Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

ক্ষমতার মসনদ থেকে ফাঁসির মঞ্চ- সাদ্দামের দিনগুলি

ওঠা আর নামা- জীবনে দু’টি দিকেই চরম বিন্দুতে খুব দ্রুত পৌঁছনোর বিরল ‘সৌভাগ্য’ হয়েছিল যে মানুষটির, তাঁর নাম- সাদ্দাম হোসেন। তাঁর জীবনের উত্থান

৩০ ডিসেম্বর ২০১৫ ১৫:০৭
Save
Something isn't right! Please refresh.
মার্কিন সেনার হাতে ধরা পড়ার পর সাদ্দাম।

মার্কিন সেনার হাতে ধরা পড়ার পর সাদ্দাম।

Popup Close

ওঠা আর নামা- জীবনে দু’টি দিকেই চরম বিন্দুতে খুব দ্রুত পৌঁছনোর বিরল ‘সৌভাগ্য’ হয়েছিল যে মানুষটির, তাঁর নাম- সাদ্দাম হোসেন। যিনি এক সময় ইরাকের সর্বময় কর্তা ছিলেন এক নাগাড়ে প্রায় চার চারটি দশক। আর তার পর সেই সাদ্দামকেই মার্কিন সেনাবাহিনীর হাত থেকে বাঁচতে পালিয়ে বেড়াতে হয়েছিল ইরাকের এ-প্রান্ত থেকে ও-প্রান্তে। লুকিয়ে থাকতে হয়েছিল মাটির তলার বাঙ্কারে। দিনের পর দিন। তার পর এক দিন সাদ্দামকে সেই বাঙ্কার থেকেই টেনে হিঁচড়ে বার করে এনেছিল মার্কিন সেনারা। দেখা গিয়েছিল, সাদ্দাম ওই সময় কাকুতি-মিনতি করছেন, তাঁকে যেন গুলি করে মারা না হয়! মার্কিন প্রশাসন তাঁকে ওই ভাবে মারতেও চায়নি। বিশ্বজুড়ে সমালোচনার আশঙ্কায়। সাদ্দামকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। তাঁর বিচার হয়েছিল মার্কিন আদালতে। আর সেই বিচারের শুনানিও ঘটা করে অনেক দিন ধরে চালানো হয়েছিল। সেই মামলায় এমনকী, সাদ্দামকে তাঁর আত্মপক্ষ সমর্থনে সওয়ালও করতে দেওয়া হয়েছিল। তার পর তাঁর সাজা হয়েছিল মৃত্যুদণ্ড। তাঁকে ফাঁসি দেওয়া হয়েছিল। আজকের দিনেই ফাঁসি দেওয়া হয়েছিল সাদ্দাম হোসেনকে। ইরাকের ‘একদা সম্রাটে’র জীবনের উত্থান-পতনের নানা ছবি নিয়েই আজকের এই অ্যালবাম।

আরও পড়ুন- সাদ্দামের সুন্নি ভাইরাই ভরসা হয়ে উঠেছে আইএসের!

Advertisement


Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement