ওষুধ সংস্থা 'জনসন অ্যান্ড জনসন'-এর বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া জনস্বার্থ মামলাটি শুক্রবার বন্ধ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট। কারণ হিসেবে জানানো হল, ওই সংস্থার হিপ ইমপ্ল্যান্টের দরুন যাঁরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলেন, তাঁদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় সরকার যে প্যাকেজ দিচ্ছেন, তাতে শীর্ষ আদালত সন্তুষ্ট। তাই ওই মামলা চালানোর আর প্রয়োজন নেই। শীর্ষ আদালতে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, সেই ক্ষতিপূরণের পরিমাণ হবে ৩ লক্ষ টাকা থেকে সর্বাধিক ১ কোটি ২২ লক্ষ টাকা।

সেই ক্ষতিপূরণের পরিমাণ কতটা হতে পারে, তা ঠিক করার জন্য একটি প্যানেল গড়ে দেওয়া হয়েছিল। প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের নেতৃত্বে শীর্ষ আদালতের একটি বেঞ্চ জানিয়েছে, সেই প্যানেলের সব সুপারিশই মনে নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। যাতে ক্ষতিগ্রস্তদের সকলেই ওই ক্ষতিপূরণ পান, তা সুনিশ্চিত করতে যথাযথ প্রচারও করতে বলা হয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকারকে। সে ক্ষেত্রেও কেন্দ্রের কাজে সন্তোষ প্রকাশ করেছে সুপ্রিম কোর্ট।

কেন্দ্রীয় সরকারের ওই ক্ষতিপূরণ প্যাকেজ ঘোষণাকে চ্যালেঞ্জ করে দিল্লি হাইকোর্টে মামলা করা হয়েছে জনসন অ্যান্ড জনসনের তরফে।

আরও পড়ুন- ‘প্রমাণহীন অভিযোগে বদলি, নষ্ট হয়েছে সিবিআইয়ের সার্বভৌমত্ব’, বিস্ফোরক অলোক বর্মা​

আরও পড়ুন- রাজ-শক্তি, সিবিআই ডিরেক্টরের পদ ফিরে পাওয়ার দু’দিনের মাথাতেই বিদায় বর্মার​

জনসন অ্যান্ড জনসনের তরফে আইনজীবী মুকুল রোহতগি এ দিন শীর্ষ আদালতে জানান, সুপ্রিম কোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা রয়েছে বলে দিল্লি হাইকোর্টে ওই সেই মামলার শুনানি হচ্ছে না।