• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

চলন্ত বাস থেকে টুইট, উত্ত্যক্তকারীদের হাত থেকে মহিলাকে উদ্ধার পুলিশের

UP Arrest
পুলিশের হেফাজতে অভিযুক্তরা। ছবি: অযোধ্যা পুলিশের টুইটার হ্যান্ডল থেকে নেওয়া।

এক টুইটেই কেল্লা ফতে, উত্তরপ্রদেশের এক মহিলাকে বাসের মধ্যে উত্তক্ত করার অভিযোগে গ্রেফতার দুই যুবক। চলন্ত বাস থেকে ওই মহিলা পুলিশের কাছে সাহায্য চেয়ে টুইট করেন। আর সঙ্গে সঙ্গে তত্পর হয় পুলিশ। অভিযোগকারীদের হাত থেকে উদ্ধার করা হয় মহিলাকে। মহিলার এমন সাহস ও বুদ্ধিমত্তার প্রশংসা করেছে উত্ততপ্রদেশ পুলিশ ও নেটাগরিকরা। সেই সঙ্গে পুলিশের এমন তত্পরজন্য ওই মহিলা ও টুইটার ইউজাররা ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

সোমবার উত্তরপ্রদেশ স্টেট রোড ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশনের বাসে চড়েন এক মহিলা। অবধ ডিপো থেকে কাউন্টার কারেন্ট টিকিট কেটে, কাইজারবাগ থেকে বাস্তি যাওয়ার বাসে ওঠেন। টিকিট কাটেন ১২টা ৩১ নাগাদ। বাসে এক নম্বর সিটটি পান তিনি। বাসে ওঠার কিছুক্ষণ পর থেকেই আশপাশের কয়েকজন যুবক তাঁকে উত্ত্যক্ত করতে থাকেন বলে অভিযোগ। কিছুতেই তাঁদের নিরস্ত করা সম্ভব হয়নি মহিলার পক্ষে।

উপায় না দেখে শেষে মহিলা মোবাইলে টিকিটের ছবি তুলে, উত্তরপ্রদেশ পুলিশের টুইটার হ্যান্ডলকে অ্যাড্রেস করে পোস্ট করেন। লেখেন, “আমি ইউপিএসআর বাসে যাচ্ছি, কিছু লোক আমার পাশে বসে আমাকে নিগ্রহ করছেন, এমনকি আমার ফোন নম্বর চাইছেন।” টুইটটি করা হয় ওই মহিলার ‘কস্টিক কন্যা’ নামে ইউজার আইডি থেকে। এই টুইট হয় দুপুর ২টো ২১ মিনিটে। একই সঙ্গে একটি ১১ সেকেন্ডের ভিডিয়ো পোস্ট করেন তিনি। সেখানে দেখা যায় দু’টি যুবককে। তবে ভিডিয়োতে ওই যুবকদের চুপচাপ বসে থাকতেই দেখা গিয়েছে। হয়তো তাঁরা সেই মুহূর্তে ভিডিয়ো হচ্ছে বুঝতে পেরে কোনও রকম অস্বাভাবিক আচরণ করেননি।

আরও পড়ুন:

দেখুন সেই পোস্ট:

 

মহিলার টুইট চোখে পড়ার পরই তত্পর হয় উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। উত্তরপ্রদেশ পুলিশের ভেরিফায়েড টুইটার হ্যান্ডল থেকে ১৫ মিনিটের মধ্যেই রিপ্লাই আসে। বাসের লোকেশন জানতে চাওয়া হয়। আপৎকালীন পরিষেবা নম্বরের টুইটার হ্যান্ডল থেকেও টুইট করা হয়, আশ্বস্ত করা হয় মহিলাকে, দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুন:

দেখুন সেই পোস্ট:

 

 

 

বাসের লোকেশন জানার পরই বাসটিকে আটকে অভিযুক্ত দুই যুবককে নামিয়ে ভ্যানে তুলে নিয়ে যায় পুলিশ। পরে এক মহিলা পুলিশ আধিকারিক তাঁর সঙ্গে দেখা করেন, তিনি ঠিক আছেন কিনা, জেনে যান। সে কথাও জানিয়েছেন ওই মহিলা টুইট করে। অভিযোগকারী ওই মহিলার নাম পরিচয় বা ছবি প্রকাশ করা হয়নি।

দেখুন সেই পোস্ট:

 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন