• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘শিক্ষা’ দিতে হাতুড়ি দিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের মোবাইল ভাঙছেন অধ্যক্ষ!

TTTT
ছাত্র-ছাত্রীদের মোবাইল ভাঙছেন অধ্যক্ষ। ছবি ভিডিয়ো থেকে নেওয়া।

Advertisement

মোবাইল বর্তমান জীবনের এক অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ। কলেজে মোবাইল নিয়ে যায় না এ রকম ছাত্র-ছাত্রীদের সংখ্যা হাতে গোনা। তবে এমন অনেক কলেজও আছে, যারা কলেজ চত্বরে ছাত্র-ছাত্রীদের মোবাইল ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। যেমন সম্প্রতি করেছেন কর্নাটকের সিরসি এলাকার একটি বেসরকারি কলেজের অধ্যক্ষ।

এমইএস চৈতন্য পিইউ কলেজের অধ্যক্ষ আরএম ভট্ট ছাত্র-ছাত্রীদের স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছিলেন মোবাইল নিয়ে কলেজে আসা যাবে না। তাঁর এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছিলেন ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবক ও সাধারণ মানুষও। কিন্তু তা সত্ত্বেও কিছু পড়ুয়া লুকিয়ে মোবাইল নিয়ে আসছিলেন ক্লাসে। আর তা ধরতে ওই কলেজের অধ্যক্ষ যে পদক্ষেপ করেছেন তার ভিডিয়ো ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে। তার পরই বিষয়টি নিয়ে শুরু হয়েছে আলোচনা।

গত বৃহস্পতিবার অধ্যক্ষ  কলেজের প্রথম ও দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রদের নিয়ে অডিটোরিয়ামে ক্লাসের আয়োজন করেন। সেখানে ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে তল্লাশি করে উদ্ধার হয় ১৭টি মোবাইল ফোন। নিষেধ সত্ত্বেও মোবাইল আনায় ছাত্র-ছাত্রীদের ‘সবক’ শেখানোর সিদ্ধান্ত নেন ওই অধ্যক্ষ। সে জন্য অডিটোরিয়ামে ছাত্র-ছাত্রীদের সামনেই হাতুড়ি দিয়ে ভাঙতে শুরু করেন মোবাইল। সেই ঘটনার ভিডিয়ো নিয়েই এখন আলোচনা চলছে নেটদুনিয়া।

মোবাইল ভেঙে ছাত্র-ছাত্রীদের ‘শিক্ষা’ দিচ্ছেন অধ্যক্ষ। ছবি ভিডিয়ো থেকে নেওয়া। 

তবে আটক করা মোবাইলের সব ক’টি ভাঙেননি ওই অধ্যক্ষ। ‘শিক্ষা’ দিতে ভেঙেছেন দু’টি। বাকি ফোনগুলি রাখা হয়েছে কলেজের লকারে। 

আরও পড়ুন: পোশাক ফতোয়া! হাঁটুর নীচ অবধি কুর্তি না পরলে কলেজে প্রবেশে বাধা

আরও পড়ুন: একটি সাপ বনাম চারটি বিড়াল! এই লড়াইয়ের ভিডিয়ো এখন ভাইরাল

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন