সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দরজা খুলতেই হারানিধি! কে ফেরালো ৩৫ বছর আগে চুরি যাওয়া গাড়ি!

Car
অলঙ্করণ: তিয়াসা দাস

Advertisement

সাত সকালে দরজা খুলতেই বাকরুদ্ধ। আনন্দে আত্মহারা গুজরাতের সোনি পরিবার। সদর দরজার সমানেই যে দাঁড় করানো ৩৫ বছর আগে চুরি যাওয়া গাড়ি! নিজের চোখকেও যেন বিশ্বাস করতে পারছিলেন না বাড়ির সদস্যরা। অবশেষে আত্মীয়ের কাছে পুরো ঘটনা জেনে ইষ্ট দেবতাকে ২০ গ্রাম সোনা দিয়ে পুজো দিয়েছে ওই পরিবার।

গুজরাতের বনসকান্থা জেলার লাখানি তালুকের ছলবা গ্রামের ঘটনা। শনিবার সকালে সদর দরজা খুলতেই কার্যত চক্ষু চড়কগাছ বছর চল্লিশের দীনেশ সোনির। দরজার সামনে দাঁড় করানো ৩৫ বছর আগে তাঁর বাবা সুনিল সোনির কেনা সেই জিপ। যে জিপ কেনার কিছুদিন পরই চুরি হয়ে গিয়েছিল। বাবার কাছে বহুবার সেই আক্ষেপ শুনেছেন, গাড়ির বর্ণনা শুনেছেন। আর তার সঙ্গে যে হুবহু মিল।

ঘোর কাটার পর এবার শুরু হল সেই ‘দেবদূত’-এর খোঁজ, যিনি বাড়ির সামনে গাড়ি রেখে গিয়েছেন। পাড়ায় হই হই পড়ে গিয়েছে। এমন মহৎ চোরের কাণ্ড শুনে ভিড় জমিয়েছেন আত্মীয় পরিজনরাও। তাঁদেরই একজন খোলসা করলেন বিষয়টি। তিনি জানান, এক ‘রহস্যময়’ আগন্তুক তাঁদের পুরো বিষয়টি জানিয়েছেন।

আরও পডু়ন: মুরগি কিনতে দেড় কোটি, নোট ডাস্টবিনে!

দীনেশ সোনির ছেলে রোহিত জানান, ওই আগন্তুক আমাদের পরিবারের কারও সঙ্গে দেখা করেননি। এক আত্মীয়কে শুধু জানিয়ে গিয়েছেন, তাঁর দাদু গাড়িটি চুরি করেছিলেন রুজি-রুটির জন্য। এত দিন তিনি সেকথা গোপনই রেখেছিলেন। কিন্তু শেষ বয়সে নাতিকে সেই গাড়ি চুরির কথা জানান দাদু। গাড়ি ফেরত দেওয়ার ইচ্ছাও প্রকাশ করেন। দাদুর ইচ্ছে মতোই মালিককে গাড়িটি ফেরত দিয়ে গিয়েছেন তিনি।

এই সূত্রে ৩৫ বছর আগে সুনীল সোনির সেই গাড়ি কেনার ঘটনাও উঠে এসেছে। দীনেশ জানিয়েছেন, সেই সময় ঠক্কর নামে এক ভদ্রলোকের কাছে থেকে এক লাখ টাকা দিয়ে ওই জিপটি কেনেন বাবা। কিন্তু কিছুদিন পরই সেই গাড়ি চুরি হয়ে যায়। বাবা পরে জানতে পারেন, ঠক্কর চোরাই গাড়িই বিক্রি করেছিলেন। কিন্তু জিপের আসল মালিককে খুঁজে পাওয়া যায়নি। তবে গাড়িটির অবস্থা এখন খুব ভাল নেই।

আরও পড়ুন: ছাত্রীকে যৌন হেনস্থার ভিডিয়ো ভাইরাল, দিল্লিতে গ্রেফতার ৫২ বছরের শিক্ষক

বনসকান্থা জেলার পুলিশ সুপার প্রদীপ শেজুল অবশ্য জানিয়েছেন, ঘটনার কথা তাঁদের জানা নেই। তবে খোঁজ নিয়ে দেখবেন।

কিন্তু ঘটনা যাই হোক, সোনি পরিবার মনে করছে, দেবতার আশীর্বাদ হিসাবেই ফিরে এসেছে তাঁদের হারিয়ে যাওয়া গাড়ি। তাই পরিবারে কার্যত উৎসবের মেজাজ। গৃহদেবতাকে ২০ গ্রাম সোনা ভেট চড়িয়েছেন তাঁরা।

কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী, গুজরাত থেকে মণিপুর - দেশের সব রাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন