বাংলাদেশকে প্রথম টেস্টে ইনিংস ও ১৩০ রানে হারানোর পর জোরে বোলারদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহালি। বর্তমান দলের পেস কম্বিনেশন যে কোনও অধিনায়কের কাছে স্বপ্নের বলে চিহ্নিত করেছেন তিনি।

বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসে মহম্মদ শামি নিয়েছেন চার উইকেট। উমেশ যাদব ও ইশান্ত শর্মা মিলিত ভাবে নিয়েছেন তিন উইকেট। বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসেও সফলতম বোলার ছিলেন শামি। তিনি নিয়েছিলেন তিন উইকেট। ইশান্ত ও উমেশ নিয়েছিলেন দুটো করে উইকেট। এই টেস্টে ভারতীয় পেসাররা মোট ১৪ উইকেট নিয়েছেন।

জয়ের পর পুরস্কার বিতরণের অনুষ্ঠানে এসে কোহালি বলেন, “এটা যে কোনও ক্যাপ্টেনের কাছে স্বপ্নের বোলিং কম্বিনেশন। যে কোনও ওভারে ক্যাচ আসবে বলে ফিল্ডাররা তৈরি থাকছে। এই জোরেবোলাররা নিজেদের সেরা ছন্দে রয়েছে। ওরা যখন বল করে তখন সব পিচকেই মনে হয় ভাল পিচ। জশপ্রীত বুমরা এই দলে নেই, তা সত্ত্বেও এটা স্বপ্নের বোলিং আক্রমণ। যে কোনও দলের ক্ষেত্রেই এমন বোলাররা থাকা দারুণ ব্যাপার।”

আরও পড়ুন: তিন দিনেই শেষ ইনদওর টেস্ট, ইনিংস ও ১৩০ রানে জিতল বিরাটের ভারত​

আরও পড়ুন: দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ডিডিসিএ প্রেসিডেন্টের পদ ছাড়লেন রজত শর্মা​

এই জয়ের সঙ্গে অধিনায়ক হিসেবে ৩২ টেস্টে জিতলেন কোহালি। স্পর্শ করলেন অ্যালান বর্ডারের রেকর্ড। তিনি অবশ্য পরিসংখ্যানে গুরুত্ব দিতে রাজি নন। কোহালির কথায়, “ভারতীয় ক্রিকেটকে উপরে নিয়ে যাওয়াতেই আমাদের ফোকাস। সেটাই মোটিভেশন। নম্বর নিয়ে তাই আমাদের আগ্রহ নেই।” ইডেনে ২২ নভেম্বর থেকে গোলাপি বলে দিন-রাতের টেস্ট। কোহালি সেই প্রসঙ্গে বলেছেন, “আকর্ষণীয় টেস্ট হবে। পুরনো বলে খুব একটা সুইং হয় না। ফলে এটা বোলারদের চ্যালেঞ্জ জানাব। ভারতের হয়ে গোলাপি বলে প্রথম বার খেলব আমরা, এর জন্য খুশি।"