• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সঙ্গে নেই যে ইডেন, দুঃখী তাই দীনেশ

DK
কলকাতা নাইট রাইডার্সের অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক।—ছবি টুইটার

কলকাতা নাইট রাইডার্সের অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক বরাবরই ইডেনে খেলতে পছন্দ করেন। তাঁর অন্যতম প্রিয় মাঠ ইডেন। সে মাঠেই নাইটদের প্রত্যেক ম্যাচে গ্যালারি উপচে পড়ে ভিড়ে। কিন্তু এ বার সেই দৃশ্য অধরা থাকবে। সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে আইপিএল হওয়ায় এ বার আর ইডেনের সমর্থকদের সামনে খেলতে পারবেন না। কিন্তু বাংলার মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে এ বার ট্রফি তুলতে মরিয়া নাইট অধিনায়ক।

বুধবার নাইটদের নতুন উদ্যোগের ঘোষণা করা হয়। নাম ‘তু ফ্যান নেহি, তুফান হ্যাঁয়।’’ এই উদ্যোগের মাধ্যমে অনলাইনে সমর্থকদের সঙ্গে তাঁদের প্রিয় ক্রিকেটারদের যোগাযোগ করিয়ে দেওয়া হবে। সেই ভিডিয়োতে কার্তিক বলেছেন, ‘‘ইডেনের সমর্থন আমাদের মরিয়া করে তোলে। ভাল সময় তো পাশে থেকেইছে। খারাপ সময়ও আমাদের হাত ছাড়েননি। এ বারের আইপিএলে ইডেনে একটাও ম্যাচ খেলতে পারব না ভেবে খারাপ লাগছে। কিন্তু আমার বিশ্বাস, বাড়ি থেকেই সমর্থন করবেন আমাদের।’’ কার্তিক আরও বলেন, ‘‘করোনা অতিমারির মধ্যে ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতি হয় পশ্চিমবঙ্গের। এ বারের আইপিএল জিতে পশ্চিমবঙ্গের মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে চাই। আমি জানি, আমাদের পাশেই আছেন আপনারা। সব সময়েই থাকবেন।’’

করোনা অতিমারির জেরে পাঁচ মাস গৃহবন্দি ছিলেন প্রত্যেক ক্রিকেটার। শুরুতে প্রত্যেকেরই কিছুটা জড়তা ছিল। এখন যা কাটিয়ে উঠেছেন। কিন্তু মহেন্দ্র সিংহ ধোনিদের মধ্যে সে রকম জড়তা লক্ষ্য করছেন না সিএসকে ব্যাটিং কোচ মাইক হাসি। এমনকি করোনা আতঙ্ক তাঁর ড্রেসিংরুমে প্রবেশ করার প্রভাবও হয়তো পড়বে না ধোনিদের খেলায়, মত প্রাক্তন ক্রিকেটারের। হাসি বলেছেন, ‘‘সিএসকে-র ক্রিকেটারদের মধ্যে আরও জড়তা তৈরি হবে বলেই ভেবেছিলাম। কিন্তু অনুশীলনে ওরা একবারে সাবলীল। আশা করি, মাঠে কোনও সমস্যা হবে না।’’ হাসি আরও জানিয়েছেন, জৈব সুরক্ষা বলেয়ের মধ্যে থাকতে হলে মানসিক ভাবে আরও শক্তিশালী হতে হবে ক্রিকেটারদের। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন