Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

Covid Vaccines: ডেল্টা সংক্রমণ সবচেয়ে বেশি রুখছে মডার্নার টিকা, তার পর ফাইজার, দাবি সমীক্ষায়

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৩:১৬
-ফাইল ছবি।

-ফাইল ছবি।

করোনাভাইরাসের ডেল্টা রূপের সংক্রমণ সবচেয়ে বেশি রুখতে পারছে আমেরিকার ওষুধ সংস্থা মডার্না-র কোভিড টিকা। এই টিকা নেওয়ার পর ডেল্টার সংক্রমণ হলেও ৯৫ শতাংশ ক্ষেত্রেই রোগীদের আর হাসপাতালে নিয়ে যেতে হচ্ছে না। তাঁদের ক্ষেত্রে কোভিড আর ভয়াবহ হচ্ছে না। তাঁরা তাড়াতাড়ি সেরে উঠছেন। আমেরিকার ৯টি প্রদেশে জুন, জুলাই ও অগস্ট— এই তিন মাস ধরে সমীক্ষা চালিয়ে শুক্রবার এই তথ্য দিয়েছে ‘সেন্টার্স ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)’। এই তিন মাসেই আমেরিকায় কোভিড সংক্রমণে সবচেয়ে বড় ভূমিকা নিয়েছে সার্স-কোভ-২ ভাইরাসের ডেল্টা রূপ।

ডেল্টা রোখার ব্যাপারে মডার্নার টিকার চেয়ে একটু পিছিয়ে আমেরিকার আর একটি ওষুধ সংস্থা ফাইজার-এর বানানো কোভিড টিকা। এই টিকা নেওয়া থাকলে পরে ডেল্টা রূপের সংক্রমণ আর ভয়াবহ হয়ে উঠছে না ৮০ শতাংশ রোগীর ক্ষেত্রে। তাঁদেরও হাসপাতালে ভর্তি করানোর প্রয়োজন হচ্ছে না। এমনই দাবি করা হয়েছে ওই রিপোর্টে।

একটু পিছিয়ে জনসন অ্যান্ড জনসন

Advertisement

তবে এ ব্যাপারে মডার্না ও ফাইজারের টিকার চেয়ে বেশ কিছুটা পিছিয়ে রয়েছে আমেরিকার আর একটি ওষুধ সংস্থা জনসন অ্যান্ড জনসন-এর কোভিড টিকা। এই টিকার সাফল্যের হার ৬০ শতাংশ।

মডার্নার টিকা ইতিমধ্যেই ভারতে এসে গিয়েছে। ফাইজারের ৫ কোটি টিকা সেপ্টেম্বরে আসছে ভারতে। আর নভেম্বরের শেষ বা ডিসেম্বরের গোড়ায় এ দেশে আসার কথা জনসন অ্যান্ড জনসনের কোভিড টিকা।

সিডিসি আমেরিকার ৯টি প্রদেশে ১৮ বছর ও তার বেশি বয়সী ৩২ হাজারেরও বেশি কোভিড রোগীর উপর এই সমীক্ষা চালিয়েছে। যাঁদের মধ্যে ওই তিনটির কোনও একটি টিকা নেওয়া রোগী যেমন রয়েছেন, তেমনই রয়েছেন কোনও টিকাই নেননি এমন মানুষও।

গ্রাফিক- শৌভিক দেবনাথ।

গ্রাফিক- শৌভিক দেবনাথ।


টিকা না নিলে সংক্রমণের সম্ভাবনা বাড়ছে ৫/৭ গুণ

সিডিসি-র সমীক্ষা জানিয়েছে, ওই তিনটি কোভিড টিকার কোনও একটি নেওয়া থাকলে পরে ডেল্টা সংক্রমণ যতটা ভয়াবহ হয়ে উঠতে পারছে, কোনও টিকাই না নেওয়া থাকলে সেই ভয়াবহতার সম্ভাবনা ৫ থেকে ৭ গুণ বেড়ে যাচ্ছে। তবে আশার কথা এ টুকুই, তিনটি টিকাই কম-বেশি কমাতে পারছে ডেল্টা সংক্রমণের ভয়াবহতা। কমাতে পারছে রোগীদের হাসপাতালে ভর্তি করানোর ঘটনা। ফলে, উল্লেখযোগ্য ভাবে কমাতে পারছে মৃত্যুর হারও।

এমআরএনএ টিকাই বেশি সফল

শুক্রবার প্রকাশিত সিডিসি-র ‘মর্বিডিটি অ্যান্ড মর্টালিটি উইক্‌লি রিপোর্ট’ স্পষ্টই বলেছে, ‘এটা অত্যন্ত উল্লেখযোগ্য ঘটনা যে, সংক্রমণ ও নিজের মিউটেশনের গতির নিরিখে করোনাভাইরাসের রূপগুলির মধ্যে এখনও পর্যন্ত যেটি সবচেয়ে বেশি বিপজ্জনক, সেই ডেল্টা রূপের সংক্রমণের ভয়াবহতা রুখে দিতে পারছে মডার্না ও ফাইজারের মেসেঞ্জার আরএনএ (এমআরএনএ) কোভিড টিকা। বিশ্বে আর কোনও টিকাই এই প্রযুক্তিতে বানানো হয়নি এখনও পর্যন্ত।’

জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকা এমআরএনএ প্রযুক্তিতে বানানো হয়নি। আমেরিকায় গত তিন মাসের সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে ডেল্টা সংক্রমণ রুখতে সাফল্যের হারে (৬০ শতাংশ) মডার্না ও ফাইজারের চেয়ে কিছুটা পিছিয়েই রয়েছে জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকা।

সব টিকারই কার্যকারিতা কমছে ৭৫ বছর ও তার বেশি বয়সিদের ক্ষেত্রে

সিডিসি-র সমীক্ষা এও জানিয়েছে, ৭৫ বছর ও তার বেশি বয়সিদের ক্ষেত্রে মডার্না, ফাইজার এবং জনসন অ্যান্ড জনসন, এই তিনটি টিকারই কার্যকারিতা কমে যাচ্ছে। এর আগের সমীক্ষাগুলিতে এই ঘটনা নজরে আসেনি।

ডেল্টা সংক্রমণের জন্য টিকা নেওয়া কোভিড রোগীকে হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে নিয়ে যেতে হচ্ছে, এমন ঘটনার নিরিখেও সেরা মডার্নার টিকাই। এই টিকা নেওয়া থাকলে পরে ডেল্টা সংক্রমণের জন্য ৯২ শতাংশ রোগীকে আর নিয়ে যেতে হচ্ছে না ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে। ফাইজারের টিকার ক্ষেত্রে এই হার ৭৭ শতাংশ আর জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকার ক্ষেত্রে ৬৫ শতাংশ।

আরও পড়ুন

More from My Kolkata
Advertisement