গণধর্ষণের চেষ্টায় বাধা দিতে গিয়ে অ্যাসিডে পুড়ে গেল এক কিশোরী। সে এখন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে একটি স্থানীয় হাসপাতালে। শুক্রবার রাতে, বিহারের ভাগলপুরের ঘটনা।

পুলিশ জানাচ্ছে, শুক্রবার রাতে হঠাৎই ওই ছাত্রীর বাড়িতে ঢুকে পড়ে ৪ দুষ্কৃতী। তার মা বাধা দিতে গেলে, তার মাথায় বন্দুক চেপে ধরে দুষ্কৃতীদের এক জন। অন্য দুষ্কৃতীরা এগিয়ে যায় ছাত্রীটিকে গণধর্ষণের জন্য। তাকে জাপটে ধরে।

সেই সময় চিৎকার করে নিজেকে বাঁচানোর চেষ্টা করে ছাত্রীটি। বাধা দেওয়ার চেষ্টা করে দুষ্কৃতীদের। তখনই তাদের হাতে থাকা একটি পাত্র থেকে ছাত্রীটিকে লক্ষ্য করে অ্যাসিড ছোড়ে দুষ্কৃতীরা। তাতে ছাত্রীটির শরীরের অনেকটাই পুড়ে যায়। চিৎকার, চেঁচামেচিতে প্রতিবেশীরা এসে পড়লে দুষ্কৃতীরা পালিয়ে যায়। প্রতিবেশীরাই পরে সঙ্কটজনক অবস্থায় কিশোরীটিকে ভর্তি করান একটি স্থানীয় হাসপাতালে।

আরও পড়ুন- মায়ের সামনেই তরুণীকে ধর্ষণ উত্তরপ্রদেশে!​

      আরও পড়ুন- বিজেপি দফতরেই ধর্ষণের চেষ্টা, নেতা অভিযুক্ত​

পরে প্রতিবেশীদের কাছ থেকে খবর পয়ে পুলিশ পৌঁছয় ঘটনাস্থলে। ভাগলপুর জেলার পুলিশ সুপার আশিস ভারতী জানিয়েছেন, ওই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।