Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০১ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

চিত্র সংবাদ

Lauren Sánchez: টিভি চ্যানেলে কাজ, সাংবাদিকতা, একাধিক সম্পর্ক... বেজোসের হৃদয় জুড়ে এখন শুধুই লরেন

নিজস্ব প্রতিবেদন
২৫ নভেম্বর ২০২১ ১৫:৩২
লরেন সাঞ্চেজ। এই নামের সঙ্গে অনেকেই পরিচিত। প্রাক্তন অ্যামাজন কর্তা জেফ বেজোসের প্রেমিকা তিনি। সম্প্রতি তাঁদের বিয়ে নিয়েও গুঞ্জন উঠেছিল। লরেন কিন্তু শুধু জেফের প্রেমিকাই নন। আরও অনেক পরিচয় রয়েছে তাঁর।

নিউ মেক্সিকোয় ১৯৫৯ সালে লরেনের জন্ম। সেই হিসাব অনুযায়ী এখন তাঁর বয়স ৬১ বছর। লরেনের কর্মজীবন শুরু লস অ্যাঞ্জেলসের একটি টিভি চ্যানেলের ডেস্ক অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসাবে।
Advertisement
তার পর কখনও টিভি উপস্থাপিকা, কখনও সাংবাদিক, এমনকি অভিনেত্রী হিসাবেও কাজ করেছেন। এক সময় এক বিখ্যাত ম্যাগাজিনের বিচারে বিশ্বের প্রথম ৫০ সুন্দরী মহিলার তালিকায় লরেন ছিলেন অন্যতম। নিউ ইয়র্কের ইউএস উইকলি ম্যাগাজিনের ‘হট বডিজ’ প্রতিবেদনেও লরেনের নাম ছিল।

২০১৬ সাল থেকেই লরেনের সঙ্গে পরিচয় জেফের। ক্রমে তাঁরা একে অপরের ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠেন। জেফের আগে লরেনের জীবনে একাধিক পুরুষের প্রবেশ ঘটেছে। টনি গঞ্জালেজ নামে এক ফুটবলারের সঙ্গে প্রথম বিয়ে হয় তাঁর। ২০০১ সালে এক ছেলের জন্ম দেন লরেন।
Advertisement
২০০৫ সালে প্রথম স্বামী টনির সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে যায় তাঁর। নিক্কোর বয়স তখন মাত্র চার বছর। এর পর হলিউড এজেন্ট প্যাট্রিক হোয়াইটসেলকে বিয়ে করেন তিনি। ২০০৬ সালে ছেলে ইভান এবং ২০০৮ সালে মেয়ে ইলার জন্ম হয়।

জেফের সঙ্গে পরিচয় হওয়ার পর দ্বিতীয় স্বামী প্যাট্রিকের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি ঘটতে থাকে। ক্রমে এই সম্পর্কও বিচ্ছেদের দিকে এগিয়ে যায়। প্যাট্রিকের সঙ্গে বিচ্ছেদের পরই জেফের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক প্রকাশ্যে আসে।

জেফের সঙ্গে লরেনের ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ছবি ফাঁস করে দেওয়া হবে বলে হুমকি দেওয়া হয়। আমেরিকার ট্যাবলয়েড ‘ন্যাশনাল এনকোয়ারার’-এর বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ আনেন জেফ। এর পরই তাঁদের সম্পর্কের কথা জানাজানি হয়।

অন্য দিকে ২০১৯ সালে আমেরিকার ওই ট্যাবলয়েডের হুমকি মেলের পর লরেনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার খবর সামনে আসার পরই জেফ-ম্যাকেঞ্জির ব্যক্তিগত জীবনে ফাটল ধরে। বিচ্ছেদ হয় তাঁদের।

ধনকুবের হয়ে ওঠার জন্য যে দুর্গম পথ পেরোতে হয়েছিল জেফকে, ২৫ বছর ধরে তাঁর সেই পথের সঙ্গী ছিলেন ম্যাকেঞ্জি স্কট। জেফের সঙ্গে ম্যাকেঞ্জি ২৫ বছর দাম্পত্য জীবন কাটিয়েছেন। জেফ এবং ম্যাকেঞ্জির বিচ্ছেদ ছিল বিশ্বের সবচেয়ে দামি বিচ্ছেদ।

লরেনকে এখনও বিয়ে করেননি জেফ। জেফের বান্ধবী হিসাবে পরিচিত তিনি। তবে সম্প্রতি লরেনের একটি আংটি তাঁদের বিয়ের গুঞ্জন বাড়িয়ে দিয়েছে। জেফের পাশে হেঁটে আসার সময় লরেনের আঙুলে একটি সবুজ আংটি দেখা গিয়েছে। যা আগে ছিল না।

জেফ-লরেন কি লুকিয়ে বিয়েটা সেরেই ফেললেন? তার পর থেকে অনেকের মনে এই প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে। জেফের বিয়ের পরিকল্পনা এখনও অজানাই রয়ে গিয়েছে। তবে ম্যাকেঞ্জি বিচ্ছেদের পর নতুন করে সংসার পেতে ফেলেছেন ইতিমধ্যেই।

জেফের সঙ্গে বিচ্ছেদের দু’বছরের মাথায় ৫০ বছরের ম্যাকেঞ্জি আবার বিয়ে করেন। ম্যাকেঞ্জি কোনও ধনকুবেরকে বিয়ে করেননি। বেসরকারি স্কুলের এক সাধারণ শিক্ষককে বিয়ে করেছেন তিনি। তাঁর নাম ড্যান জিয়েট।