• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বাতিল হওয়ার দিকে এগোচ্ছে আইপিএলও

Sourav Ganguly
দুশ্চিন্তা: অাইপিএল ভবিষ্যৎ নিয়ে দুর্ভাবনা সৌরভের। ফাইল চিত্র

২৪ মার্চ: করেনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী মঙ্গলবারেই গোটা দেশে তিন সপ্তাহের লকডাউনের নির্দেশ দিয়েছেন। ফলে এ বার আইপিএল বাতিল হওয়ার সম্ভাবনাও প্রকট হয়ে উঠল।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এ দিন সংবাদসংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, ‍‘‍‘আইপিএল নিয়ে কোনও সদর্থক উত্তর এই মুর্হূতে নেই। এখন কিছুই বলা যাচ্ছে না। আইপিএল পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত যে দিন হয়েছিল, তার পরে পরিস্থিতির কোনও উন্নতি হয়নি গত ১০ দিনে। তাই আমার কাছে এই মুর্হূতে আইপিএল সম্পর্কে কোনও উত্তর নেই।’’ যোগ করেন, ‍‘‍‘ক্রিকেটের আন্তর্জাতিক সফরসূচি নির্ধারিত রয়েছে। ক্রিকেট ছাড়াও অনেক খেলা বন্ধ। সরকার লকডাউন করেছে। ফলে দলগুলো বিমার সাহায্য পাবে কি না তা-ও জানা নেই। কড়া নজর রাখছি। পরিস্থিতি আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। সরকার বা প্রশাসন যে ভাবে এগোতে বলবে, সে ভাবেই পদক্ষেপ করা হবে।’’ 

এ দিন আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি দলগুলোর মালিকদের সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের টেলি-বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা স্থগিত করে দেয় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। ফলে আইপিএল হওয়ার সম্ভাবনা বিশ বাঁও জলে বলে মনে করা হচ্ছে।

যে মনোভাব প্রকাশ পেয়েছে কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের অন্যতম মালিক নেস ওয়াদিয়ার কথায়। এ দিন সংবাদসংস্থাকে তিনি বলেন, ‍‘‍‘ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের উচিত আইপিএল পিছিয়ে দেওয়া। সবার আগে মানবসমাজ। বাকি সব কিছুই আসবে তার পরে। পরিস্থিতির কোনও উন্নতি হয়নি এখনও পর্যন্ত। সুতরাং বৈঠক করে আর কী-ই বা হত!’’ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আইপিএলের আর এক দল মালিক বলছেন, ‍‘‍‘গোটা ভারত লকডাউন হয়ে রয়েছে। আইপিএলের বাইরে অনেক বড় বিষয় নিয়ে এখন গোটা দেশকে মাথা ঘামাতে হচ্ছে।’’

উল্লেখ্য, এ বারের আইপিএল ২৯ মার্চ শুরু হওয়ার কথা ছিল মুম্বইয়ে। কিন্তু মারণ ভাইরাসের সংক্রমণের জেরে তা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত। আইপিএল এ বার বাতিল হওয়ার সম্ভাবনা বাড়িয়ে ওয়াদিয়া বলেন, ‍‘‍‘এই মুর্হূতে আইপিএল নিয়ে ভাবছিই না। বাকি বিষয়ের মতোই তা গুরুত্বহীন। বরং গুরুত্ব পাচ্ছে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণের জেরে তৈরি হওয়া পরিস্থিতিতে কী ভাবে মানুষের প্রাণ বাঁচানো যাবে। এটা তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের মতো পরিস্থিতি। এখন সবাই মানুষের প্রাণ বাঁচাতে চিন্তাভাবনা করছে। অন্য কিছু নিয়ে নয়।’’ যোগ করেন, ‍‘‍‘করোনা-সংক্রমণ থেকে বাঁচতে একাধিক সর্দথক পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। ভারতের মত বড় দেশে উড়ান বন্ধের সিদ্ধান্তও দুর্দান্ত।’’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের এক র্কতার কথাতেও আইপিএল বাতিল হওয়ার জল্পনা বেড়েছে। সংবাদসংস্থাকে তিনি বলেন, ‍‘‍‘যদি টোকিয়ো অলিম্পিক্স এক বছর পিছোতে পারে, তা হলে আইপিএল তার কাছে অত্যন্ত নগণ্য ব্যাপার। এ বার আইপিএল আয়োজন করা ক্রমেই জটিল হচ্ছে। র্বতমান পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় সরকার বিদেশিদের ভিসা দিতেও চাইছে না।’’  যে কথার সূত্র ধরে নেস ওয়াদিয়াও বলছেন, ‍‘‍‘অনেকে বলতে পারেন মে মাসে আইপিএল হবে। কিন্তু তখন কোন বিদেশি ক্রিকেটার খেলতে আসবে? আর সরকারও কি ভারতে তাঁদের ঢুকতে দেবে?’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন