• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পুলওয়ামা নিয়ে মন্তব্যে বিতর্ক, কপিল শর্মার শো থেকে সরানো হল সিধুকে

navjyot singh sidhu
নভজ্যোত সিংহ সিধু। ছবি: টুইটার থেকে সংগৃহীত।

‘দ্য কপিল শর্মা শো’ থেকে সরানো হল নভজ্যোত সিংহ সিধুকে। পুলওয়ামার জঙ্গি হামলা নিয়ে সম্প্রতি নিজের মতামত জানিয়েছিলেন পঞ্জাবের মন্ত্রী তথা প্রাক্তন ক্রিকেটার সিধু। তার জেরে মাথাচাড়া দিয়েছিল বিতর্ক। অনুষ্ঠান বয়কট করার ডাক দিয়েছিলেন অনেকে। তার জেরেই সিধুকে অনুষ্ঠান থেকে সরানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তাঁর জায়গায় এ বার দেখা যাবে অভিনেত্রী অর্চনা পূরণ সিংহকে।

অনুষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত এক ব্যক্তি সংবাদ মাধ্যমকে জানান,  ‘‘অনেকেই সিধুর মন্তব্য ভালভাবে নেননি। রুষ্ট হয়েছিলেন চ্যানেল কর্তৃপক্ষও। অযথা বিতর্কে জড়াতে চাননি তাঁরা। তাই সকলে মিলে সিধুকে সরানোর সিদ্ধান্ত নেন। সিধুর জায়গায় অর্চনা পূরণ সিংহকে আনা হয়েছে। ইতিমধ্যে তাঁর সঙ্গে শুটিংও শুরু হয়ে গিয়েছে।’’

দীর্ঘ বিরতির পর টেলিভিশনে ফিরেছেন কপিল শর্মা। বলিউড অভিনেতা সলমন খানের প্রযোজনায় নতুন ভাবে যাত্রা শুরু করেছেন। সভজ্যোত সিংহ সিধুকে সঙ্গে নিয়েই। কিন্তু বৃহস্পতিবার পুলওয়ামার জঙ্গি হামলা নিয়ে  নিজের মতামত প্রকাশ করেন সিধু।  সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে হামলার তীব্র নিন্দা করেন তিনি।  তবে হামলার পর থেকে যে ভাবে পাকিস্তানের প্রতি বিদ্বেষের আবহ তৈরি হয়েছে দেশজুড়ে, তার বিরোধিতা করেন। পাকিস্তানের নাম না করে তিনি বলেন, ‘‘কাপুরুষের মতো হামলা চালানো হয়েছে পুলওয়ামায়। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি আমি। পরিস্থিতি যাই হোক না কেন, নাশকতা সবসময়ই নিন্দনীয়। দোষীদের কড়া শাস্তি হওয়া উচিত। কিন্তু হাতে গোনা কয়েক জনের অপরাধের দায় একটা গোটা দেশ বা সেখানকার সাধারণ মানুষের উপর চাপিয়ে দেওয়া যায় কি?’’

এ ভাবেই সিধুর বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন নেটিজেনরা।

সাম্প্রতিক জঙ্গি হামলা সম্পর্কে এগুলি জানেন

আরও পড়ুন: আত্মরক্ষার্থে ভারতের যে কোনও পদক্ষেপকে পূর্ণ সমর্থন করা হবে, জানিয়ে দিল আমেরিকা​

আরও পড়ুন: স্বামীর সঙ্গে কথা বলছিলেন ফোনে, আচমকা ভেসে এল বিকট শব্দ, তার পর সব চুপ​

শুধু দেশে নয়, পুলওয়ামায় হামলা নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে আন্তর্জাতিক মহলেও। খোলাখুলি পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সরকারকে আক্রমণ করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এমন পরিস্থিতিতে সিধুর এই মন্তব্য মনঃপূত হয়নি নেটিজেনদের। সিধুর বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগরে দেন অনেকে। সরাসরি কপিল শর্মাকে হুমকি দিয়ে বসেন তাঁরা। কেউ কেউ দাবি তোলেন, সিধুকে না সরানো পর্যন্ত কপিল শর্মা শো বয়কট করা উচিত সকলের। অনেকের আবার দাবি, কপিল শর্মা অবিলম্বে সিধুকে শো থেকে বাদ দেওয়া হোক। নইলে অনুষ্ঠান বয়কট করা হবে। টেলিভিশনে অনুষ্ঠানটির সম্প্রচার বন্ধ করে দিতে সরকারের কাছে আবেদনও জানান অনেকে। তার পরই সিধুকে সরানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

যদিও এই প্রথম নয়, ২০১৮-য় পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে গিয়েও ক্ষোভের মুখে পড়েছিলেন নভজ্যোত সিংহ সিধু। দলীয় নেতাদের বারণ সত্ত্বেও ‘ব্যক্তিগত বন্ধুত্ব’ রক্ষা করতে ইসলামাবাদ গিয়েছিলেন সিধু। অনুষ্ঠানে পাক সেনা প্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়াকে আলিঙ্গন করতেও দেখা যায় তাঁকে। তা নিয়ে বিস্তর ঝামেলা হয়। সেইসময় কংগ্রেস নেতাদেরও পাশে পাননি তিনি। 

(কী বললেন প্রধানমন্ত্রী, কী বলছে সংসদ- দেশের রাজধানীর খবর, রাজনীতির খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন