Advertisement
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Presents
Personal Finance 2023

ঝুঁকি এড়িয়ে বিনিয়োগ করলে সরকারি ঋণপত্র কেনার আগে দেখে নিন আপনার লাভ

আরও একটি বন্ড যার কুপনের হার ৭.৪১ শতাংশ সেটি ম্যাচিওর করবে ২০৩৬ সালের ডিসেম্বর মাসে। সেটির এখন বাজার দর চলছে ১০১ টাকা ৭১ পয়সা। আপনার রিটার্ন দাঁড়াচ্ছে ৭.৪২ শতাংশ বিনয়োগের অঙ্কের উপর। 

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

নিজস্ব সংবাদদাতা
শেষ আপডেট: ১৬ মার্চ ২০২৩ ১২:৫৪
Share: Save:

আমরা সরকারি ঋণপত্র নিয়ে এর আগে আলোচনা করেছি। তার ঝুঁকি এবং কী ভাবে বাজার থেক তা কিনতে পারেন তা নিয়ে। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীরাও তাঁদের সাধ্য মতো সরকারি ঋণপত্র কী ভাবে কিনতে পারেন তাও আমরা আলোচনা করেছি। এই বার আসুন দেখে নেওয়া যাক এই মুহূর্তে বাজারে কী দামে এবং কোন কুপন রেটে সরকারি ঋণপত্র আপনি কিনতে পারেন।

২০৩৬ সালেই মে মাসে ম্যাচিওর করছে ৭.৫৪ শতাংশ কুপন রেটে যে বন্ডটি তার এখন বাজার দর ১০৩ টাকা ৩৭ পয়সা। আপনার কাছে তার রিটার্ন দাঁড়াবে ৭.৪২ শতাংশ। কারণ বন্ডটি আপনি বাজার থেকে কিনছেন। এই বন্ডটি দীর্ঘমেয়াদী। তাই আপনি মেয়াদের কথাটিও মাথায় রাখবেন। তবে এখন বাজারে বন্ড কেনা-বেচা সহজ হয়ে গিয়েছে। তাই আগে এই বাজারে যেমন সাধারণ বিনিয়োগকারীর প্রবেশ কঠিন ছিল এখন আর তা নেই।

আরও একটি বন্ড যার কুপনের হার ৭.৪১ শতাংশ সেটি ম্যাচিওর করবে ২০৩৬ সালের ডিসেম্বর মাসে। সেটির এখন বাজার দর চলছে ১০১ টাকা ৭১ পয়সা। আপনার রিটার্ন দাঁড়াচ্ছে ৭.৪২ শতাংশ বিনয়োগের অঙ্কের উপর।

পাওয়া যাচ্ছে ২০৫২ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ম্যাচিওর করবে একটি বন্ড যার কুপন হল ৭.৩৬ শতাংশ। তবে এই বন্ডটি পাওয়া যাচ্ছে ৯৯ টাকা ৫০ পয়সায়। আর সেই কারণেই এই দামে কিনলে বিনিয়োগের উপর আপনার রিটার্ন দাঁড়াবে ৭.৪১ শতাংশ যা কুপন রেটের থেকে বেশি।

এ ছাড়াও আরও কয়েকটি সরকারি বন্ড এখন বাজারে পাওয়া যাচ্ছে যার থেকে আপনার লাভ খতিয়ে দেখতে পারেন।

বিশেষজ্ঞদের কাছে সমাধান খুঁজতে সঞ্চয় নিয়ে আমাদের প্রশ্ন পাঠান — takatalk2023@abpdigital.in এই ঠিকানায় বা হোয়াটস অ্যাপ করুন এই নম্বরে — ৮৫৮৩৮৫৮৫৫২আপনার আয়, খরচ এবং সঞ্চয় জানাতে ভুলবেন না। পরিচয় গোপন রাখতে চাইলে অবশ্যই জানান।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE