সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিনোদন

বলিউডে কোন কোন অভিনেতা কর্ণ জোহরকে এড়িয়ে চলেন জানেন?

শেয়ার করুন
১৪ gal
বলিউডে ‘নেপোটিজম’, দলবাজি নতুন কোনও বিষয় নয়। বহু তারকাই বলিউডের এই ‘ট্রেন্ড’-এর শিকার হয়েছেন। কেউ এর বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন, কেউ আবার চুপ থেকে গিয়েছেন। অনেকের কেরিয়ার যেমন বলিউড গড়েছে, তেমনই বলিউডের অন্দরে এমন কথাও প্রচলিত আছে যে, অনেকের কেরিয়ার শেষও করে দিয়েছে। যার নেপথ্যে রয়েছে এই নেপোটিজম বা স্বজনপোষণ এবং দলবাজি।
১৪ gal
সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে নেপোটিজমের অভিযোগ সবচেয়ে বেশি করে উঠেছে কর্ণ জোহর, সলমন খান-সহ বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, তাঁরা শুধু স্টার কিডদেরই স্পেস দেন। ফ্লপ হলেও পরের ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ পেয়ে যান। যদিও এ নিয়ে দ্বিমত রয়েছে।
১৪ karna
তবে বলিউডে যাঁর বিরুদ্ধে সবচেয়ে বেশি অভিযোগ, তিনি হলেন কর্ণ জোহর (কেজে)। অভিযোগ, অনেকের কেরিয়ার বরবাদ করে দিয়েছেন কেজে। তবে আজ থেকে নয়, অনেক আগে থেকেই কেজের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ উঠছে। কর্ণ জোহরকে যাঁরা নিজেদের ‘শত্রু’ বলে মনে করেন এমন কয়েক জন সেলিব্রিটি সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক। কেন কর্ণর সঙ্গে তাঁদের খাপ খায় না।
১৪ salman
তালিকায় প্রথমেই যে নামটি উঠে আসে তিনি হলেন সলমন খান। সলমনের বিরুদ্ধেও নেপোটিজমের অভিযোগ উঠেছে। কিন্তু সলমন খানও নিজেকে কর্ণ জোহরের শিকার থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে রেখেছেন। কর্ণের পরিচালিত ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’ ছবিতে ক্যামিয়ো অ্যাপিয়ারেন্স ছিল সলমনের। কিন্তু তার পর থেকে কর্ণের সঙ্গে কোনও কাজ করেননি তিনি।
১৪ salman
কিন্তু কেন কর্ণকে এড়িয়ে চলেন সলমন? এর প্রথম কারণ হল, কর্ণের সঙ্গে শাহরুখের ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্ব। বলিউডের অন্দরে প্রচলিত, শাহরুখকেই বেশি পছন্দ করেন কর্ণ। তাঁকে সব কিছুতে প্রোমোট করার চেষ্টাও করেন তিনি। শাহরুখকে নিয়ে বিগ বাজেটের ছবিও বানিয়েছেন কর্ণ।
১৪ salman
তাঁদের দু’জনের এই ঘনিষ্ঠতায় বলিউডে গুঞ্জন চলে, কর্ণ শুধু শাহরুখকে নিয়েই ছবি করতে চান। এই কারণেই সলমন কর্ণকে পছন্দ করেন না। শোনা যায়, ‘শুদ্ধি’ নামে একটি ছবির জন্য সলমনকে নাকি প্রস্তাব দিয়েছিলেন কর্ণ। সলমন না বলেননি ঠিকই, কিন্তু কর্ণকে বেশ কয়েক মাস অপেক্ষা করানোর পর নাকি সলমন জানিয়ে দেন ছবিটি তিনি করতে পারবেন না। পরে ঘনিষ্ঠমহলে সলমন জানিয়েছিলেন, কর্ণর সঙ্গে কখনওই কাজ করতে চান না তিনি।
১৪ salman
এই ঘটনার পরেও কর্ণ এবং সলমন এক সঙ্গে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। তবে প্রয়োজক হিসেবে। কথা ছিল, সলমনের জামাইবাবু আয়ুষকে ছবিতে প্রোমোট করা হবে। কিন্তু বলিউডের গুঞ্জন, কর্ণ নাকি তাতে সায় দেননি। ফলে কর্ণের উপর বেজায় চটে যান সলমন। ফলে দু’জনই একে অপরকে এড়িয়ে চলেন।
১৪ aamir
আমির খানও কখনও কর্ণর সঙ্গে কাজ করেননি। কিন্তু কেন? বলা হয়, তার প্রথম কারণ হল শাহরুখ-কর্ণ ঘনিষ্ঠতা। ‘কফি উইদ করণ’-শো তে আমির খান এক বার এসেছিলেন। তখন কর্ণ তাঁকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, কেন এত দেরি করলেন তাঁর এই শো-তে আসতে।
১৪ aamir
আমির তখন হাসতে হাসতে বলেছিলেন, আমি তো আপনাকে ঠিক করে জানিই না। আপনার সম্পর্কে অনেক কিছুই শুনেছি। তা হয়ত ভুলই শুনেছি। এর পরই কর্ণ আমিরকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, ইন্ডাস্ট্রির এমন কোন জিনিসটা রয়েছে যেটা তিনি পছন্দ করেন না, কিন্তু পছন্দ করার নটাক করতে হয়। তখন আমির জবাব দিয়েছিলেন, আপনার শো। যা কর্ণের মুখের উপর সপাটে চড়ের মতো ছিল।
১০১৪ ajay
কর্ণের না-পসন্দের তালিকায় রয়েছেন অজয় দেবগন এবং কাজলও। কর্ণর সঙ্গে অনেক কাজ করেছেন কাজল। সুপারহিট ছবি কুছ কুছ হোতা হ্যায় থেকে শুরু করে বেশ কয়েকটি ছবি করেছেন কাজল। কিন্তু তার পরেও কাজলের সঙ্গে ‘শত্রুতা’ হল কেন?
১১১৪ ajay
বলিউডে গুঞ্জন, অজয় দেবগনের সঙ্গে কর্ণর কখনও খাপ খায় না। পরস্পরকে এড়িয়ে চলেন তাঁরা। তাই কর্ণের ছবিতে কখনই দেখা যায়নি অজয়কে। এও বলা হয়, কর্ণের ছবির স্ক্রিপ্ট অজয়ের খুব একটা পছন্দ হয় না। কিন্তু এতো গেল অজয়ের কথা। কিন্তু কাজলের সঙ্গে কর্ণর ঝামেলাটা কোথায়?
১২১৪ ajay
বলিউডের অন্দরে কান পাতলে শোনা যায়, কর্ণর সঙ্গে বন্ধুত্ব থাকলেও কাজল ব্যক্তিগত ভাবে তাঁকে পছন্দ করেন না। তাঁদের সম্পর্কে আরও চিড় ধরে যখন জানা যায়, অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল ছবিকে ভাল আর অজয় দেবগন অভিনীত শিবায় ছবিকে খারাপ রেটিং দেওয়ার জন্য কেআরকে-কে টাকা দিয়েছিলেন কর্ণ। এমন দাবি করেছিলেন কমল আর খান নিজেই। পরে অজয় দেবগণ সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ভিডিয়ো ছেড়ে কর্ণর আসল রূপ সামনে আনেন। কাজল সেটা শেয়ার করে মন্তব্য করেন, আই অ্যাম শকড।
১৩১৪ kangana
কর্ণ জোহরকে পছন্দ করেন না এমন তালিকায় রয়েছেন কঙ্গনা রানাউত। কঙ্গনা বরাবরই স্পষ্টবাদী। খুব লড়াই করে বলিউডে নিজেকে দাঁড় করিয়েছেন। বার বার মুখ খুলেছেন বলিউডের নেপোটিজনের বিরুদ্ধে। কর্ণর বিরুদ্ধেও নেপোটিজমের অভিযোগ তুলেছেন কঙ্গনা। অভিযোগ, কঙ্গনা যখন বলিউডে লড়াই চালাচ্ছেন নিজের পরিচয় তৈরি করার জন্য তখন তাঁকে নিজের শো-তে ডাকেননি কর্ণ। কিন্তু কঙ্গনা জাতীয় পুরস্কার পাওয়ার পরই তাঁকে ওই শো-তে ডাকেন তিনি। কী ভাবে কর্ণ নেপোটিজমে সু়ড়সুড়ি দেন, স্টারকিডদের কী ভাবে প্রোমোট করেন তা নিয়ে মুখ খুলেছেন বার বার। সুশান্তের মৃত্যুর পর কর্ণকে ‘মুভি মাফিয়া’ বলেও আক্রমণ করেছেন কঙ্গনা।
১৪১৪ govinda
৯০-এর দশকে বলিউড কাঁপানো অভিনেতাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন গোবিন্দ। অনেক সুপারহিট ছবি করার পরও কর্ণের শো-তে কখনও ডাক পড়েনি গোবিন্দার। যেখানে নতুন নতুন তারকারা ডাক পেয়েছেন সেখানে গোবিন্দ ব্রাত্যই থেকে গিয়েছেন। শুধু তাই নয়, অভিযোগ, কর্ণ নাকি কখনও গোবিন্দকে তাঁর ছবি করার জন্য প্রস্তাবও দেননি। গোবিন্দকে এ প্রসঙ্গে এক বার সাংবাদিকরা জিজ্ঞাসা করায় তিনি বলেছিলেন, কর্ণ ভয়ঙ্কর একটা লোক।

Advertisement

Advertisement

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
বাছাই খবর
আরও পড়ুন