Advertisement
২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Presents
Personal Finance 2023

ভবিষ্যনিধি থেকে টাকা তুলবেন? দফতরকে নিয়ে নিন আপনার হাতের মুঠোয়

কিন্তু যদি আপনার কর্মস্থলের পরিবর্তন হয় সে ক্ষেত্রে কী করণীয়? এ ক্ষেত্রে ইউএএন নম্বর তো একই থাকে কিন্তু নতুন কর্মস্থলের সঙ্গে তা রেজিস্টার করা আবশ্যক। তা না করা হলে টাকা তোলার ক্ষেত্রে সমস্যা দেখা দিতে পারে।

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

নিজস্ব সংবাদদাতা
শেষ আপডেট: ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ১৩:৩২
Share: Save:

কর্মচারী ভবিষ্যনিধি প্রকল্প বা ইপিএফ আমাদের অনেকের কাছেই শেষ জীবনের অন্যতম পাথেয়। আর অনেকের কাছেই অবসরের পরে বা বাড়ি বা অসুস্থতার মতো নির্দিষ্ট কারণে টাকা তুলতে জুতোর শুকতলা খুলে যেত। নানা প্রয়োজনীয় কাগজ জোগাড় করা ছিল প্রথম হ্যাঁপা।

তার পরে অনেকের কাছেই যে সংস্থায় তিনি কাজ করতেন সেই সংস্থার কাছ থেকে সই সাবুদের বাইরে খুব বেশি সহযোগিতা মিলত না বলে নিজেকেই দৌড়তে হত। কোন বিভাগে যেতে হবে, কোন ফর্ম ভর্তি করতে হবে এই সব জানাও খুব সহজ ছিল না। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই এই কাজটা আরও কঠিন হয়ে যেত প্রক্রিয়াটির সঙ্গে পরিচয় না থাকায়। তাই খুঁজতে হত দাদা। অথবা কার একটু চেনাশোনা আছে কর্মচারী ভবিষ্যনিধি দফতরে। এখন কিন্তু এই ঝক্কি কমে গিয়ে গোটা পদ্ধতিটাই এক কম্পিউটার দূরে। জেনে নিন কী করতে হবে।

ইপিএফও পোর্টালে টাকা তোলার পদ্ধতি:

১। ইউএএন অর্থাৎ ইউনিভার্সাল অ্যাকাউন্ট নম্বর ও পাসওয়ার্ড দিয়ে সংশ্লিষ্ট ইপিএফও পোর্টালে লগ ইন করতে হবে।

২। এর পর অনলাইন সার্ভিস অপশনে গিয়ে ‘ক্লেম’ –এ ক্লিক করুন। যে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট আপনি দফতরে জমা দিয়েছেন তার শেষ চারটি সংখ্যা দিয়ে তার পর ‘ভেরিফাই’ –তে ক্লিক করতে হবে।

৩। ‘প্রসিড ফর অনলাইন ক্লেম’ এ ড্রপ ডাউন মেনুতে গিয়ে ‘পিএফ অ্যাডভান্স (ফর্ম ৩১)’ –এ ক্লিক করতেহবে।

৪। এর পর আবার ড্রপ ডাউন মেনুতে ‘পারপাস’ মেনুতে ক্লিক করে যে পরিমাণ টাকা তুলবেন সেই টাকার অঙ্ক লিখতে হবে।

৫। পরের ধাপে চেকের স্ক্যান কপি এবং ঠিকানা দিতে হবে।

৬। এর পর ‘গেট আধার ওটিপি’ –তে ক্লিক করুন। এর পর মোবাইলে ওটিপি এলে সেটি দিলেই টাকা তোলার আবেদন সম্পূর্ণ হবে। ব্যস আপনার কাজ শেষ। এরপর ভবিষ্যনিধি দফতর আপনার আবেদন মঞ্জুর করলেই যে টাকা ঋণ বাবদ চেয়েছেন তা আপনার অ্যাকাউন্টে ঢুকে যাবে।

কিন্তু যদি আপনার কর্মস্থলের পরিবর্তন হয় সে ক্ষেত্রে কী করণীয়? এ ক্ষেত্রে ইউএএন নম্বর তো একই থাকে কিন্তু নতুন কর্মস্থলের সঙ্গে তা রেজিস্টার করা আবশ্যক। তা না করা হলে টাকা তোলার ক্ষেত্রে সমস্যা দেখা দিতে পারে। এ তো গেল টাকা তোলার বিষয়। এখন প্রশ্ন হল ইপিএফ ট্রান্সফার করবেন কী ভাবে? একেবারেই সহজ পদ্ধতি।

১। ইপিএফও পোর্টালে লগ ইন করে অনলাইন সার্ভিস মেনুতে যান।

২। ‘ওয়ান মেম্বার – ওয়ান ইপিএফ অ্যাকাউন্ট (ট্রান্সফার রিকোয়েস্ট)’ –এ ক্লিক করতে হবে।

৩। পরবর্তী ধাপে ‘পার্সোনাল ইনফরমেশন’ ও ‘পিএফ অ্যাকাউন্ট’ ভেরিফাই করতে হবে।

৪। ‘গেট ডিটেলস’ অপশনে ক্লিক করে ওটিপি দিতে হবে।

৫। সাবমিট করুন। এর পর এমপ্লয়ার তা ভেরিফাই করলে পুরনো ব্যালেন্স নতুনে ট্রান্সফার হয়ে যাবে। ই-পাসবুকের মাধ্যমে ব্যালেন্স দেখতে পারবেন।

বিশেষজ্ঞদের কাছে সমাধান খুঁজতে সঞ্চয় নিয়ে আমাদের প্রশ্ন পাঠান — takatalk2023@abpdigital.in এই ঠিকানায় বা হোয়াটস অ্যাপ করুন এই নম্বরে — ৮৫৮৩৮৫৮৫৫২আপনার আয়, খরচ এবং সঞ্চয় জানাতে ভুলবেন না। পরিচয় গোপন রাখতে চাইলে অবশ্যই জানান।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE