কোনও চিকিৎসক বা নার্সের সাহায্য ছাড়াই গ্রামের রাস্তায় সন্তানের জন্ম দিলেন বছর তিরিশের এক মহিলা। এমনটা নয় যে, ওই মহিলা চিকিৎসকের কাছে যাননি। গঙ্গামালাম্মা নামের ওই প্রসূতিকে তাঁর স্বামী গ্রামের প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান। কিন্তু, দুপুরের খাওয়ার সময়ে কাজ করা যাবে না বলে নার্স তাঁদের ফিরিয়ে দেন বলে অভিযোগ। ফিরতি পথেই রাস্তায় প্রসব হয় গঙ্গামালাম্মার।

সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, কর্নাটকের চিত্রদুর্গা জেলার বাসিন্দা ওই মহিলার গত সোমবার প্রসব বেদনা শুরু হলে তাঁর স্বামী চৌদাপ্পা তাঁকে স্থানীয় প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান। চৌদাপ্পার বয়ান অনুযায়ী, পেটে ব্যথা শুরু হওয়ায় ওই দিন সকাল ১১টা নাগাদ গঙ্গামালাম্মাকে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে আসেন তিনি। কিন্তু দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করেও কোনও সাহায্য তাঁরা পাননি বলে চৌদাপ্পার অভিযোগ। তিনি আরও অভিযোগ করেন, দুপুর নাগাদ এক নার্স এসে তাঁদেরকে জানান যে, ‘লাঞ্চ’-এর সময়ে কোনও কাজ করা যাবে না। তাঁদের বাড়ি চলে গিয়ে পরে আবার আসার কথা বলেন তিনি।

স্ত্রীকে নিয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছিলেন চৌদাপ্পা। কিন্তু এর পর ব্যথার চোটে রাস্তাতেই শুয়ে পড়েন গঙ্গা। স্থানীয় কিছু মহিলার তত্ত্বাবধানে রাস্তাতেই তিনি এক কন্যাসন্তানের জন্ম দেন।

অভিযোগ পেয়ে ঘটনা ঠিক কী হয়েছিল, তা জানতে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক নীরজ পটেল।

আরও পড়ুন: রাজ-শক্তি, সিবিআই ডিরেক্টরের পদ ফিরে পাওয়ার দু’দিনের মাথাতেই বিদায় বর্মার

আরও পড়ুন: গণিত-ভীতি কাটাতে নয়া পদক্ষেপ সিবিএসই বোর্ডের