul Gandhi
—ফাইল চিত্র।

সীমান্ত পরিস্থিতি নিয়ে লাগাতার কেন্দ্রের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়ে আসছেন তিনি। এ বার প্রশাসনিক ব্যর্থতার অভিযোগ তুলে একবার ফের সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ করলেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গাঁধী। তাঁর বক্তব্য, আগামী দিনে হার্ভার্ড বিজনেস স্কুলের ব্যর্থতা সংক্রান্ত গবেষণায় জায়গা করে নেবে কোভিড পরিস্থিতি, নোটবন্দি এবং পণ্য পরিষেবা করের (জিএসটি) বাস্তবায়ন।

মার্চের শেষ দিকে দেশ জুড়ে লকডাউন ঘোষণার সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, ‘‘মহাভারতের যুদ্ধ জিততে সময় লেগেছিল ১৮ দিন। করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে জিততে ২১ দিন সময় লাগবে।’’ তার পর তিন মাসের বেশি সময় কেটে গেলেও, করোনার হাত থেকে নিষ্কৃতি মেলেনি। বরং যত দিন যাচ্ছে, দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ততই বেড়ে চলেছে। সেই সঙ্গে বেড়ে চলেছে করোনার জেরে মৃত্যুও। আক্রান্তের নিরিখে এই মুহূর্তে বিশ্বে তিন নম্বরে রয়েছে ভারত।

এমন পরিস্থিতিতে জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণকে হাতিয়ার করে সোমবার তাঁকে আক্রমণ করেন রাহুল গাঁধী। ২১ দিনে করোনা জয়, থালা-বাসন বাজানো এবং প্রদীপ-মোমবাতি জ্বালানো নিয়ে প্রধানমন্ত্রী ভাষণের একটি ভিডিয়ো এ দিন টুইটারে পোস্ট করেন তিনি। তাতে দেখা যাচ্ছে, ২৪ মার্চ থেকে প্রধানমন্ত্রীর যত ভাষণ দিয়ে চলেছেন, ততই তরতর করে দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলেছে।

রাহুলের টুইট।

আরও পড়ুন: করোনার সঙ্কটের মধ্যেই বিউবোনিক প্লেগ, ফের মহামারি সতর্কতা চিনে​

ওই ভিডিয়োটি পোস্ট করে রাহুল লেখেন, ‘‘আগামী দিনে হার্ভার্ড বিজনেস স্কুলে ব্যর্থতা সংক্রান্ত গবেষণায় জায়গা করে নেবে কোভিড-১৯, নোটবন্দি এবং জিএসটি।’’ রাহুলের এই টুইটটি ছড়িয়ে পড়ার পর তা নিয়ে রাজনৈতিক চাপানউতোরও শুরু হয়ে গিয়েছে।
 

জেপি নড্ডার টুইট।

আরও পড়ুন: গালওয়ান থেকে সেনা সরাচ্ছে চিন, তৈরি হল বাফার জোন​

রাহুলের টুইটের জবাবে কোভিড-১৯ সামাল দেওয়া এবং নোটবন্দি ও জিএসটি-র বাস্তবায়নে কেন্দ্রের ভূমিকা নিয়ে কোনও মন্তব্যে যাননি বিজেপি সভাপতি জেপি নড্ডা। বরং লাদাখ নিয়ে লাগাতার কেন্দ্রকে আক্রমণ করে চলা রাহুলকে এ দিন তিনি বেঁধেন প্রতিরক্ষা বিষয়ক সংসদের স্ট্যান্ডিং কমিটির বৈঠকে হাজিরা নিয়ে। টুইটারে নড্ডা লেখেন, ‘‘প্রতিরক্ষা বিষয়ক স্ট্যান্ডিং কমিটির একটি বৈঠকেও যান না রাহুল। অথচ দেশবাসীর মনোবল ভেঙে দিচ্ছেন তিনি, সেনাবাহিনীর সাহসিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন এবং এক জন দায়িত্বশীল বিরোধী নেতার যা যা করা উচিত নয়, তার সবই করে চলেছেন উনি।’’
 

পরিবারতন্ত্র নিয়ে রাহুলকে কটাক্ষ নড্ডার।

পরিবার তন্ত্র নিয়েও রাহুলকে একবার ফের কটাক্ষ করেন নড্ডা। তিনি লেখেন, ‘‘রাহুল গাঁধী সেই রাজবংশীয় ঐতিহ্যে বিশ্বাসী, যেখানে প্রতিরক্ষা কমিটির কোনও গুরুত্ব নেই। কংগ্রেসে এমন অনেক যোগ্য নেতা রয়েছেন, যাঁরা সংসদীয় বিষয়গুলি ভাল বোঝেন। কিন্তু একটি রাজবংশ তাঁদের বাড়তে দেবে না।’’

 

 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন