মন হবে ফুরফুরে, 'ইমিউনিটি বুস্টিং' চটপটা হজম পানীয় বানাবেন এ ভাবে

নিজস্ব প্রতিবেদন
মন হবে ফুরফুরে, 'ইমিউনিটি বুস্টিং' চটপটা হজম পানীয় বানাবেন এ ভাবে

করোনা আবহে পেটভরে যেমন খাবার খেতে হবে। তেমন জরুরি রোগ প্রতিরোধ শক্তি। কিন্তু এ সবের মাঝে হজম না হলে? এমন একটা সুস্বাদু পানীয় রয়েছে যা খেলেই মনও ভাল হবে। হজমও হবে তাড়াতাড়ি। পানীয়টিতে ব্যবহার করা হয়েছে, বিট নুন, জিরে, রয়েছে একটি ফলও।

জিরের মধ্যে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট থাকায় তা হজমে সাহায্য করে। শরীর থেকে বাড়তি টক্সিন বার করে বিপাক ক্রিয়ার হারও বাড়ায় জিরে। শরীর ঠান্ডা রাখতেও জিরের জল সহায়ক। পুষ্টিবিদ সোমা চক্রবর্তী বলেন, ‘উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সবচেয়ে আগে নুন খাওয়া কমাতে হবে। কাঁচা নুন তো নৈব নৈব চ। রান্নাতেও যতটা সম্ভব নুন কম দিন। অতিরিক্ত নুন রক্তে মিশে সোডিয়ামের মাত্রা বাড়ায় এবং দেহে সোডিয়ামের ভারসাম্য নষ্ট করে। ফলে রক্তচাপ হু হু করে বাড়তে থাকে। কিডনির উপরেও এর যথেষ্ট প্রভাব পড়ে।’’ তাই এতে ব্যবহার হয়েছে বিট নুন।

করোনাকে প্রতিহত করতে বাড়াতে হবে দেহের প্রতিরোধ ক্ষমতা। তাতে ভিটামিন সি, জিঙ্কের মতো উপাদান আবশ্যক। তা রয়েছে মুসাম্বিতে। এই সবের মেলবন্ধনে তৈরি এই পানীয়। রইল 'ইমিউনিটি বুস্টিং' চটপটা হজম পানীয়র রেসিপি।

উপকরণ

জল (২ গ্লাস)

২ চামচ জিরে

৪টে পুদিনা পাতা

মুসাম্বি ২-৪ কোয়া 

বিট নুন

প্রণালী: প্রথমে শুকনো খোলায় জিরে ভেজে নিতে হবে। তার পর মিক্সিতে বা শিলনোড়ায় গুঁড়ো করে নিতে হবে সেটি। পুদিনা পাতা থেঁতো করে রস বের করে নিতে হবে। দুই গ্লাস জলে পুদিনা পাতার রসটা সমানভাবে মিশিয়ে চামচ দিয়ে নেড়ে নিতে হবে। এর পর বিট নুন দিতে হবে নিজের স্বাদ মতো। চামচ দিয়ে আরও এক বার নেড়ে নিতে হবে। শেষে যোগ করতে হবে মুসাম্বি লেবুর রস। দু থেকে চারটি কোয়ার রস দুই গ্লাসে ভাগ করে দিতে হবে। এ বার জিরে গুঁড়ো যোগ করে চামচ দিয়ে আরও একবার নেড়ে দিলেই তৈরি 'ইমিউনিটি বুস্টিং' চটপটা হজম পানীয়। পুদিনা পাতা-সহ সাজিয়ে পরিবেশন করলে দেখতেও লাগবে খাসা।