ভারতের টি-টোয়েন্টি দল থেকে বাদ পড়লেও হতাশ নন কুলদীপ যাদব। আপাতত টেস্ট ক্রিকেটের জন্য নিজেকে তৈরি করতে মরিয়া
ভারতীয় চায়নাম্যান।

ভারতের শেষ দু’টি টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলে জায়গায় হয়নি কুলদীপের। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের টি-টোয়েন্টি দল থেকে তিনি বাদ পড়েছিলেন। চলতি দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজেও তাঁকে রাখা হয়নি। এ বারের আইপিএল থেকেই সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ছন্দ পাচ্ছিলেন না কুলদীপ। বিশ্বকাপে পাকিস্তান ম্যাচ ছাড়া সে ভাবে কিছু করে দেখাতে পারেননি তিনি। তাই আপাতত সাদা বলের ক্রিকেটের চেয়ে লাল বলেই ক্রিকেটেই মনোনিবেশ করছেন তিনি।

শুক্রবার মহীশূরে দক্ষিণ আফ্রিকা ‘এ’-র বিরুদ্ধে বেসরকারি টেস্টের শেষে কুলদীপ বলেন, ‘‘সীমিত ওভারের ক্রিকেটে যত দিন দেশের জার্সিতে খেলেছি, খারাপ পারফর্ম করিনি। সাদা বলের ক্রিকেট খেলতে বরাবরই পছন্দ করি।’’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘‘টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলে সুযোগ পাইনি বলে একেবারেই হতাশ নই। নির্বাচকেরা হয়তো মনে করেছেন আমার বিশ্রাম দরকার। হতে পারে দল কোনও পরিবর্তন চায়। তাদের সিদ্ধান্তকে সম্মান করি। তাই কোনও অভিযোগ নেই। এই সময়টা কাজে লাগাচ্ছি টেস্টের প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য।’’

দক্ষিণ আফ্রিকা ‘এ’-র বিরুদ্ধে ভারত ‘এ’-র বেসরকারি টেস্ট শেষ হল শুক্রবার। ‘এ’ দলেরই সদস্য ছিলেন কুলদীপ। ১২১ রান দিয়ে চার উইকেট নেন ভারতীয় স্পিনার। ম্যাচ ড্র হলেও সেঞ্চুরি করে ফের নির্বাচকদের নজরে উঠে এলেন প্রিয়ঙ্ক পঞ্চাল। দ্বিতীয় ইনিংসে ১৯২ বলে ১০৯ রান করে গেলেন তরুণ ওপেনার। অন্য ওপেনার অভিমন্যু ঈশ্বরন ৩৭ রান করে প্যাভিলিয়নমুখী হন। অপরাজিত ৫১ রান করেন করুণ নায়ার। ১৬১ রান করে ম্যাচের সেরা যদিও দক্ষিণ আফ্রিকা ‘এ’ দলের অধিনায়ক এডেন মার্করাম।

ম্যাচ ড্র হলেও নিজের পারফরম্যান্সে খুশি কুলদীপ। তবে ভারতীয় টেস্ট দলে জায়গা করে নিতে হলে এই পারফরম্যান্সই নিয়মিত করতে হবে তাঁকে। এমনিতে আর অশ্বিন ও রবীন্দ্র জাডেজাকে টপকে প্রথম একাদশে সুযোগ পাওয়া যে কতটা কঠিন তা মানছেন উত্তর প্রদেশের তরুণ। কুলদীপের কথায়, ‘‘অশ্বিন ও জাড্ডু ভাই দু’জনেই ভাল স্পিনার। তাদের মধ্যে নিজেকে তুলে ধরাও প্রচণ্ড কঠিন। তবে সুযোগ আসবেই। সেই সুযোগের জন্য তৈরি থাকতে হবে।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘এ ধরনের পরিস্থিতিতে চাপে পড়ে যাওয়াই স্বাভাবিক। কিন্তু সেই চাপ কাটিয়ে নিজের সেরা পারফরম্যান্স তুলে ধরতে না পারলে কোনও লাভ নেই। সুযোগের জন্যই নিজেকে তৈরি করছি।’’

কী ভাবে টেস্টের জন্য নিজেকে তৈরি করছেন কুলদীপ? তাঁর উত্তর, ‘‘বেশিক্ষণ ধরে বোলিং করার চেষ্টা করছি। বড় স্পেলে বল করছি। ভারতীয় ‘এ’ দলের হয়ে ইচ্ছে করেই বেশি ওভার বল করেছি।’’ যোগ করেন, ‘‘টেস্টে সাফল্য পেতে হলে অনেক বেশি লাল বলের ক্রিকেট খেলতে হয়। আমি চেষ্টা করছি যতটা সম্ভব প্রস্তুতি নেওয়ার।’’