সফল উৎক্ষেপণ হল ভারতের ষষ্ঠ নেভিগেশান উপগ্রহ ‘আইআরএনএসএস-ওয়ান এফে’র। এর ফলে জিপিএস প্রযুক্তিতে আরও স্বনির্ভর হয়ে উঠবে ভারত। কমবে আমেরিকার ওপর নির্ভরতা।

বৃহস্পতিবার বিকেলে শ্রীহরিকোটায়, সতীশ ধবন মহাকাশ স্টেশন থেকে পিএসএলভি-সি-৩২ রকেটের পিঠে চাপিয়ে মহাকাশে পাঠানো হল প্রায় হাজার দেড়েক কেজি ওজনের সাড়ে ৪৪ মিটার লম্বা ইসরোর যষ্ঠ নেভিগেশান উপগ্রহ ‘আইআরএনএসএস-ওয়ান এফ’কে। এই উপগ্রহটির আয়ু ১২ বছর।

আরও পড়ুন- ১৬টা গ্রহ ছিল সৌরমণ্ডলে! তারা সব গেলটা কোথায়?

জিপিএস প্রযুক্তির যোগাযোগ ব্যবস্থাকে আরও উন্নত করে তুলতেই এই ষষ্ঠ নেভিগেশান উপগ্রহটিকে কক্ষপথে পাঠাল ইসরো। এর আগে ইসরো মহাকাশে পাঠিয়েছে এমন আরও পাঁচটি নেভিগেশান উপগ্রহ। এই পর্যায়ের মোট সাতটি উপগ্রহ মহাকাশে পাঠানোর কথা ইসরোর।

দেশের শীর্ষ মহাকাশ গবেষণা সূত্রের খবর, এই মার্চের শেষাশেষি সপ্তম নেভিগেশান উপগ্রহটিকেও কক্ষপথে পাঠানো হবে। ইসরোর এই ষষ্ঠ নেভিগেশান উপগ্রহটিতে রয়েছে রুবিডিয়ামে বানানো একটি ‘অ্যাটমিক ক্লক’ বা পরমাণু ঘড়িও। এই উপগ্রহটির পাঠানো তথ্য স্মার্ট ফোনেও দেখা যাবে। সীমান্তের যে কোনও দিকে দেড় হাজার কিলোমিটারেরও বেশি এলাকায় এই উপগ্রহের নেভিগেশান ব্যবস্থা কার্যকরী থাকবে।