• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পরিযায়ী মৃত্যুর তথ্য নিচ্ছে কেন্দ্র

Migrant Workers
ছবি: পিটিআই।

লকডাউনের সময়ে কাজ খুইয়ে বাড়ির পথ ধরা কত জন পরিযায়ী শ্রমিক রাস্তাতেই মারা গিয়েছেন, সেই বিষয়ে কোনও তথ্য না-থাকার কথা লোকসভায় জানিয়েছিল কেন্দ্র। তা নিয়ে দেশ জুড়ে সমালোচনার ঝড় ওঠার পরে এখন সেই তথ্য সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের কাছ থেকে জোগাড় করা হচ্ছে বলে রাজ্যসভায় জানাল তারা।

সোমবার রাজ্যসভায় তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়ানের প্রশ্নের উত্তরে এই পরিসংখ্যান জোগাড়ের কথা জানিয়েছেন শ্রমমন্ত্রী সন্তোষ গঙ্গোয়ার। হেঁটে ফেরার সময়ে কত জন পথ দুর্ঘটনায় মারা গিয়েছেন, তাঁদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়েছে কি না, সেই সমস্ত প্রশ্নেও একই উত্তর দিয়েছেন তিনি। অথচ এর আগে অনেকটা এ ধরনের প্রশ্নের উত্তরেই লোকসভায় কেন্দ্র জানিয়েছিল, লকডাউনের সময়ে বাড়ির পথ ধরা কত জন পরিযায়ী শ্রমিক রাস্তায় মারা গিয়েছেন, তা তাদের জানাই নেই। তেমন তথ্য রাখার রেওয়াজ না-থাকায় মৃতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ারও প্রশ্ন নেই। কোভিডের কামড়ে কত জন পরিযায়ী কর্মী কাজ হারিয়েছেন, সেই সম্পর্কেও সরকারের ঘরে পরিসংখ্যান না-থাকার কথা মেনে নিয়েছিল শ্রম মন্ত্রক। এ দিন যদিও তাদের দাবি, কাজ খুইয়ে বিভিন্ন রাজ্যে ফেরা শ্রমিকের সংখ্যা ১.০৬ কোটি। লকডাউন শিথিল হওয়ার পরে কাজের জায়গায় ফিরতে শুরু করেছেন তাঁদের অনেকেই।

এর আগে লোকসভায় তথ্য না-থাকার কথা জানানোর পরে প্রশ্ন উঠেছিল, কত জন রেলে বা রাস্তায় মারা গিয়েছেন, সেই পরিসংখ্যান তো রেল মন্ত্রক এবং হাইওয়ে অথরিটির কাছে রয়েছে। তা ছাড়া, প্রত্যেক রাজ্যের কাছ থেকে তা জোগাড়ের দায়িত্ব থেকেও আইনি ভাবে হাত ধুয়ে ফেলতে পারে না কেন্দ্র। সেই চাপেই এখন কেন্দ্র তা জোগাড় করার কথা বলছে বলে বিরোধী শিবিরের দাবি।

আরও পড়ুন: লাদাখ নিয়ে বার্তা দিতে সেনা-বৈঠকে আমলাও

আরও পড়ুন: তবলিগি জমায়েত থেকে সংক্রমণ ছড়িয়েছে: কেন্দ্র

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন