সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

চিত্র সংবাদ

ভারতে নিষিদ্ধ সিনেমাগুলি

শেয়ার করুন
১৭ 14
নীল আকাশের নীচে (১৯৫৯) এটি প্রথম ছবি যা ভারত সরকার ব্যান্ড করে দেয়। মৃণাল সেন পরিচালিত এই ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় ছিলেন কালী বন্দ্যোপাধ্যায়, মঞ্জুলা দে এবং বিকাশ রায়। ১৯৫৯ সাল থেকে দু’বছরের জন্য ছবিটির উপরে নিষেধাজ্ঞা ছিল।
১৭ ১৫
গরম হাওয়া (১৯৭৩) ভারত বিভাজনের সময়কার ঘটনা নিয়ে ছবিটি তৈরি হয়েছিল। এই ছবিটির উপরে ৮ মাসের জন্য নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়।
১৭ ১৩
আঁধি (১৯৭৫) প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গাঁধীর জীবন কাহিনী অবলম্বনে এই ছবিটি তৈরি হয়েছিল বলে সমালোচনা শুরু হয়। যার ফলে ১৯৭৫ সালে মুক্তির কয়েক মাসের মধ্যেই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।
১৭ ১৬
কিসসা কুর্সি কা (১৯৭৭) রাজনৈতিক বিতর্কের এই ছবিটির মুক্তিতে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়। পরে বিষয়বস্তুতে বদল আনার পর তা মুক্তি পায়।
১৭ ১
ব্যান্ডিট কুইন (১৯৯৪) ফুলনদেবীর জীবন নিয়ে এই ছবি। ছবির বিষয়বস্তুর সত্যতা নিয়ে ফুলন দেবী নিজে প্রশ্ন তুলেছিলেন। তা ছাড়াও ফিল্মে অশালীন ভাষা এবং দৃশ্যের জন্য ছবি নিষেধ পাওয়ার আগেই সেন্সর বোর্ড তাতে নিষেধাজ্ঞা দেয়।
১৭ ৩
কামসূত্র: এ টেল অফ লাভ (১৯৯৬) মীরা নায়ারের এই ছবিটি ভারতে মুক্তির উপরেও নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল সেন্সর বোর্ড।
১৭ ২
ফায়ার (১৯৯৬) ছবিটির মুখ্য চরিত্রে ছিলেন শাবানা আজমি এবং নন্দিতা দাস। এই দুই জা-র সমকামী সম্পর্ক নিয়েই এই ছবি। এর উপরেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।
১৭ ১২
ইউআরএফ প্রফেসর (২০০০) ছবির মুখ্য ভূমিকায় ছিলেন শরমন জোশি এবং অন্তরা মালি। এই কমেডি ফিল্মটিও অশালীন দৃশ্যের জন্য ভারতে মুক্তিতে নিষেধাজ্ঞা দেয় সেন্সর বোর্ড।
১৭ ৮
পাঁচ (২০০৩) ১৯৯৭ সালের জোশি-অভঙ্করের খুনের ঘটনা অবলম্বনে এই ছবি। ছবিতে অত্যধিক অশালীন ভাষা এবং দৃশ্যের থাকায় অনুরাগ কাশ্যপের এই ছবিটিতে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়।
১০১৭ ৪
ব্ল্যাক ফ্রাইডে (২০০৪) অনুরাগ কাশ্যপের এই ছবির বিষয়বস্তু ছিল মুম্বই বিস্ফোরণ। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে এর মুক্তি স্থগিত রাখা হয়েছিল।
১১১৭ ৯
পারজানিয়া (২০০৫) ২০০২ সালের গুজরাট দাঙ্গার সময় পার্সি যুবক আজহার মোদীর নিখোঁজ হওয়ার ঘটনা নিয়ে তৈরি হয়েছিল এই ফিল্ম। মুখ্য ভূমিকায় ছিলেন নাসিরুদ্দিন শাহ। বিতর্কিত বিষয়বস্তুর জন্য যা ভারতে সম্প্রচারে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়।
১২১৭ 10
সিনস্‌ (২০০৫) কেরলের এক খ্রীষ্ট্রীয় ধর্মাবলম্বীর প্রেম কাহিনী অবলম্বনে তৈরি। যার মুক্তিতে ক্যাথোলিক কমিউনিটি বিরোধিতা করে। পরে কোর্টের নির্দেশে ২০০৫ সালে তা মুক্তি পায়।
১৩১৭ 5
আমু (২০০৫) ১৯৮৪ সালের অ্যান্টি-শিখ দাঙ্গা ছিল এই ছবির বিষয়বস্তু। মুখ্য ভূমিকায় ছিলেন কঙ্কনা সেন। বিতর্কিত বিষয়বস্তুর জন্য রাজনৈতিক দলগুলি ছবির বিরোধিতা করে। দূরদর্শনে এই ছবির সম্প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।
১৪১৭ 11
ফিরাক (২০০৮) এটিও গুজরাট দাঙ্গার ঘটনা অবলম্বনে তৈরি। এই ফিল্ম ভারতে সম্প্রচার হলে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট হওয়ার আশঙ্কায় তা সম্প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।
১৫১৭ 18
গান্ডু (২০১০) কোয়াশিক মুখোপাধ্যায়ের এই ছবিটিও প্রাপ্তবয়স্ক বিষয়বস্তুর জন্য নিষেধ করা হয়েছিল। ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় ছিলেন অনুব্রত বসু। তাঁর হতাশা নিয়েই এই ছবি।
১৬১৭ 17
ছত্রাক (২০১১) প্রাপ্তবয়স্ক বিষয়বস্তুর জন্য ২০১১ সালের এই ছবিটির সিনেমা হলে মুক্তিতে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়।
১৭১৭ 7
আনফ্রিডম (২০১৫) সমকামী রিলেশন এবং ইসলামিস সন্ত্রাসবাদ হল এই ছবির বিষয়বস্তু। ছবি মুক্তি পেলে সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষ গড়ে ওঠার আশঙ্কায় সেন্সর বোর্ড তার উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল।

Advertisement

Advertisement

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
বাছাই খবর
আরও পড়ুন