• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

১৬৯ জনের সমর্থনে আস্থাভোট জিতলেন উদ্ধব, ভোটাভুটির আগেই ওয়াকআউট বিজেপির

Uddhav Thackeray
আজ শক্তি পরীক্ষা উদ্ধবের। —ফাইল চিত্র।

Advertisement

মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিয়েছিলেন আগেই।এ  বার বিধানসভায় আস্থাভোটেও জয়ী হলেন উদ্ধব ঠাকরে। তাঁর নেতৃত্বাধীন জোট সরকারের পক্ষে সমর্থন দিয়েছেন ১৬৯ জন বিধায়ক। ভোটদান থেকে বিরত ছিলেন এমআইএম-এর ২ জন, সিপিআইয়ের ১ জন এবং উদ্ধবের খুড়তুতো ভাই রাজ ঠাকরের মহারাষ্ট্র নব নির্মাণ সেনার (এমএনএস) ১ জন বিধায়ক। তবে উদ্ধবের বিরুদ্ধে একটা ভোটও পড়েনি এ দিন।

দীর্ঘ টানাপড়েনের পর বৃহস্পতিবারই মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেন উদ্ধব ঠাকরে। আজ  রাজ্য বিধানসভায় তাঁর শক্তিপরীক্ষা ছিল। স্পিকার নিয়োগ না করেই আস্থাভোট করার প্রতিবাদে বিধানসভা থেকে প্রথমে ওয়াক আউট করে বিজেপি। তার পর প্রোটেম স্পিকার দিলীপ ওয়ালসে পাটিলের তদারকিতে দুপুর আড়াইটে নাগাদ আস্থাভোট শুরু হয়। তাতে ভাল ভাবেই উতরে যান উদ্ধব। আগামী পাঁচ বছর তিনিই মহারাষ্ট্রে সরকার চালাবেন। 

বিজেপি নেতৃত্ব জোটের ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন তুললেও, সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে শুরু থেকেই আত্মবিশ্বাসী ছিল ‘মহা বিকাশ আগাড়ি’ জোট। ১৭০ জনের বেশি বিধায়কের সমর্থন রয়েছে বলে এ দিন সকালেই দাবি করে তারা। জোটের তরফে যে হিসাব প্রকাশ করা হয়, তাতে বলা হয়,  শিবসেনার ৫৬, এনসিপি-র ৫৪ এবং কংগ্রেসের ৪৪ জন বিধায়ক ছাড়াও ৮ জন নির্দল বিধায়ক, সমাজবাদী পার্টির ২ জন বিধায়ক এবং স্বাভিমানী শেতকরি (১), বহুজন বিকাশ আগাড়ি (৩), মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনা(১), পিস্যান্টস অ্যান্ড ওয়ার্কারস পার্টি অব ইন্ডিয়া(১), সিপিএম(১) মিলিয়ে মোট ১৭১ জনের সমর্থন রয়েছে উদ্ধব নেতৃত্বাধীন জোটের পক্ষে। 

এর আগে, বৃহস্পতিবার মু্ম্বইয়ের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নেন উদ্ধব ঠাকরে। ওই দিন তাঁর সঙ্গে মন্ত্রী হিসাবে শপথ নেন আরও ছ’জন। তবে উপ মুখ্যমন্ত্রী কে হবেন, তা এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি। এনসিপি এবং শিবসেনা থেকে মোট দু’জনকে উপ মুখ্যমন্ত্রী করা হবে বলে, প্রথমে জানা গেলেও, এখনও পর্যন্ত তা নিয়ে নির্দিষ্ট ভাবে কিছু জানা যায়নি। তবে বিধানসভার স্পিকার পদের জন্য ইতিমধ্যেই মনোনয়ন জমা দিয়েছেন কংগ্রেসের নানা পাটোলে। তবে একটি সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, দফতর বন্টন নিয়ে ইতিমধ্যেই কথা হয়ে গিয়েছে তিন দলের মধ্যে। স্বরাষ্ট্র, অর্থ, পরিবেশ এবং বন দফতর পেতে পারে এনসিপি। রাজস্ব, পূর্ত এবং শুল্ক দফতর কংগ্রেসের ঝুলিতে যেতে পারে। নগরোন্নয়ন, গৃহ নির্মাণ, সেচ যেতে পারে শিবসেনার কাছে। শিক্ষা, শিল্প প্রক্ষৃতি নিয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

• উদ্ধব ঠাকরের বিরুদ্ধে একটাও ভোট পড়েনি।

• আস্থাভোটের আগেই বিধানসভা থেকে ওয়াকআউট করে বিজেপি। তাদের ১০৫ জন বিধায়কই আস্থাভোটের সময় অনুপস্থিত ছিলেন। 

• ভোটদান থেকে বিরত থাকলেন এমআইএম-এর ২ জন, সিপিআইয়ের ১ জন এবং উদ্ধবের খুড়তুতো ভাই রাজ ঠাকরের মহারাষ্ট্র নব নির্মাণ সেনার (এমএনএস) ১ জন বিধায়ক।

• ১৬৯ ভোটে শক্তি পরীক্ষায় জয়ী উদ্ধব ঠাকরে।

• আস্থাভোটে জিতে গেলেন উদ্ধব ঠাকরে।

• বিজেপির অনুপস্থিতিতেই আস্থাভোট শুরু বিধানসভায়।

• বিধানসভা থেকে ওয়াক আউট করল বিজেপি।

• বিধানসভায় দেবেন্দ্র ফডণবীস। স্পিকার নির্বাচিত না করে আস্থাভোট করার বিরুদ্ধে সরব হলেন তিনি।

• বিধানভবন পৌঁছলেন উদ্ধব ঠাকরে।

• বিধানভবন পৌঁছলেন সুপ্রিয়া সুলে।

• হুইপ জারি করল কংগ্রেসও।

• দলের বিধায়কদের আস্থাভোটে অপস্থিত থাকতে হুণপ জারি শিবসেনার।

• এনসিপি থেকেই কেউ উপ মুখ্যমন্ত্রী হবেন: প্রফুল্ল পটেল।

• কংগ্রেসের নানা পাটোলে বিধানসভার স্পিকার পদে মনোনয়ন জমা দিলেন।

•বিধানসভার স্পিকার পদে মনোনয়ন জমা দিলেন বিজেপির কিসান কাঠোরে।

•প্রোটেম স্কিপার বদলের বিরুদ্ধে সরব বিজেপি। রাজ্যপালের কাছে বিষয়টি তুলবে বলে জানাল তারা।

•এনসিপি নেতা জয়ন্ত পাটিল, অজিত পওয়ার, প্রফুল্ল পটেল বিধানসভায় পৌঁছলেন।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন