• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দলের স্বার্থে নিজেকে পাল্টাচ্ছেন পন্থ

Pant
সফল: চেন্নাইয়ে পন্থ। আগ্রাসন ছেড়ে পরিণত হওয়ার চেষ্টা। ফাইল চিত্র

Advertisement

মহেন্দ্র সিংহ ধোনির ডেরায় গিয়েই তিনি ফর্মে ফেরার ইঙ্গিত দিলেন। ধোনির চেন্নাইয়েই তাঁর ব্যাটিং দেখে দর্শকরা স্টেডিয়াম জুড়ে আওয়াজ তুলল— পন্থ, পন্থ, পন্থ।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে প্রথম ওয়ান ডে ম্যাচে গত কাল ভারত হেরে গেলেও ঋষভ পন্থের ব্যাটিং নিশ্চয়ই স্বস্তি দেবে বিরাট কোহালিদের। ঋষভের ৬৯ বলে ৭১ রান ভারতকে পৌঁছে দিয়েছিল ২৮৭ রানে। যদিও সেই রান যথেষ্ট ছিল না ম্যাচ জেতার জন্য। কিন্তু ঋষভের আত্মবিশ্বাস ফিরিয়ে দেওয়ার পক্ষে যথেষ্ট হবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। বিশেষ করে এত দিন যেখানে বিদ্রুপের শিকার হতে হয়েছিল তাঁকে। 

চেন্নাইয়ের দর্শকদের মুখে ‘পন্থ, পন্থ,’ ধ্বনি শুনে কেমন লাগল? ম্যাচের পরে সাংবাদিক বৈঠকে এসে ঋষভের জবাব, ‘‘দর্শকদের সমর্থনটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’’ এর পরে নিজের ইনিংস নিয়ে ঋষভের মন্তব্য, ‘‘আমি প্রতিটা দিনই উন্নতি করতে চেয়েছি। কিন্তু সেই জায়গায় পৌঁছতে পারছিলাম না। বলছি না, এই ইনিংসটা খেলে আমি সেই জায়গায় পৌঁছে গেলাম। আমি এখন শিখে চলেছি। আমার চেষ্টা থাকে যে ভাবে হোক স্কোরবোর্ডে একটা ভাল রান তোলা। এ দিন সেটা হয়েছে।’’

ঋষভের বিরুদ্ধে একটা অভিযোগ হল, তিনি নিজের স্বাভাবিক খেলাটা খেলতে গিয়ে উইকেট ছুড়ে দিয়ে আসেন। উইকেটে জমে না গিয়ে বড় শট মারার চেষ্টায় থাকেন। উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান নিজে কী বলছেন এই নিয়ে? ঋষভের জবাব, ‘‘আমরা যখন ছোট ছিলাম, তখন অনেকে বলত, ‘নিজের স্বাভাবিক খেলাটা খেলো।’ কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আসার পরে বুঝলাম, স্বাভাবিক খেলা বলে কিছু হয় না। আপনাকে পরিস্থিতি অনুযায়ী ব্যাট করতে হবে, দলের চাহিদা মতো খেলতে হবে। এক জন ভাল ক্রিকেটার সব সময় নিজের খেলাটা দলের প্রয়োজনে বদলে নিতে পারে।’’ ঋষভের কথায় স্পষ্ট ইঙ্গিত, দলের স্বার্থে নিজেকে বদলাচ্ছেন তিনি।

আরও পড়ুন: বিরাট ক্রিকেটের রোনাল্ডো, ডনের দলেও থাকত, বললেন লারা

তাঁর বিরুদ্ধে যে সমালোচনার ঝড় উঠছে, তা জানেন ঋষভ। যা নিয়ে এই তরুণ ক্রিকেটার বলেছেন, ‘‘আমি জানি, আমাকে নিয়ে অনেক কথা হয়। সে কথা কখনও ভাল, কখনও খারাপ। আমার লক্ষ্য থাকে একটাই। নিজের কাজের উপরে জোর দেওয়া। জানি, তা হলেই ফল পাওয়া যাবে।’’ ঋষভ মনে করেন, কে কী ভাবছে তা নিয়ে মাথা ঘামিয়ে লাভ নেই। তাঁর মন্তব্য, ‘‘নিজের দক্ষতার উপরে আস্থা রাখতেই হবে। কে কী বলছে, ভেবে লাভ নেই। কখনও রান পাওয়া যাবে, কখনও যাবে না। কিন্তু প্রস্তুতিটাই আসল।’’ 

ভারতীয় দল পরিচালন সমিতিও ভরসা রেখেছে ঋষভের উপরে। কখনও অধিনায়ক বিরাট কোহালি, কখনও রোহিত শর্মা পাশে দাঁড়িয়েছেন ঋষভের। এই তরুণ ক্রিকেটারও জানেন সে কথাটা। ঋষভ বলে দিচ্ছেন, ‘‘টিম ম্যানেজমেন্ট আমাকে বলেছে মাথা ঠান্ডা রাখতে। পাশাপাশি খেলার আর ফিটনেসের উন্নতি ঘটাতে। সোজা কথা হল, সব বিভাগেই আমাকে উন্নতি করে যেতে হবে।’’  

আরও পড়ুন: তিনশো না-তুললে এ রকম বোলিং জেতাতে পারবে না

গত কাল ভারত পরপর তিনটি উইকেট হারানোর পরে জুটি বাঁধেন শ্রেয়স আইয়ার এবং ঋষভ। দু’জনে মিলে ১১৪ রান যোগ করেন। তাঁদের জুটি নিয়ে ঋষভ বলছেন, ‘‘আমরা ঠিক করে নিয়েছিলাম একটা বড় জুটি তৈরি করতে হবে। লক্ষ্য ছিল অন্তত ৪০ ওভার পর্যন্ত ব্যাট করব। তিনটে উইকেট খুব তাড়াতাড়ি পড়ে গিয়েছিল। আর ৫০ ওভারের ম্যাচ মানে অনেক সময়। তাই ভেবেছিলাম, অন্তত ৪০ ওভার পর্যন্ত টেনে নিয়ে যেতে পারলে বড় রান তোলা যাবে।’’ দু’জনের জুটি অবশ্য ৪০ ওভার পর্যন্ত টেকেনি। ৩৬.৪ ওভারেই ভেঙে যায়।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন