Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

কেস জমিয়ে দিন কেডসেই

স্ট্রিট-স্মার্ট দেখাতে বেছে নিন বিভিন্ন রং‌, প্রিন্ট ও স্টাইলের বাহারি কেডস স্ট্রিট-স্মার্ট দেখাতে বেছে নিন বিভিন্ন রং‌, প্রিন্ট ও স্টাইলের

অন্তরা মজুমদার
০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ০০:০০

পুরনো দিনের ফ্যাশনের রীতিনীতি নিয়ে এখন সব অল্পবয়সিই কম-বেশি উৎসুক। ইনস্টাগ্রামের ফ্যাশন পেজগুলো একবার দেখলেই সেটা দিব্যি বোঝা যায়। আর সেখানেই চোখে পড়ছে, ক্লাসিক স্নিকার্স বা কেডস পরার চল (স্নিকার্সের জন্ম সেই কেডস থেকেই)। তবে শুধু অল্পবয়সি নয়। যে কোনও বয়সিরাই পরতে পারেন নানা রকমের কেডস। ইদানীং সেলিব্রিটি থেকে সোশ্যালাইট— সকলেই মেতেছেন কেডসের মজায়। আসুন জেনে নিই কীভাবে স্টাইল করলে কে়ডসে কেতবহুল হতে পারবেন আপনিও।

শার্ট ড্রেসে স্মার্ট

Advertisement

শীত কমে আসছে। দিনের বেলায় ঠান্ডা ভাব প্রায় থাকছে না বললেই চলে। এখন কিন্তু ফুরফুরে বসন্ত দিনের পোশাকগুলো বের করে ফেলতে পারেন। বহু দিন না-পরা ডেনিম শার্ট ড্রেসটা আলমারিতে তোলা রয়েছে? বের করে নিন। সঙ্গে পরুন উজ্জ্বল কমলা বা সবুজ পোলকা ডট কেডস। স্ট্রাইপড সাদা-কালো সামার ড্রেসের সঙ্গেও পরতে পারেন দিনের বেলা। মানানসই হ্যাট নিতে পারেন চাইলে, আরও ভাল দেখাবে। বসন্তকে আহ্বান জানান এ ভাবেই!

সাদা শার্ট, নীল ডেনিম, নিয়ন কেডস

সাদা বাটন ডাউন শার্টের সঙ্গে ঘন নীল ডেনিমের মতো ক্লাসিক পোশাক আর হয় না। কিন্তু এই সাজে যদি রকমফের আনতে চান, নিয়ন গোলাপি, হলুদ বা ম্যান্ডারিন রঙের কেডস পরে নিতে পারেন। এ ভাবে অফিস থেকে বোর্ড মিটিং সেরে লেডিজ নাইট আউটেও চলে যেতে পারবেন দিব্যি। সঙ্গে চোখে পড়ার মতো রঙের ম্যাট লিপস্টিকটাও কিন্তু দরকার! এই সাজ সবচেয়ে খোলতাই হয় কেডসের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে একটা ক্লাচ ব্যাগ নিলে। হ্যান্ডব্যাগও চলতে পারে তার বদলে।



গরমেও বিন্দাস কেডস

এখন তো নরম কাপড়ের কেডস পাওয়া যায় সর্বত্র। নিউ মার্কেটের অলিগলি, যে কোনও শপিং মল কিংবা ব্র্যান্ডেড দোকান— মিষ্টি দেখতে রঙিন ফ্ল্যাট স্নিকার্স বা কে়ডস পেয়ে যাবেন সব জায়গাতেই। আরামদায়ক ফ্যাব্রিকের উপর দারুণ সব প্রিন্টের কেডস পাওয়া যায়, তার মধ্য থেকে পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে দু’-একটা কিনে রাখতে পারেন। অজরখ, ইক্কত, অ্যাজটেক বা গ্রাফিক প্রিন্ট কিংবা স্ট্রাইপস— সবই ট্রেন্ডি। আর এগুলো গরমেও দিব্যি পরে ফেলা যায়। গরমের দিনে রংবেরঙের কে়ডস, সুতির পোশাক আর স্টাইলিশ সানগ্লাস বেশ দেখায়!

লাল সংকেত

টুকটুকে লাল রঙের কে়ডস পরে নিলে কিন্তু নিউট্রাল জামাকাপড়েও বেশ একটা চমক আসবে। চেষ্টা করুন প্যাস্টেল শেডের গোলাপি, হলুদ, নীল পোশাকের সঙ্গে উজ্জ্বল লাল রঙের কেডস পরতে। ছবিতে টেলর সুইফ্ট যেমন করে সেজেছেন, সেটা লালরঙা কেডস পরার সেরা উদাহরণ হতে পারে! সুন্দর মিন্ট সবুজ শার্ট আর ডেনিম শর্টসের সঙ্গে লাল কে়ডস পরেছেন টেলর। সিগনেচার লাল ঠোঁটও বাদ যায়নি সাজ থেকে। যদি চান, উল্টোটাও করতে পারেন। উজ্জ্বল রঙের পোশাক পরলেন, কিন্তু সঙ্গে সাদা-কালো নকশার কেডস পরলেন একটা কনট্রাস্ট রাখতে।



এক রঙেই একশো

বিভিন্ন রঙের মধ্যে ঘোরাফেরা করতে না চাইলে পরতে পারেন একই রঙের পোশাক ও কে়ডস। সঙ্গের ছবির মতো, নেভি ব্লু রঙের পিটার প্যান কলারের ড্রেসের সঙ্গে পরে নিলেন নেভি ব্লু আর সাদার মিশেলে একজোড়া কেডস। সময় বিশেষে এ রকম ভাবে সাজলে ভিড়ের মধ্যে কিন্তু চোখে পড়বেন আপনিই। নুড লিপস্টিক, বড় গ্লাসের এভিয়েটর্স আর হাতে বা কানে একটা স্টেটমেন্ট পিস পরে ফেলুন। মুভি ডেটের জন্য তৈরি আপনি। আর একটু যদি বেশি নজর কাড়তে চান, তা হলে একরঙা কোনও শাড়ির সঙ্গে বোল্ড কাট এবং উজ্জ্বল রঙের ব্লাউজ পরুন, সঙ্গে সেই ক্লাসিক সাদা কেডস। কিংবা লিনেন শাড়ি আর ট্রাউজার্সের সঙ্গে কায়দা করে পরে নিন সাদা কেডস। বেশ বোহো-লুক তৈরি হবে তাতে। ছবিতে অভিনেত্রী পার্নো মিত্র যেমন ভাবে সেজেছেন। সাদা কে়ডস বহু দিন ধরেই চলছে। কলেজপড়ুয়া থেকে সেলেব্রিটি, সকলেই পরে পরে জনপ্রিয় করে তুলেছেন সাদা কেডসকে। তারই একটা অন্য রকম সাজ হতে পারে শাড়ি-কে়ডসের যুগলবন্দি।



(বাঁ দিকে)সাদা কেডসের সঙ্গে মিলিয়ে স্টাইল করে শাড়ি পরেছেন পার্নো মিত্র । (ডানদিকে)লাল কে়ডসের সঙ্গে লাল লিপস্টিক ম্যাচ করেছেন টেলর সুইফ্ট

কেডস ঘটিত

•ক্যানভাস কেডস পরিষ্কার রাখাটা কিন্তু জরুরি। বেশি ময়লা হওয়ার আগেই ধুয়ে ফেলুন।

•জুতোর ফিতে দুটো আলাদা করে হাতে কেচে নেবেন। জুতো পরিষ্কার করার ব্রাশ দিয়ে শুকনো ময়লাটা মাঝেসাঝে ঝেড়ে ফেলতে পারেন।

•জুতো বেশি নোংরা হলে এক টেব্‌ল চামচ বেকিং সোডা আর দুই টেব্‌ল চামচ সাদা ভিনিগার দিয়ে একটা পেস্ট বানান। সেটা একটা টুথব্রাশ দিয়ে জুতোর গায়ে ঘষে নিয়ে ঈষদুষ্ণ জলে ধুয়ে ফেলুন।

•তাও যদি ময়লা না যায়, ঈষদুষ্ণ জলে এক থেকে দু’চামচ মাইল্ড ডিটারজেন্ট মিশিয়ে জুতোগুলো ধুয়ে ফেলুন। টুথব্রাশ দিয়ে ময়লা পরিষ্কার করে নেবেন।

•সাদা কে়ডস যদি খুব পুরনো হয়ে যায় বা অনেক দিন পরার পর একঘেয়ে লাগে, নিজের মতো ফ্যাব্রিক রঙের মোটিফ বানিয়ে নিতে পারেন। অনেকে বিভিন্ন
রঙের গ্লিটারও ব্যবহার করেন কেডস সাজাতে। তা হলে রং-তুলি নিয়ে বসে পড়ুন!

•আর একটু বোল্ড হতে চাইলে মেটাল স্টাড কিনে লাগাতে পারেন। ক্রাফ্ট স্টোরে পেয়ে যাবেন। সঙ্গে চাই সুপারগ্লু। জ্যামিতিক নকশায় সাজিয়ে ফেলুন কেডস।

•আলাদা কাপড় কিনে ফ্যাব্রিক আর্টও করতে পারেন কেডসে। কারিগরদের কাছে নিয়ে গেলে কিন্তু কাজটা সুন্দর করে দিতে পারবেন তাঁরা।

আরও পড়ুন

Advertisement