• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সেনাকে নিয়ে রাজনীতি নয়, সমস্ত দলকে বার্তা নির্বাচন কমিশনের

BJP
অভিনন্দন বর্তমানের ছবি লাগানো এমনই পোস্টারের ছবি টুইটারে শেয়ার করা হয়েছে।

Advertisement

রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে সেনাকে ব্যবহার করা যাবে না। সেনাবাহিনী অরাজনৈতিক এবং আধুনিক গণতন্ত্রের নিরপেক্ষ সৈনিক। শনিবার দেশের সমস্ত রাজনৈতিক দলের কাছে এই বার্তা পৌঁছে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন

সম্প্রতি ভারতীয় বায়ুসেনার পাইলট অভিনন্দন বর্তমানের একটি ছবি পোস্টারে ব্যবহার করেছিল বিজেপি। সেই ছবিতে অভিনন্দনের পাশাপাশি রয়েছেন নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহও। তাতে লেখা, ‘মোদী থাকলে সবই সম্ভব’। স্বরাজ ইন্ডিয়ার সভাপতি যোগেন্দ্র যাদব বিজেপির ব্যানারের ছবি তুলে নির্বাচন কমিশনের উদ্দেশে টুইটারে পোস্ট করেন। এই ভাবে সেনাবাহিনীকে কী ভাবে কোনও দল নিজেদের রাজনৈতিক স্বার্থে ব্যবহার করতে পারে, তা নিয়ে নির্বাচন কমিশনের কাছে প্রশ্ন করেন তিনি।

শুধু একটা ছবি নয়, বিজেপির আরও কয়েকটি পোস্টারের ছবিও টুইটারে শেয়ার করেন যোগেন্দ্র। তার কোনওটায় নরেন্দ্র মোদী এবং অন্যান্য বিজেপির নেতার সঙ্গে সেনাবাহিনীর প্রতীক বন্দুকের উপর টুপি রাখার ছবি লাগানো, কোনওটায় সেনার ছবির পাশে নরেন্দ্র মোদীর ছবির সঙ্গে পাকিস্তানের প্রতি বার্তা ‘হম তুমহে মারেঙ্গে অউর জরুর মারেঙ্গে’।

আরও পড়ুন: চোর ফেরত দিল রাফালের নথি! মোদী সরকারকে কটাক্ষ কংগ্রেসের

 

এর আগে ভোটপ্রচারে সেনাবাহিনীকে ব্যবহার করার অভিযোগ জানিয়ে নির্বাচন কমিশনকে চিঠি লিখেছিলেন প্রাক্তন নৌসেনা প্রধান অ্যাডমিরাল এল রামদাসও। চিঠিতে তিনি লেখেন, পুলওয়ামার নাশকতা, বালাকোটে বিমানবাহিনীর বোমাবর্ষণ এবং ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানের নাম নির্বাচনী প্রচারে যথেচ্ছ ব্যবহার করছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল। অবিলম্বে এই প্রচার বন্ধ হওয়া জরুরি।

আরও পড়ুন: ভারতে একের পর এক জঙ্গি হামলা, কতটা অবগত আপনি?

শনিবার নির্বাচন কমিশন সমস্ত রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলাদা করে আলোচনায় বসে। সমস্ত দলকেই নোটিস পাঠিয়ে সেনাবাহিনীকে রাজনীতি থেকে দূরে রাখতে নির্দেশ দিয়েছে।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন