বিয়ের আসরে নাচতে নাচতে আসছেন বরযাত্রীরা। সঙ্গে আছেন বরও। তাঁদেরকে বরণ করে নেওয়ার জন্য দাঁড়িয়ে আছেন মেয়ের বাড়ির লোকজন। ঠিক তখনই অঘটন। নাচতে থাকা বরযাত্রীর হুড়মুড় করে পড়লেন একটি নর্দমায়! দেখা গেল, যে জায়গাটার উপর তাঁরা নাচছিলেন, সেটি একটি ছোট কাঠের সাঁকো। ঠিক তার নীচেই ছিল নর্দমা। ঘটনাটি নয়ডার ৫২ নম্বর সেক্টরের হোশিয়ারপুর এলাকার।

স্থানীয় পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত শনিবার হোশিয়ারপুরের এই ঘটনায় আহত হন বেশ কয়েকজন মহিলা-পুরুষ ও দুই শিশু। ওই দুই শিশুকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয় প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য। সাঁকোটি দিয়ে বিয়েবাড়ির মূল হল ও বাইরের লন যুক্ত ছিল। প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে ওই বরযাত্রীর দল প্রায় দশ মিনিট ধরে নাচছিলেন ওই পলকা সাঁকোর উপর। ভার সহ্য করতে না পেরে সেটি হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে। যদিও এর জন্য বিয়েবাড়ির মালিকের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়নি বলেই জানা গিয়েছে। তবে বরযাত্রীদের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, নর্দমায় পড়ে যাওয়ার দরুন তাঁদের বেশ কিছু মোবাইল ফোন খারাপ হয়েছে। খোয়া গিয়েছে বেশ কিছু গয়নাও।

বিয়েবাড়ির মালিক জানিয়েছেন, বিগত ১৫ বছর ধরে তাঁরা ওই বিয়ে বাড়ি ভাড়া দিয়ে আসছেন। কিন্তু কখনওই এমন কোনও ঘটনা ঘটতে দেখা যায়নি। ক্ষতিপূরণ বাবদ বিয়েবাড়ি ভাড়ার প্রায় ৩ লক্ষ টাকা তিনি ফিরিয়ে দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: প্রিয়ঙ্কার নামে চাঙ্গা লখনউ

আরও পড়ুন: তৃতীয় দিনের প্রশ্নোত্তর পর্ব শুরু সিবিআই দফতরে, পৌঁছেছেন রাজীব-কুণাল