মনমোহন সিংহ ও রঘুরাম রাজন জুটির ঘাড়েই দেশের আর্থিক সমস্যার দায় চাপিয়ে দিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। সেই প্রসঙ্গে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এবার পাল্টা এক হাত নিলেন বিজেপি সরকারকে। তাঁর দাবি, দেশের ব্যাঙ্ক ব্যবস্থার সঙ্কট দূর করার পরিবর্তে বিরোধীদের ঘাড়ে দোষ চাপাতেই ব্যস্ত এই সরকার। এ ভাবে আর্থিক সমস্যার সমাধান হবে না।

বৃহস্পতিবার মুম্বইয়ে আয়োজিত এক সাংবাদিক বৈঠকে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ বলেন, ‘‘আমি অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামনের বিবৃতিটি কিছুক্ষণ আগেই পড়েছি। আমি এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাই না। শুধু এটুকু বলতে পারি, অর্থনীতির হাল ফেরাতে হলে আগে এই অবস্থার মূল কারণগুলিকে বুঝতে হবে। খুঁজতে হবে আর্থিক সমস্যা নির্মূল করার উপায়ও।’’

প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী স্পষ্ট বলছেন, বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকার আর্থিক সমস্যার সমাধান না করে বিরোধীদের ঘাড়ে দায় চাপাতে ব্যস্ত। এভাবে চললে আর্থিক সংকট আরও গভীরতর হবে।

এদিন পঞ্জাব অ্যান্ড মহারাষ্ট্র কো-অপারেটিভ (পিএমসি) ব্যাঙ্কের আর্থিক অপরাধের প্রসঙ্গও এল তাঁর মুখে। পিএমসি কাণ্ডে বিপদে পড়েছেন প্রায় ১৬ লক্ষ বিনিয়োগকারী। মনমোহন মনে করেন, কেন্দ্র এবং মহারাষ্ট্রের বিজেপি সরকার এখনও পর্যন্ত গ্রাহকদের জন্যে কোনও স্বস্তিদায়ক নীতি গ্রহণ করতে পারেনি।    

আরও পড়ুন:মৎস্যজীবী উদ্ধারের পরে সীমান্তে বিএসএফ-কে গুলি বাংলাদেশি বাহিনীর, মৃত্যু জওয়ানের, জখম আরও ১
আরও পড়ুন:‘‘শুধু সাভারকার নয়, ভারতরত্ন দিন নাথুরাম গডসেকেও’’, বিজেপিকে তোপ ওয়েইসির

ইউপিএ জমানায় দেশের ব্যাঙ্কের অবস্থা সবচেয়ে খারাপ হয়েছিল বলে মঙ্গলবার নিউইয়র্কের কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটির স্কুল অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড পাবলিক অ্যাফেয়ার্সে বক্তৃতায় মত প্রকাশ করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘‘আমি রাজনকে উপযুক্ত সম্মান জানিয়েও এই তথ্যটা সকলের সামনে তুলে ধরব যে, মনমোহন সিংহ এবং রঘুরাম রাজনের জুটির সময়ে দেশের ব্যাঙ্কগুলি যে দুর্দশার মধ্যে দিয়ে গিয়েছিল তা আর কোনও দিন হয়নি।’’

এই মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় নিজেকে পুরোপুরি ক্লিনচিটও দিচ্ছেন না মনমোহন নিজেও। তাঁর কথায়, ‘‘আমি দায়িত্বে থাকার সময়ে যা হওয়ার তা হয়ে গিয়েছে। আমাদেরও নিশ্চয়ই ভুল ত্রুটি ছিল। কিন্তু পাঁচ বছর পেরিয়েও আমাদের দোষারোপ করে কোনও কাজ হবে না।’’

২০১২-২০১৩ সালে ব্যাঙ্কে ঋণের পরিমাণ ছিল ৯,১৯০ কোটি। ২০১৩-২০১৪ সালে সেই ঋণই বেড়ে দাঁড়ায় ২,১৬ লক্ষ কোটি টাকা। ২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসে বিজেপি সরকার। এই তথ্যকেই হাতিয়ার করে বর্তমান সরকারের বিরোধিতা করে আসছেন মনমোহন সিংহ-রঘুরাম রাজন জুটি।