সাক্ষাত্ মৃত্যুর মুখ থেকে বেঁচে ফিরলেন এক ব্যক্তি। কেরলের তিরুঅনন্তপুরমে এক ব্যক্তির গলায় পেঁচিয়ে ধরেছিল একটি ১০ ফুটের পাইথন। শ্বাস প্রায় বন্ধ হয়ে যাচ্ছিল। সেই অবস্থা থেকে কোনও রকমে তাঁর প্রাণ বাঁচে। মানুষ-সাপের ওই লড়াইয়ের ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড হতেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল সকালকাজে বেরিয়েছিলেন ভুবনচন্দ্রন নায়ার (৫৮) ও আরও কয়েকজন। তিরুঅনন্তপুরম থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে নিউয়ার বাঁধের কাছে একটি কলেজ রয়েছে। কলেজ সংলগ্ন এলাকা পরিষ্কারের দায়িত্ব ছিল তাঁদের উপর। সেখানে পৌঁছে কাজ শুরুর পর হঠাত্ই, গাছের উপর থেকে একটি সাপ সোজা এসে পড়ে নায়ারের ঘাড়ে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই পেঁচিয়ে যায় তাঁর গলায়। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে সেই প্যাঁচ মরণ ফাঁদে পরিণত হয়। চেপে বসতে থাকে পাইথনটি।

নায়ারের ভাগ্য ভাল তখন আশেপাশেই তাঁর সঙ্গীসাথীরা ছিলেন। তাঁরা দেখতে পেয়েই ছুটে আসেন। দুই ব্যক্তি  সাপটির মুখ ও লেজ ধরে টানতে শুরু করেন। প্রথমে কিছুতেই নায়ারের গলা থেকে তাকে ছাড়ানো যাচ্ছিল না। নায়ারকে দেখেই বোঝা যাচ্ছিল তাঁর শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে। সাহায্যকারী দুই ব্যক্তি এবার সাপের লেজ ও মুখটিকে চেপে ধরেপ্যাঁচ খোলার চেষ্টা করেন। এতে কাজ হয়। এবার কোনও রকমে নায়ারের গলা থেকে সাপটিকে ছাড়ানো সম্ভব হয়।

আরও পড়ুন : বাচ্চা মেয়েটিকে চুমু খাচ্ছে বিশাল পাইথন, এক কোটির উপর ভিউ পেল ভিডিয়োটি

আরও পড়ুন : পাঁচ স্ত্রীর প্রয়োজন মেটাতে মধ্যপ্রদেশে ৫০ মহিলাকে প্রতারণা

সাপটিকে ছাড়িয়ে একটি বস্তাবন্দি করা হয়। পরে সেটি বন দফতরের হাতে তুলে দেওয়া হয়। সাপের হাত থেকে নায়ারকে ছাড়ানোর ঘটনাটি ক্যামেরাবন্দি হয়। বুধবার সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর টুইটার হ্যান্ডলে সেটি আপলোড হওয়ার পর ভাইরাল হতে সময় নেয়নি।আপলোড হওয়ার প্রথম ১৪ ঘণ্টাতেই প্রায় ১৫ হাজার বার দেখা হয়েছে ভিডিয়োটি।

দেখুন সেই ভিডিয়ো: