ভোর থেকে কমল নাথ ঘনিষ্ঠদের বাড়িতে আয়কর দফতরের তল্লাশি, উদ্ধার বিপুল পরিমাণ নগদ টাকা
ভোপাল, ইনদওর, দিল্লি, গোয়া-সহ সারা দেশের মোট ৫০টি জায়গায় তল্লাশি চালাচ্ছেন আয়কর দফতরের গোয়েন্দারা।
Raid

প্রতীক জোশীর বাড়ি থেকে উদ্ধার নগদ টাকা। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

কর্নাটকের পর এ বার মধ্যপ্রদেশ। লোকসভা ভোটের মুখে মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথের একাধিক প্রাক্তন এবং বর্তমান সহযোগীর বাড়ি-সহ একাধিক জায়গায় তল্লাশি আয়কর দফতরের। কংগ্রেস নেতা কমল নাথের প্রাক্তন ব্যক্তিগত সচিব প্রবীণ কক্করের ইনদওর ও ভোপালের বাড়িতে, প্রাক্তন উপদেষ্টা রাজেন্দ্র কুমার মিগলানির দিল্লির বাড়ি-সহ বহু জায়গায় তল্লাশি চালাচ্ছেন আয়কর দফতরের অফিসাররা। দুই অভিযানে ন’কোটিরও বেশি নগদ টাকা উদ্ধার হয়েছে বলেও আয়কর দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে।

কেন এই অভিযান? আয়কর  দফতর সূত্রে কবর, সম্প্রতি বড়সড় একটি ‘হাওয়ালা’ কাণ্ডে অভিযুক্ত কক্কর, নিগলানি এবং কমল নাথের একাধিক সহযোগী ও ঘনিষ্ঠরা। তাঁদের মাধ্যমে নির্বাচনের সময় বিপুল পরিমাণ টাকা হাওয়ালার মাধ্যমে নগদে লেনদেন হয়েছে বলে খবর। নির্দিষ্ট সূত্রে এই খবর মেলার পরই অভিযানের প্রস্তুতি নেয় আয়কর দফতর।

সেই সূত্রেই রবিবার ভোর তিনটে নাগাদ দফতরের ১৫ জন কর্মী-অফিসার দিল্লি থেকে ইনদওরের অভিজাত এলাকা বিজয়নগরে প্রবীণ কক্করের  বাড়িতে পৌঁছে যান। তাঁর বাড়ির পাশাপাশি একটি গ্যারাজ-সহ মোট ছ’টি জায়গায় তল্লাশি চালানো হয় বলে অভিযোগ। প্রায় একই সময় অন্য একটি দল অভিযানে নামে দিল্লিতে নিগলানির বাড়িতেও। সেখানেও একাধিক জায়গায় তল্লাশিতে উদ্ধার হয় বিপুল পরিমাণ নগদ টাকা। এ ছাড়া কমল নাথের অফিসার অন স্পেশাল ডিউটি রাতুল পুরীর এক ঘনিষ্ঠ সহযোগী প্রতীক যোশীর বাসভবনেও তল্লাশি হয়েছে। ভোপাল, ইনদওর, দিল্লি, গোয়া-সহ সারা দেশের মোট ৫০টি জায়গায় তল্লাশি চালাচ্ছেন আয়কর দফতরের গোয়েন্দারা। অভিযানে নিযুক্ত করা হয়েছে প্রায় ৩০০ কর্মী-অফিসারকে।

আরও পডু়ন: সিপি বদলি নিয়ে ক্ষুব্ধ মমতার কড়া চিঠি কমিশনে, দাবি পুনর্বিবেচনার

আরও পডু়ন: রাজীবের গ্রেফতার চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে আর্জি সিবিআইয়ের

লোকসভা ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা হতেই নিজেদের পদ থেকে ইস্তফা দেন কক্কর এবং নিগলানি। আয়কর দফতর সূত্রে খবর, তার পর থেকেই আতসকাচের নীচে ছিলেন এই দু’জন এবং মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথের ঘনিষ্ঠরা।

এক সপ্তাহ আগেই কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী তথা জেডিএস নেতা এইচ ডি কুমারস্বামীর ঘনিষ্ঠদের বাড়িতে অভিযান চালান আয়কর দফতরের কর্তারা। তখন কুমারস্বামী এবং কংগ্রেসের তরফে অভিযোগ তোলা হয়েছিল, সরকারি প্রতিষ্ঠানকে রাজনৈতিক স্বার্থে ব্যবহার করছে বিজেপি। কমল নাথ যদিও এখনও কোনও মন্তব্য করেননি। তিনি ছিন্দওয়াড়া এবং হোসাঙ্গাবাদে লোকসভা ভোটের প্রচারে ব্যস্ত।

 

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত