দু’বছর আগে সেরা তহসিলদার হয়েছিলেন যিনি, দু’বছর পর তাঁর বাড়ি থেকেই উদ্ধার হল ৯৩ লক্ষ টাকারও বেশি বেআইনি নগদ! তদন্তকারীদের অনুমান, যার পুরোটাই ঘুষের টাকা। সম্প্রতি ওই শুল্ক অফিসারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

তেলঙ্গানার রঙ্গ রেড্ডি জেলার তহসিলদার বা মণ্ডল শুল্ক অফিসার ভি লাবণ্য। তাঁর বাড়ি হায়দরাবাদের হায়াথনগরে। বাড়িটা দেখতে নিতান্তই মধ্যবিত্ত। সেই বাড়ি থেকেই উদ্ধার হয়েছে ৯৩ লক্ষ ৫০ হাজার নগদ টাকা এবং ৪০০ গ্রাম ওজনের সোনা। সেরা তহসিলদারের বাড়ি থেকে এত পরিমাণ বেআইনি নগদ উদ্ধার হওয়ায় হতভম্ব দুঁদে পুলিশ অফিসাররাও।

লাবণ্যকে কেন সন্দেহ হল পুলিশের?

সন্দেহের সূত্রপাত এক কৃষকের অভিযোগকে ঘিরে। ওই কৃষক পুলিশের কাছে গ্রাম শুল্ক অফিসারের বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ করেছিলেন। জমির রেকর্ডের ভ্রম সংশোধন করার জন্য ওই অফিসার নাকি ৮ লক্ষ টাকা চেয়েছিলেন কৃষকের কাছ থেকে। যার মধ্যে ৩ লক্ষ টাকা গ্রাম শুল্ক অফিসার নিজের জন্য এবং বাকি ৫ লক্ষ টাকা মণ্ডল শুল্ক অফিসার ভি লাবণ্যের জন্য চেয়েছিলেন বলে দাবি করেন ওই কৃষক। এই ভি লাবণ্যকে দু’বছর আগে তেলঙ্গানা সরকার সেরা তহসিলদারের পুরস্কার দিয়েছিল।

আরও পড়ুন: ‘আলোর গতিতে কাজ করতে পারব না’, কর্নাটক জট জিইয়ে রেখে বললেন স্পিকার

অভিযোগ পাওয়ার পর থেকেই এই বিষয়টার উপর পুলিশ নজর রেখেছিল। ওই কৃষকের কাছ থেকে ৪ লক্ষ টাকা গ্রাম শুল্ক অফিসার নেন। তার পরই তাঁকে হাতেনাতে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রাম শুল্ক অফিসারকে জেরা করেই তহসিলদারের বাড়িতে তল্লাশি চালায় পুলিশ।

আরও পড়ুন: ‘আলোর গতিতে কাজ করতে পারব না’, কর্নাটক জট জিইয়ে রেখে বললেন স্পিকার

এর মধ্যে ওই কৃষকের একটি ভিডিয়ো ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যাতে ওই কৃষককে তহসিলদারের পা ধরে তাঁর বিষয়টা দেখার জন্য আকুতি-মিনতি করতেও দেখা যায়।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও।সাবস্ক্রাইব করুনআমাদেরYouTube Channel - এ।