বন্ধুর বউয়ের সঙ্গে ছিল প্রেমের সম্পর্ক। বিয়েও করতে চাইতেন তাঁকে। কিন্তু সে পথে এক মাত্র বাধা বন্ধু। তাই পরিকল্পনা করে গত মঙ্গলবার নিজের বন্ধুকেই খুন করলেন দিল্লির এক ব্যক্তি। বন্ধুকে খুনের অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া সেই ব্যক্তির নাম গুলকেশ। তাঁর হাতে খুন হওয়া বছর তিরিশের ওই ব্যক্তির নাম দলবীর।

পুলিশ সূত্রে খবর, মঙ্গলবার রাতে দলবীরকে ফোন করে বাড়ির বাইরে ডাকেন গুলকেশ। তার পর তাঁকে নিয়ে যান জাকিরা এলাকায় রেল লাইনের ধারে। সেখানে নিয়ে গিয়ে দলবীরের মাথায় পিছনে ইট দিয়ে আঘাত করেন গুলকেশ। সেই আঘাতে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে দলবীর। এর পর দলবীরের দেহ ট্রেনের ধাক্কায় যাতে ছিন্ন ভিন্ন হয়ে যায়, সে জন্য রেল লাইনের উপর ফেলে দেন তিনি।

দলবীরকে খুন করে নিজেই পুলিশে খবর দেয় গুলকেশ। পুলিশকে ফোন করে তিনি বলেন, প্রেমনগরের কাছে রেল লাইনে এক ব্যক্তির ছিন্ন ভিন্ন দেহ পড়ে আছে। ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেহ উদ্ধারের পর প্রাথমিক তদন্ত শুরু করে পুলিশ। তার পরই গ্রেফতার করা হয় গুলকেশকে। পুলিশ জানিয়েছে, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের সময় ভুল তথ্য দিয়ে তদন্তকে ভুল পথে চালিত করার চেষ্টা করছিলেন গুলকেশ। কিন্তু তাঁর ফোনের কল রেকর্ডস খতিয়ে দেখতেই সামনে আসে অনেক তথ্য। জেরার মুখে ভেঙে পড়েন গুলকেশ। স্বীকার করে বন্ধুকে খুনের কথা। দলবীরের স্ত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কেও কথাও জেরার সময় গুলকেশ স্বীকার করেছে বলে জানানো হয়েছে পুলিশের তরফে। 

আরও পড়ুন: কুর্তার ভিতর ঢুকে আছে সাপ, তবুও ঘুমোচ্ছেন ব্যক্তি! তার পর…

আরও পড়ুন: মহিলাদের আত্মরক্ষায় স্বনির্ভর করতে পেপার স্প্রে বানানো শেখালেন মহিলা আইপিএস