• কৌশিক দাশ
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সতর্ক স্টোকস, নতুন নিয়মে তৈরি হোল্ডার

Ben
পরীক্ষা: সাউদাম্পটনে প্রস্তুতিতে মগ্ন স্টোকস। মঙ্গলবার। গেটি ইমেজেস

ক্রিকেট ইতিহাসের মহালগ্নে দাঁড়িয়ে তাঁদের দু’জনকেই বেশ শান্ত দেখাচ্ছে। তাঁরা ইংল্যান্ড এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের যুযুধান দুই অধিনায়ক— বেন স্টোকস এবং জেসন হোল্ডার। 

কোভিড-১৯ আতঙ্কের মধ্যে ১১৭ দিন পরে আজ, বুধবার ফিরছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। গোটা দুনিয়া তাকিয়ে সাউদাম্পটনের এজিয়েস বোল-এর দিকে। যেখানে প্রথম টেস্টে মুখোমুখি হচ্ছে ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তার আগে কী ভাবছেন দুই অধিনায়ক? মঙ্গলবার ইংল্যান্ড এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোর্ডের আয়োজিত দুটি পৃথক ভিডিয়ো কনফারেন্সে স্টোকস এবং হোল্ডার নিজেদের মনের কথা খুলে বললেন। যেখানে বিশ্বের বাছাই করা কিছু সংবাদপত্র-সহ আনন্দবাজারের বেশ কিছু প্রশ্নের উত্তর দিলেন দুই অধিনায়ক। 

এই টেস্টেই অধিনায়ক হিসেবে অভিষেক স্টোকসের। অথচ মাঠ থাকবে ফাঁকা! নিজেকে উদ্দীপিত করতে পারবেন? চোয়ালটা শক্ত করে স্টোকস বলে উঠলেন, ‘‘মাঠে যখন নামব, তখন আমার জার্সিতে তিনটে সিংহ থাকবে। দেশের হয়ে খেলছি, এর চেয়ে গর্বের ব্যাপার আর কিছু হতে পারে না। মাঠে লোক থাকবে না তো কী। দেশ জুড়ে লক্ষ, লক্ষ মানুষ আমাদের খেলা দেখবে। ওদের জন্য সেরাটা দিতেই হবে। কোনও অজুহাত শুনব না।’’

ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক কী ভাবছেন? কোভিড অতিমারির মধ্যে খেলতে নেমে কি চাপে আছেন? না কি ভয় লাগছে? প্রশ্ন শুনে একটু হেসে ফেললেন হোল্ডার। তার পরে বললেন, ‘‘আমি ইতিবাচক ভাবেই সব দেখছি। অনেক খেলাই তো শুরু হয়ে গিয়েছে। টিভি-তে ফুটবল দেখছি। ফর্মুলা ওয়ান দেখলাম। আমাদের হাত ধরে যে ক্রিকেট শুরু হচ্ছে, এতে খুবই ভাল লাগছে।’’

স্টোকস যেমন ইতিহাসে নাম তুলতে তৈরি, তেমন আবার সতর্কও থাকছেন। ইংল্যান্ড অধিনায়কের মন্তব্য, ‘‘আমাদের উপরে বিশাল দায়িত্ব আছে ক্রিকেটকে আবার ফিরিয়ে আনার। দুটো দলই কঠোর ভাবে নিয়ম মেনে চলছে। জানি, আমাদের একটা ভুল সব কিছু নষ্ট করে দিতে পারে। ক্রিকেটকে আবার পিছনে ঠেলে দিতে পারে। সেটা যাতে না হয়, তা নিশ্চিত করতে হবে। কোনও ভুল করা চলবে না।’’

আরও পড়ুন: এশিয়া কাপ বাতিল, দেশে না হলে বিদেশে আইপিএল

ক্রিকেট ফিরতে চলেছে নতুন নিয়মকে সঙ্গী করে। যেখানে থুতু দিয়ে বল পালিশ চলবে না। কী ভাবে মানিয়ে নিচ্ছেন দুই অধিনায়ক? সমস্যা হচ্ছে না বল সুইং করাতে? স্টোকস বলছেন, ‘‘আমাদের কাছে থুতুটা বড় সমস্যা নয়। অবশ্যই ছোটবেলা থেকে থুতু দিয়ে বল পালিশ করে এসেছি। কিন্তু এখন থুতু না লাগানোটা রপ্ত করে ফেলেছি। আমরা দেখেছি, ঘাম দিয়ে বল পালিশ করা যাচ্ছে। এবং, এতে খুব কাজও হচ্ছে।’’ হোল্ডারেরও একই মত। বলছেন, ‘‘ঘাম দিয়ে বল পালিশ করা ছাড়া আর তো কোনও রাস্তা নেই। সেটাই করছি। প্র্যাক্টিস ম্যাচে আমাদের সমস্যা হয়নি। দেখা যাক, টেস্টে কী হয়।’’

স্টোকস অবশ্য অন্য একটা সমস্যার কথা বলছেন। ইংল্যান্ড অধিনায়কের কথায়, ‘‘প্র্যাক্টিস ম্যাচে আমরা বারবার আম্পায়ারের হাতে সোয়েটার, টুপি, সানগ্লাস তুলে দিতে যাচ্ছিলাম। আর আম্পায়ার বলে দিচ্ছিলেন, ‘না, না আমাদের হাতে দিয়ো না।’ থুতু ব্যবহারের চেয়ে এতে বেশি সমস্যা হয়েছে আমাদের।’’ তা হলে সোয়েটার বা টুপি নিয়ে কী করছেন বোলাররা? ইংল্যান্ডের মিডিয়া ম্যানেজারের কাছে পরে এই নিয়ে প্রশ্ন করলে তিনি জানান, হয় বোলাররা বাউন্ডারির বাইরে সব রেখে দিচ্ছেন। না হলে দ্বাদশ ব্যক্তি মাঠে এসে নিয়ে যাচ্ছেন। 

আরও পড়ুন: ধোনি ৩৯, দশ বছরের মধ্যে হবেন সিএসকে ‘বস’

করোনা আতঙ্কের মধ্যে শুরু এই টেস্টে আমেরিকায় মৃত কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর ছায়াও পড়েছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ড তাঁদের পোশাকে ‘ব্ল্যাকলাইভসম্যাটার’ লোগো পরে নামবে। স্টোকস এও জানিয়ে দিচ্ছেন, বর্ণবৈষ্যমের বিরুদ্ধে তাঁরাও একটা কড়া বার্তা দিতে চান। কনফারেন্সে প্রসঙ্গটা উঠতেই গম্ভীর মুখে স্টোকস বলেন, ‘‘এই লড়াইয়ে আমরাও আছি। সমাজ এবং খেলায় কোনও বৈষম্য দেখতে চাই না। সেই বার্তাটাই দেব।’’ স্টোকস এও বলে দিলেন, ‘‘আমাদের ইংল্যান্ড দলে কত বৈচিত্র। আর সবাই সমান সুযোগ পায় বলে আজ বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়েছি। টেস্টে এত ভাল করছি। এখন একটা ভাল সুযোগ পাচ্ছি সবার কাছে বৈষম্যের বার্তা পৌঁছে দেওয়ার।’’

জো রুট তাঁকে বার্তা দিয়েছেন, ‘নিজের মতো করে কাজটা করো।’ এই বার্তা প্রেরণা স্টোকসের কাছে। হোল্ডারের মন্ত্র আবার স্যর গ্যারফিল্ড সোবার্সের পরামর্শ। এই দুই অধিনায়কের সামনে একটা লক্ষ্য থাকবে। দলের পাশাপাশি ক্রিকেটকেও জেতানো। 

ইংল্যান্ড বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম টেস্ট: সরাসরি বিকেল ৩.৩০  থেকে সোনি সিক্স এসডি ও এইচডি চ্যানেলে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন