• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী নন রাহুল, জানালেন চিদম্বরম

Rahul Gandhi
রাহুল গাঁধী। —ফাইল চিত্র।

Advertisement

পদের গরিমার বিনিময়ে ভোট খোয়াতে চাইছে না কংগ্রেস। তাই জোটের জন্য সবচেয়ে বড় আত্মত্যাগ করতেও প্রস্তুত কংগ্রেস! প্রয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর পদের আহুতিও দিতে প্রস্তুত তারা! রাহুল গাঁধী তো নয়ই, বিজেপির বিরুদ্ধে জোট করতে অসুবিধা হলে দলের অন্য কোনও নেতাকেও প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী করা হবে না, সোমবার এক সাক্ষাৎকারে জানিয়ে দিয়েছেন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে বিজেপিকে হারাতে মরিয়া কংগ্রেস। আর সে জন্য বিভিন্ন আঞ্চলিক দলগুলির সঙ্গে জোট জরুরি।কিন্তু জোটের তরফে প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসাবে রাহুল গাঁধীকে অনেক দলই মানতে রাজি নয়। সে প্রসঙ্গে রাহুল অবশ্য আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন, সর্বসম্মতভাবে রাজি না হলে তিনি প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হবেন না। এ বার প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম দলের সেই সিদ্ধান্তই আরও স্পষ্ট করে দিলেন জোট শরিকদের কাছে।

তিনি এ দিন বলেন, ‘‘আমরা কখনও বলিনি যে পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসাবে রাহুল গাঁধীকে চাইছি আমরা। যদি কখনও দলের কোনও সমর্থক বা নেতা এই প্রসঙ্গে কথা বলতে চান, দলই তাঁকে থামিয়ে দেয়। আমাদের একটাই উদ্দেশ্য, বিজেপিকে হারানো। তার জায়গায় একটা উন্নয়নশীল, জনগণকে স্বাধীনতা প্রদানকারী, মহিলা এবং শিশুদের সুরক্ষা দানকারী, কৃষকদের কল্যাণকামী সরকার আমরা চাই।’’তার জন্য জোট সরকারের প্রয়োজন। কে প্রধানমন্ত্রী হবে তা ভোটের পর যৌথভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে, জানান তিনি।

আরও পড়ুন: নিয়ন্ত্রণরেখায় ফের পাক বর্বরতা, ভারতীয় ভূখণ্ডে ঢুকে তিন সেনা জওয়ানকে খুন

রাহুল গাঁধীও আগে ঠিক এ কথাটাই বলেছিলেন। ৫ অক্টোবর একটি অনুষ্ঠানে তিনি জানিয়েছিলেন, এই নির্বাচনটা দু’টো ধাপে হবে। প্রথম ধাপে ভোট এবং দ্বিতীয় ধাপে, নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হওয়ার পর শরিক দলগুলির সঙ্গে বসে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন