• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পাইলটকে দলে রাখতে আসরে রাহুল, সতর্ক করা হল গহলৌতকে

Sachin Pilot and Rahul Gandhi
রাজেশ পাইলট ও রাহুল গাঁধী। —ফাইল চিত্র

মরুরাজ্যের দুর্গ সামলাতে এ বার আসরে নামলেন রাহুল গাঁধী। গত কালই ‘বিদ্রোহী’ সচিন পাইলটকে প্রদেশ সভাপতি এবং উপ মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছিল কংগ্রেস। তার ঠিক ২৪ ঘণ্টা পর বুধবার সচিনকে রাহুল বার্তা দিয়েছেন, তাঁর জন্য সর্বদাই দরজা খোলা। একই সঙ্গে রাজস্থানের এই দ্বৈরথের অন্য পক্ষ অশোক গহলৌতকেও দল হুঁশিয়ারি দিয়েছে বলে সূত্রের খবর। তাঁকে মুখে কুলুপ আঁটার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অশোক গহলৌত বনাম সচিন পাইলট। এই দ্বন্দ্বে গত কয়েক দিন ধরেই টলমল করছে কংগ্রেসের রাজস্থানের গড়। সচিন পাইলট নিজে দল ছাড়ার আগে মঙ্গলবার রাজস্থানের উপমুখ্যমন্ত্রী ও প্রদেশ সভাপতির পদ থেকে তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হয়। তাঁর দুই ঘনিষ্ঠ নেতাকেও রাজস্থানের মন্ত্রী পদ থেকে অপসারিত করা হয়। গৃহযুদ্ধের আগুন যখন কার্যত দাউদাউ করে জ্বলছে ঠিক তখনই সচিনকে ঘরে ফেরানোর চেষ্টায় নামলেন রাহুল। তাঁর তরফে এ দিন সচিনকে বার্তা দেওয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, তিনি (রাহুল গাঁধী) দলের এক জন সদস্য। তাঁর (সচিন পাইলট) জন্য দলের দরজা সর্বদাই খোলা।

এক পক্ষের জন্য এ দিন যখন নরমপন্থা অবলম্বন করেছে হাতশিবির। তখন অন্য পক্ষ রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌতকে দলের তরফে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে বলেও সূত্রের খবর। দলের তরফে তাঁকে মুখে লাগাম টানতে বলা হয়েছে। জনসমক্ষে রাজনৈতিক মন্তব্য থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে গহলৌতকে। কংগ্রেস সূত্রে খবর, অশোক গহলৌতের কর্মকাণ্ডে ক্ষুব্ধ হাইকমান্ড। তাই এ দিন তাঁকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: ‘মর্যাদা পাচ্ছিলাম না, তবে বিজেপিতে যাচ্ছি না’

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশের মতে, সচিনের সঙ্গে কংগ্রেসের সম্পর্ক এখন সুতোর মতো ঝুলছে। জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার মতো রাজেশ পাইলটের পুত্র বিজেপিতে পা বাড়াবেন না বলেই এ দিন তিনি দাবি করেছেন। দলীয় নেতৃত্বের একাংশের প্রতি ক্ষোভ উগরে দিয়ে বলেছেন, ‘‘রাহুল গাঁধী সরে যাওয়ার পর থেকেই দলে ও রাজস্থান সরকারে আমার আত্মসম্মান বজায় রেখে চলাটা মুশকিল হয়ে দাঁড়াচ্ছিল। তবে ভোটে অনেক পরিশ্রম করেই কংগ্রসকে ক্ষমতায় এনেছিলাম। তাই বিজেপিতে যাব কেন?’’ রাজনৈতিক শিবিরের একাংশ বলছেন, কংগ্রেসে রাহুলের তরুণ ব্রিগেডের অন্যতম দুই মুখ ছিলেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া এবং সচিন পাইলট। কমল নাথের সঙ্গে দ্বন্দ্বের জেরে কংগ্রেস ছেড়ে আগেই বিজেপিতে গিয়েছেন সিন্ধিয়া। তাই এ বার সচিনকে দলে রাখতে ময়দানে নেমেছেন রাহুল স্বয়ং।

আরও পড়ুন: মেয়াদ পূর্তির আগেই পদত্যাগ করতে পারেন নির্বাচন কমিশনার অশোক লাভাসা

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন