অভিনব পন্থা নিল এক সোনা পাচারকারী। আধা তরল অবস্থায় থাকা সোনার পাত পিঠে মলমের মতো লাগিয়ে!

সেই সোনা যে পরিমাণে খুব কম ছিল, তা নয়। ওজনে অন্তত ৫৪২ গ্রাম। দরদামে প্রায় সাড়ে ২১ লক্ষ টাকার সোনা। পাচারকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

অতটা সোনা গলিয়ে তা পিঠে অনেকটা মলমের মতো লাগিয়ে দুবাই থেকে বিমানে চড়েছিল সেই সোনা পাচারকারী। দুবাই থেকে আসা ‘আইএক্স-১৯৪’ নম্বরের বিমানটি লখনউয়ের চৌধরি চরণ সিংহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামার পর মেটাল ডিটেক্টরে ধরা পড়ে যায় সেই সোনা পাচারকারী।

আরও পড়ুন- কাকের আক্রমণ থেকে সন্তানকে বাঁচানোর মরিয়া লড়াই ছোট্ট ময়নার, ভাইরাল ভিডিয়ো​

আরও পড়ুন- কলকাতা বিমানবন্দরে ফের সোনা পাচার, ধৃত ১​

সবাই অবাক হয়ে গিয়েছেন সোনা পাচারকারীর কৌশলের অভিনবত্বে। সোনা তো চট করে গলে না। সোনা গলানোর জন্য প্রচণ্ড তাপমাত্রার প্রয়োজন হয়। তা-ও আবার সামান্য সোনা নয়। অন্তত ৫৪২ গ্রাম ওজনের সোনা। অতটা সোনা গলানোর জন্য তো পাচারকারীর প্রচণ্ড তাপমাত্রার প্রয়োজন হয়েছিল। কেউই বুঝতে পারছেন না, সেটা পাচারকারীর পক্ষে কী ভাবে সম্ভব হয়েছিল? পাচারকারী কোন পদ্ধতির আশ্রয় নিয়েছিল ওই সোনা গলানোর জন্য? যদিও সেই সোনা পুরোপুরি গলেনি। পাচারকারীর পিঠে মলমের মতো লাগানো সোনা ছিল আধা তরল অবস্থায়। অনেকটা দাঁতের মাজনের মতো। কী ভাবেই বা সেই সোনা পিঠে মলমের মতো লাগিয়েছিল পাচারকারী, তার জন্য কারা তাকে সাহায্য করেছিল, সেই সব কিছুই জানার চেষ্টা করছেন  এখন বিমানবন্দরের কাস্টমস অফিসাররা।