• সংবাদসংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ছাত্রদের ইনস্টাগ্রাম গ্রুপে গণধর্ষণের পরিকল্পনা! সোশ্যাল মিডিয়ায় ফাঁস হতেই শোরগোল

representative
প্রতীকী ছবি।

জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ইনস্টাগ্রামের একটি গ্রুপ। নাম ‘বয়েজ লকার রুম’। সেই গ্রুপের সদস্যরা দিল্লির বিভিন্ন স্কুলের একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র। তাঁদের প্রত্যেকের বয়স ১৭-১৮ মধ্যেই। এই কিশোরদের সোশ্যাল মিডিয়া গ্রুপে আলোচনার বিষয়বস্তু, তাদের সহপাঠিনীদের কী ভাবে গণধর্ষণ করবে ও অন্যান্য অশ্লীল কথাবার্তা। সেই গ্রুপে আলোচনার স্ক্রিনশট এক ছাত্রী তুলে ধরেছিল টুইটারে। তার পর থেকেই বিষয়টি নিয়ে ঝড় উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে।

ওই গ্রুপ নিয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে দিল্লি পুলিশ। ফেসবুক অধিকৃত ইনস্টাগ্রাম কর্তৃপক্ষকে এ নিয়ে একটি চিঠিও দিয়েছে দিল্লির সাইবার ক্রাইম ডিভিশন। দিল্লি মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন স্বাতী মালিওয়াল গ্রুপের সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারির দাবি করেছেন। তিনি এক সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘‘দিল্লি কমিশন ফর ওমেন, ইনস্টাগ্রাম ও দিল্লি পুলিশকে চিঠি দিয়েছে। ওই ছেলেদের গ্রেফতার করা হোক ও তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হোক।’’

‘বয়েজ লকার রুম’ গ্রপের আলোচনার বিষয়বস্তু প্রকাশ্যে আনেন যারা তাঁদের মধ্যে অন্যতম, ‘আশনা শর্মা’ নামের এক টুইটার ব্যবহারকারী। তিনি লেখেন, ‘‘এত ভয়ঙ্কর কথাবার্তা আমি জীবনে শুনিনি। তারা কী করছে সে ব্যাপারে তাদের বিন্দুমাত্র অনুশোচনা নেই।’’

শুধু গণধর্ষণের পরিকল্পনা নয়, মেয়েদের ছবি বিকৃত করে পোস্ট করার অভিযোগও উঠছে ওই গ্রুপের বিরুদ্ধে। দক্ষিণ দিল্লির অপর এক ছাত্রী জানিয়েছে তাঁর এক বান্ধবী ধর্ষণের হুমকি পেয়েছেন। সেই ছাত্রী টুইটে লিখেছেন, ‘‘দক্ষিণ দিল্লির ১৭-১৮ বয়সী ছেলের ইনস্টাগ্রাম গ্রুপ ‘বয়েজ লকার রুম’, সেখানে মেয়েদের ছবি বিকৃত করে হুমকি দেওয়া হয়। আমার স্কুলের দু’জন ছেলেও রয়েছে সেখানে। আমি ও আমার বন্ধু এই সব দেখে ভীত। এখন মা আমাকে ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট বন্ধের জন্য চাপ দিচ্ছে।’’

এই বিষয়টি নিয়ে গত দু’দিন ধরে উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া। ‘বয়েজ লকার রুম’ হ্যাশট্যাগ এখন ট্রেন্ড করছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

আরও পড়ুন: ছাপিয়ে গেল সব রেকর্ড, দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ৩৯০০

আরও পড়ুন: ৭০ শতাংশ বেশি দামে মদ কিনতে হবে দিল্লির সুরাপ্রেমীদের

 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন