সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ রদ। সেইসঙ্গে জম্মু-কাশ্মীর পুনর্গঠন বিল পাশ করিয়ে নেওয়া। গত দু’দিনে কার্যত একের পর এক ‘মাইলস্টোন’ পেরিয়েছে মোদী সরকার। আর তা নিয়ে উচ্ছ্বাসের ঢেউ উঠেছে বিজেপি শিবিরে। উচ্ছ্বসিত দলের প্রাক্তনীরাও। মঙ্গলবারই প্রধানমন্ত্রীকে টুইট করে অভিনন্দন জানিয়েছিলেন প্রাক্তন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। কে জানত, সেটাই হয়ে যাবে টুইটারে সদা সক্রিয় সুষমার শেষ বার্তা! কে জানত তার কিছুক্ষণের মধ্যেই মৃত্যু থামিয়ে দেবে তাঁকে!

মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টা ২৩ মিনিটে প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে টুইট করেন সুষমা। প্রাক্তন বিদেশমন্ত্রী লেখেন, ‘প্রধানমন্ত্রীজি, আপনাকে অজস্র ধন্যবাদ। আমি জীবনভর এই দিনটা দেখার জন্য অপেক্ষা করছিলাম।’ এই ছোট্ট বার্তাতেই কার্যত সব আবেগ ঢেলে দেন তিনি। টুইটটি রিটুইট করতে শুরু করেন তাঁর অনুগামীরা। একসময় রিটুইটের সংখ্যা ৬০ হাজার ছাড়িয়ে যায়। তাঁর ভক্তদের একের পর এক প্রতিক্রিয়াও আসতে থাকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় যখন এ সব চলছে, সেই সময়েই হৃদরোগে আক্রান্ত হন সুষমা স্বরাজ। দ্রুত এমসে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। কিন্তু, শেষ পর্যন্ত সব চেষ্টাই ব্যর্থ হয়ে যায়।

 

প্রথম মোদী সরকারের আমলের বিদেশমন্ত্রী। তবে, অসুস্থতার কারণে গত লোকসভা নির্বাচনে আর অংশগ্রহণ করতে চাননি সুষমা। কিন্তু, তার মধ্যেই জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে কেন্দ্র সরকার কী পদক্ষেপ করে সেদিকে সর্বদা নজর ছিল তাঁর। সোমবার থেকেই টুইটে একের পর এক বার্তাও দিচ্ছিলেন তিনি। সোমবার রাজ্যসভায় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলোপের ঘোষণা করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সে দিন অমিতের বক্তৃতা মুগ্ধ করেছিল বাগ্মী সুষমা স্বরাজকে। টুইটে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘রাজ্যসভায় অসাধারণ ভূমিকা পালনের জন্য আমি অমিত শাহকে ধন্যবাদ জানাই।’

আরও পড়ুন: সুষমার বাড়িতে কোবিন্দ-মোদী-অমিত-আডবাণী-সনিয়ারা, শেষকৃত্য বিকালে​

মঙ্গলবার রাতে এক লহমায় সব অতীত হয়ে গেল।

আরও পড়ুন: হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে আচমকাই চলে গেলেন সুষমা স্বরাজ​