কথা মতোই কাজ শুরু করে দিলেন ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। আগামী দু’মাস দেশের আধা সামরিক বাহিনীর কাজে তিনি ব্যস্ত থাকবেন বলে বোর্ডকে আগেই জানিয়েছিলেন ধোনি। বুধবার ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্যারাশুট রেজিমেন্টে ধোনি যোগ দিয়েছেন বলেই খবর। তাঁর পোস্টিং কাশ্মীরে। ৩১ জুলাই থেকে ১৫ অগস্ট পর্যন্ত ১০৬ টেরিটোরিয়াল আর্মি ব্যাটেলিয়নের (প্যারা) সঙ্গে থাকবেন। 

সেনাবাহিনীর তরফে বৃহস্পতিবার জানানো হয়েছে, কাশ্মীরে ধোনি টহল দেবেন, পাহারা দেবেন, সেনা ছাউনির নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবেন। অর্থাৎ অন্যান্য সেনা-জওয়ানরা যে কাজ করেন, সেই কাজই করতে দেখা যাবে ক্রিকেট বিশ্বের সেরা ‘ফিনিশার’কে। ১৫ অগস্ট পর্যন্ত কাশ্মীরে তিনি এই কাজে নিয়োজিত থাকবেন বলে জানা গিয়েছে। ধোনির মতো জনপ্রিয় ক্রিকেট ব্যক্তিত্ব সেনাবাহিনীতে যোগ দেওয়ায় যুব সমাজের মধ্যে সচেতনতা বাড়বে বলেই মনে করা হচ্ছে।

অর্থাৎ ধোনির অবসর নিয়ে সংবাদমাধ্যমে প্রচুর কালি খরচ হলেও, এখনই অবসর নিচ্ছেন না ধোনি। বরং দেশের কাজেই নিজেকে ব্যস্ত রাখতে চান মাহি। ২০১১ সালের ১ নভেম্বর ধোনিকে ইন্ডিয়ান টেরিটোরিয়াল আর্মির সাম্মানিক লেফটেন্যান্ট কর্নেল পদ দেওয়া হয়েছিল। তাঁর সঙ্গেই সাম্মানিক পদ পেয়েছিলেন অলিম্পিক সোনাজয়ী শুটার অভিনব বিন্দ্রা ও বিজ্ঞানী দীপক রাও।

আরও পড়ুন: চিন নয় এবার ভারতীয় কোম্পানির নাম ভারতীয় জার্সিতে

আরও পড়ুন: একটি ইনস্টাগ্রাম পোস্ট থেকে বিরাট-মেসি-রোনাল্ডোরা কত কোটি আয় করে জানলে চমকে যাবেন​

সেনাবাহিনীর প্রতি শ্রদ্ধা, ভালবাসা বারংবার প্রকাশ করেছেন ধোনি। বিশ্বকাপে ভারতের প্রথম ম্যাচে সেনাবাহিনীর পরিচয় চিহ্ন সম্বলিত গ্লাভস পরে খেলতে নেমেছিলেন ধোনি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ম্যাচে ধোনির গ্লাভসে সেনাবাহিনীর পরিচয় চিহ্ন দেখার পরে কম জলঘোলা হয়নি। আইসিসি ও বোর্ডের মধ্যে মেল দেওয়া নেওয়ার পরে অন্য গ্লাভস পরে খেলতে নেমেছিলেন তিনি।