আইআইটি মাদ্রাজে ফের পড়ুয়ার মৃত্যু। শুক্রবার হস্টেলের ঘর থেকে এক তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এখনও পর্যন্ত তাঁর মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যায়নি। তবে প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, পরীক্ষায় কম নম্বর পাওয়া নিয়ে বেশ কিছু দিন ধরে অবসাদে ভুগছিলেন ওই ছাত্রী। সেই কারণেই তিনি আত্মঘাতী হয়ে থাকতে পারেন বলে ধারণা পুলিশের। বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু হয়েছে।

মৃত তরুণী আদতে কেরলের বাসিন্দা। আইআইটি মাদ্রাজের মানবতা এবং সমাজ বিজ্ঞান বিভাগে প্রথম বর্ষের স্নাতকোত্তর স্তরে পাঠরত ছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তরফে একটি বিবৃতি প্রকাশ করে শোকজ্ঞাপন করা হয়। তাতে বলা হয়, ‘অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে জানাতে হচ্ছে যে, মানবতা এবং সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের প্রথম বর্ষের এক ছাত্রী মারা গিয়েছেন। আইআইটি মাদ্রাজের সমস্ত কর্মী এবং পড়ুয়াদের তরফে ওঁর পরিবার, বন্ধুবান্ধব এবং নিকটাত্মীয়দের সমবেদনা জানাই। এই ক্ষতি অপূরণীয়। ওঁর আত্মার শান্তি কামনা করি।’

এই নিয়ে গত এক বছরেরও কম সময়ে আইআইটি মাদ্রাজে পাঁচটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা ঘটল। গত ডিসেম্বরে সেখানে আত্মঘাতী হন অদিতি সিংহ নামের একজন সহকারী অধ্যাপক। জানুয়ারিতে উত্তরপ্রদেশ থেকে আসা এমটেক পড়ুয়া গোপাল বাবু আত্মাঘাতী হন। তার পর এ বছর ২২ সেপ্টেম্বর এস সহল কর্মঠ নামের এক পড়ুয়া আত্মঘাতী হন। আবার সম্প্রতি রঞ্জনা কুমারী নামের এক গবেষকও আত্মঘাতী হন। তার পরেই এই ঘটনা।

আরও পড়ুন: বিজেপিকেই সরকার গঠনের আহ্বান, আস্থাভোট নিয়ে শিবসেনার চাপ বাড়াল এনসিপি​

আরও পড়ুন: বিজেপিকেই সরকার গঠনের আহ্বান, আস্থাভোট নিয়ে শিবসেনার চাপ বাড়াল এনসিপি​