• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নড্ডাকে হেঁচকা টানে আসনে বসালেন অমিত

nadda
দলের নয়া সভাপতি জেপি নড্ডাকে অভিনন্দন নরেন্দ্র মোদীর। পাশেই সদ্য-প্রাক্তন অমিত শাহ। ছবি: পিটিআই

Advertisement

সবে ঘোষণা হল— জগৎপ্রকাশ নড্ডা বিজেপির নতুন সভাপতি। ‘নির্বিরোধ’ জয়। হাসিমুখে তালি দিচ্ছেন অমিত শাহ। নড্ডাকে নিয়ে গেলেন মঞ্চে, ফুল দিলেন। তার পর বিজেপির ঝাঁ চকচকে সদর দফতরের ছ’তলায়। যে সভাপতির ঘরটি তৈরি করেছিলেন শাহই। সেখানে দুটি চেয়ার। নিজেরটি হাত দিয়ে সরালেন শাহ নিজেই। বাকি রইল একটিই চেয়ার। বিজেপি সভাপতির। সেখানেই রীতিমতো হেঁচকা টান মেরে বসিয়ে দিলেন নড্ডাকে।

অমিত বললেন, ‘‘ফটো লে লো ভাইয়া হমারা!’’ নড্ডা বসে, শাহ দাঁড়িয়ে। মুখ উঁচিয়ে কৃতজ্ঞ দৃষ্টিতে হাতজোড় করে নমস্কার করলেন বিদায়ী সভাপতিকে। 

বিজেপির ‘থ্রি নট থ্রি’ আজ আনুষ্ঠানিক ভাবে বিদায় নিলেন সভাপতির পদ থেকে। দ্বিতীয় বার ৩০৩ আসন নিয়ে নরেন্দ্র মোদী ক্ষমতায় আসার পরে বিজেপি শিবিরে যে নামে পরিচিত অমিত। ‘থ্রি নট থ্রি’ রাইফেলের আদলে সে নামটি আজ নরেন্দ্র মোদীর সামনেই অমিত শাহের প্রশস্তি করতে গিয়ে শোনালেন রাজনাথ সিংহ। কিন্তু শাহ বিদায়ের পর নড্ডার অভিষেক মঞ্চে আজ পরোক্ষে হলেও একটি কটাক্ষ করলেন রাজনাথ, নিতিন গডকড়ীরা।

রাজনাথ বোঝালেন, তিনি সভাপতি থাকতেই মোদী প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। অথচ ২০১৪ সালে লোকসভার পর ‘ম্যান অফ দ্য ম্যাচ’-এর শিরোপা অমিত শাহকেই দিয়েছিলেন মোদী। সেই সময়ে এই নড্ডাকেই দলের সভাপতি করতে চেয়েছিলেন আরএসএসের আশীর্বাদধন্য গডকড়ী। সঙ্ঘেরও সায় ছিল। কিন্তু দল ও সরকারে দুটি পৃথক ক্ষমতাকেন্দ্র করতে দেননি মোদী-শাহ। গডকড়ী আজ মনে করালেন, হিমাচল থেকে দিল্লির কেন্দ্রীয় টিমে নড্ডাকে নিয়ে এসেছিলেন তিনিই। খোদ নড্ডাও তা জানালেন।

আরও পড়ুন: নড্ডাকে বাংলা শিখিয়েছেন স্ত্রী মল্লিকাই

কিন্তু বিজেপি নেতাদেরই কথায়, পদ গেলেও অমিত শাহের খোলাখুলি বিরোধ করা সম্ভব নয়, কারণ এখনও ক্ষমতার রাশ থাকবে মোদী-শাহের হাতেই। আজ দলের দফতরের সভামঞ্চেও তাই যে ব্যানার করা হয়েছে, তাতে মোদীর কাঁধ সব থেকে বেশি চওড়া। তাঁর পাশে নড্ডা আর শাহের ছবির উচ্চতা সমান-সমান। এক নেতা বললেন, ‘‘মোদীর থেকে একটি আসন দূরে হল বটে, কিন্তু ক্ষমতায় টান পড়েনি। তিন বছর পর ফের সভাপতি পদে ফিরে আসবেন না শাহ?’’

প্রধানমন্ত্রীও ভূয়সী প্রশংসা করলেন অমিতের। ‘মৃদুভাষী’, ‘মিশুকে’ নড্ডা যে অমিতের ছায়ায় দলকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন, সেটাই শোনালেন।

নড্ডার অভিষেকের পর বিজেপির প্রথম ঘোষণা: আগামিকাল জনজাগরণ অভিযানে অংশ নিতে লখনউ যাবেন অমিত শাহ।  

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন