ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে তাঁর দুই প্রধান শত্রু কী ভাবছেন বিরাট কোহালিকে নিয়ে? প্রথম টেস্ট শুরুর ২৪ ঘণ্টা আগে ইংল্যান্ডের দুই পেসার মুখ খুললেন ভারত অধিনায়ককে নিয়ে। যাঁদের মধ্যে কোহালির ‘এক নম্বর শত্রু’, জিমি অ্যান্ডারসন যথেষ্ট শ্রদ্ধাশীল তাঁর প্রতিপক্ষকে নিয়ে। অন্য জন, স্টুয়ার্ট ব্রড, জানিয়ে দিচ্ছেন কোহালির জন্য তাঁদের রণনীতি তৈরি আছে। 

চার বছর আগে, ভারতের শেষ ইংল্যান্ড সফরে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছিলেন অ্যান্ডারসন। সেই  সিরিজে কোহালিকে চার বার আউট করেছিলেন ইংল্যান্ডের পেসার। এ বারও কি সে রকম কিছু দেখা যেতে পারে? প্রশ্ন শুনে অ্যান্ডারসন বলেছেন, ‘‘আমার মনে হয় না। ওটা অনেক আগে ঘটেছিল। মাঝে অনেক ক্রিকেট হয়েছে। কোহালিও ব্যাটসম্যান হিসেবে অনেক উন্নতি করেছে।’’ এখানেই শেষ নয়। ভারতীয় ব্যাটিং নিয়ে অ্যান্ডারসন আরও বলেন, ‘‘আমাদের খুব ভাল খেলতে হবে। কোহালি অসাধারণ ক্রিকেটার। প্রতি বছরই ও উন্নতি করছে।’’ 

অ্যান্ডারসন পরিষ্কার জানিয়ে দিচ্ছেন, অতীতে কী হয়েছিল, তা নিয়ে তিনি আর ভাবতে চান না। ‘‘আমি জানি, কোহালি আর আমার লড়াই নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে। কিন্তু সে সব নিয়ে ভাবলে চলবে না। অতীতে কী হয়েছিল ভাবতে বসলে আমি ওকে এ বার আউট করতে পারব না। আমাদের সাফল্য নির্ভর করবে আমরা আগামী ছ’সপ্তাহে কী করছি, তার ওপর।’’ ভারতীয় ব্যাটিংয়ের প্রশংসাও শোনা গিয়েছে অ্যান্ডারসনের মুখে। তিনি বলেছেন, ‘‘সত্যি কথা বলতে কী, ভারতের পুরো ব্যাটিং লাইনই খুব ভাল। ওদের হারাতে গেলে আমাদের সেরা খেলাটা খেলতে হবে।’’ 

 \এজবাস্টন টেস্ট শুরু হওয়ার আগে ব্রড আবার জানিয়ে দিচ্ছেন, কোহালির জন্য তাঁদের রণনীতি তৈরি। এবং, সেই রণনীতি কোনও এক জন বিশেষ বোলারকে ধরে নয়, পুরো বোলিং আক্রমণকেই মাথায় রেখেই তৈরি করা হয়েছে। প্রথম টেস্ট শুরুর একদিন আগে ব্রড বলেছেন, ‘‘আমি মনে করি না, কোনও একজন বিশেষ বোলার একজন বিশ্বসেরা ব্যাটসম্যানকে বারবার আউট করতে পারে বলে।’’ তা হলে কোহালির মতো ব্যাটসম্যানের জন্য ছকটা কী হতে পারে? আইসিসির ওয়েবসাইটে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ব্রড বলেছেন, ‘‘কোহালির মতো একজন ব্যাটসম্যানকে ভুল করানোর একটাই উপায়। উইকেটের দু’প্রান্ত থেকেই ওর উপরে চাপ সৃষ্টি করতে হবে। তা হলেই কোহালিকে ভুল করতে বাধ্য করা যাবে। কোহালি যদি জিমির (অ্যান্ডারসন) ওভারগুলো দেখে খেলে দেয়, আর আমার ওভারে রান পায়, তা হলে দল হিসেবে আমরা কোনও সুবিধেই পাব না।’’ 

ব্রডের কথা অনুযায়ী, ইংল্যান্ডের ছকটা খুব সোজা। ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের, বিশেষ করে কোহালিকে শুরুর দিকে রান করতে দেওয়া যাবে না। ‘‘এ ভাবেই আমাদের চাপটা তৈরি করতে হবে,’’ বলছেন অ্যান্ডারসনের নতুন বলের সঙ্গী। 

কোহালির জন্য যে বিশেষ পরিকল্পনা আছে তাঁর দলের, সেটা বলছেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক জো রুটও। তিনি বলেছেন, ‘‘কোহালির জন্য আমাদের বিশেষ কিছু পরিকল্পনা আছে, যেগুলো আমরা কাজে লাগাতে চাই। কিন্তু পাশাপাশি আমরা এও জানি, কোহালি কত ভাল ব্যাটসম্যান। ওর বিরুদ্ধে পরিকল্পনা করা যায়, কিন্তু সেটা শেষ পর্যন্ত কাজে লাগবে কি না, তা বলা কঠিন।’’ 

ইংল্যান্ড দলে ফিরে এসেছেন আদিল রশিদ। যাঁর প্রত্যাবর্তন নিয়ে তুমুল বিতর্ক চলছে। রুট বলছেন, ‘‘রশিদকে নিয়ে সমালোচনা আমাদের ওপর কোনও প্রভাব ফেলতে পারেনি। নেটে খুব ভাল বল করছে রশিদ। আশা করছি, ম্যাচেও করতে পারবে।’’