মেসি-মায়ায় ম্লান লিভারপুল। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালের প্রথম পর্বে মহম্মদ সালাহর দলকে ০-৩ উড়িয়ে দেওয়ার পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় বলা হচ্ছে, লিয়োনেল মেসিই হলেন সর্বকালের সেরা।

বুধবার গভীর রাতে মেসি জাদু ছড়ালেন। ২৭ গজ দূর থেকে মেসির মিসাইল আছড়ে পড়ল লিভারপুলের জালে। সেই গোল দেখার পরে লিভারপুল কোচ যুরগেন ক্লপও বিস্মিত। ভাষা হারিয়ে ফেলেন বার্সা সমর্থকরা। মেসি চলতে শুরু করলে বার্সাকে থামায় কার সাধ্যি! চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালে জোড়া গোল মেসির। গোল করার পাশাপাশি ব্রাজিলীয় সতীর্থ কুটিনহোর পাশে দাঁড়িয়েও নজর কাড়লেন তিনি। দর্শকদের বিদ্রুপ থেকে কুটিনহোকে বাঁচানোর মানবিক চেষ্টা দেখে কে বলবে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ফুটবলারদের মধ্যে রয়েছে প্রবল রেষারেষি! মেসির বার্সায় নেই সেই সব। সেখানে সবাই সবার পাশে। আর তিনি যেন দলের অভিভাবক।

ঠিক কী হয়েছিল? বার্সায় সই করার পরে প্রথম দিকে কুটিনহো ভাল খেললেও এখন আর নিজেকে মেলে ধরতে পারছেন না। ১৪২ মিলিয়ন ডলার দিয়ে কেনা হয়েছিল এই ব্রাজিলীয় তারকাকে। মাঠে কুটিনহোকে খারাপ খেলতে দেখলেই তাঁর উদ্দেশে বার্সার গ্যালারি থেকে উড়ে আসে কটাক্ষ। লিভারপুলের বিরুদ্ধেও কুটিনহোকে হজম করতে হয়েছে ভক্তদের বিদ্রুপ। লিভারপুলের বিরুদ্ধে সুযোগ নষ্ট করলেই কুটিনহোকে ছেড়ে কথা বলেননি বার্সেলোনার সমর্থকরা।

আরও পড়ুন: বিশ্বের সব থেকে দামি গাড়ি কিনলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো

আরও পড়ুন প্রেমিক রোনাল্ডোকে বেশি নম্বর দেবেন না ব্রিটিশ সুন্দরী

সতীর্থর এমন অসম্মান ভাল লাগেনি ‘এলএম ১০’-এর। সমর্থকদের বোঝানোর মুহূর্তের অপেক্ষা করছিলেন। দলের দ্বিতীয় এবং নিজের প্রথম গোলটি করার পরেই ক্ষুব্ধ মেসিকে দেখা যায় সমর্থকদের দিকে ইশারা করছেন। বোঝানোর চেষ্টা করছেন, কুটিনহোকে যেন বিদ্রুপ না করা হয়। তাঁর চেষ্টাকে যেন সম্মান জানানো হয়। সতীর্থকে বাঁচাতে এভাবেই তো এগিয়ে আসতে হয়। এটাই তো এক জন টিমম্যানের পরিচয়। পরে অবশ্য তাঁদের দিকে তাকিয়ে হাততালিও দেন মেসি। দলের পাশে থাকার জন্য ভক্তদের ধন্যবাদ জানান বার্সেলোনার জাদুকর। মেসির জাদুতে ম্লান হয়ে গেল লুইস সুয়ারেজের প্রথম গোলটাও।