নিজের ফ্ল্যাটেইখুন হলেনভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা (ইসরো)-র এক বিজ্ঞানী। মঙ্গলবার সন্ধেয় হায়দরাবাদের আমিরপেট এলাকার অন্নপূর্ণা অ্যাপার্টমেন্টের বাসিন্দা ওই বিজ্ঞানী এস সুরেশের(৫৬) মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

আমিরপেটের ওই বহুতল আবাসনে একাই থাকতেন ইসরোর ন্যাশনাল সেনসিং সেন্টারের সঙ্গে যুক্ত এই বিজ্ঞানী। মঙ্গলবার অফিসে তাঁকে দেখতে না পেয়ে তাঁর মোবাইল নম্বরে ফোন করেন সহকর্মীরা। বারবার ফোন বেজে যাওয়ার পরেও কোনও উত্তর না পেয়ে তাঁরা সুরেশের স্ত্রী ইন্দিরার সঙ্গে যোগাযোগ করেন। চেন্নাইনিবাসী ব্যাঙ্ককর্মী ইন্দিরাও সুরেশবাবুর সঙ্গে যোগাযোগ করতে না পেরে পুলিশে খবর দেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই ফ্ল্যাটের দরজা ভেঙে তাঁর মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ময়নাতদন্তের জন্যে পাঠানো হয়েছে ওই মৃতদেহ।

পুলিশ সূত্রে খবর, সুরেশের মাথার পিছনে ভারী বস্তু দিয়ে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তদন্তকারীদের সন্দেহ, নিরাপত্তারক্ষীদের চোখ এড়িয়ে এক বা একাধিক দুস্কৃতী এই ফ্ল্যাটে পৌঁছেছিল। ঠান্ডা মাথায় পরিকল্পনা করে খুন সেরে পালায় তারা।এদিনের ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই হায়দরাবাদ পুলিশের সিনিয়র অফিসাররা ঘটনাস্থলে পৌঁছন। ওই আবাসনের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখছেন তাঁরা। সুরেশের প্রতিবেশী ও নিরাপত্তারক্ষীদের জিজ্ঞাসাবাদও করা হয়।

আরও পড়ুনঃবদলে চলা প্রকৃতির বিরুদ্ধে লড়ে গোটা গ্রামকে পথ দেখালেন ‘মূল্যহীন’ নাগা মহিলারা
আরও পড়ুনঃ‘গাঁধীর স্বরাজ আর সঙ্ঘের রাষ্ট্র এক নয়’

গত দুই দশক ধরে হায়দরাবাদের বাসিন্দা ছিলেন এই বিজ্ঞানী। ২০০৫ সালে তাঁর স্ত্রী চেন্নাইয়ে বদলি হন।তারপর থেকে নিজের আবাসনে একাই থাকতেন তিনি। তাঁর মেয়ে নয়াদিল্লি ও ছেলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দা।