Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৭ অক্টোবর ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

ডং প্রত্যাবর্তনের ১০ দফা

শনিবার কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে ডংয়েরই জোড়া গোলে ডার্বি জেতে ইস্টবেঙ্গল। ডার্বিতে নাটকীয় জয় পাওয়া সত্ত্বেও ইস্টবেঙ্গল শান্ত-সংযত। দেখে নেওয়া

০৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৩:৩৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
জিতে শিলিগুড়ি ছাড়ার আগে র‌্যান্টি, মেন্ডি ও বেলোর সঙ্গে নায়ক ডং। ছবি: উৎপল সরকার

জিতে শিলিগুড়ি ছাড়ার আগে র‌্যান্টি, মেন্ডি ও বেলোর সঙ্গে নায়ক ডং। ছবি: উৎপল সরকার

Popup Close

শনিবার কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে ডংয়েরই জোড়া গোলে ডার্বি জেতে ইস্টবেঙ্গল। ডার্বিতে নাটকীয় জয় পাওয়া সত্ত্বেও ইস্টবেঙ্গল শান্ত-সংযত। দেখে নেওয়া যাক খারাপ ফর্ম থেকে ডংয়ের প্রত্যাবর্তনের ১০ দফা কারণ দেখে নেওয়া যাক।

এক টিমের সঙ্গে অনুশীলনের বাইরেও তিনি একা অনুশীলন করেছেন দিনের পর দিন। অন্য সতীর্থরা ছুটি কাটালেও মাঠে এলেই ডংকে অনুশীলন করতে দেখা যেত।
দুই চোট পুরোপুরি সারিয়ে ফিট হতে কোচ বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যের পরামর্শ মতো বিশেষ ধরনের লোহার জুতো পরেও অনুশীলন করেছেন একটা সময়।
তিন কোচ তাঁকে গরমে-নরমে রাখতেন। কখনও বকাঝকা করেছেন, কখনও আবার বুঝিয়েছেন। দিনের পর দিন আঠারো জনের টিমের বাইরে রেখেছেন। যাতে কোচকে জবাব দিতে তেতে ওঠেন এবং পুরনো ফর্মে ফেরেন কোরিয়ান মিডিও।
চার বান্ধবী হারুকা তাঁর পাশে থেকে আত্মবিশ্বাস জুগিয়ে গিয়েছেন। বারবার এই বলে ডংকে উজ্জীবিত করেছেন, ‘‘আমি জানি, তুমিই সেরা। আর সেটা মাঠে প্রমাণ করো।’’
পাঁচ ডংয়ের অসাধারণ কামব্যাকের পিছনে টিমের সিনিয়র এবং সেরা স্ট্রাইকার র‌্যান্টি মার্টিন্সের বিরাট ভূমিকা। র‌্যান্টিই তাঁকে প্র্যাকটিসের পর নিয়ে আলাদা অনুশীলন করাতেন। সঙ্গে নিয়মিত বিভিন্ন পরামর্শও দিয়েছেন।

ছয় কলকাতা লিগ ডার্বিতে জোড়া ফ্রি-কিক গোল করে যে আত্মতুষ্টি ভাব এসে গিয়েছিল, সেটা পরে নিজের খারাপ সময়ে ধীরে ধীরে কাটিয়ে ওঠেন ডং। উপলব্ধি করেন, গোল না পেলে কেউ মনে রাখে না।

সাত মাঝে কারণে-অকারণে মাথা গরম করে নানা বিতর্ক তৈরি করেছিলেন। ইস্টবেঙ্গল কোচ এবং কর্তারা আলাদা করে ডেকে বোঝানোর পর কার্যত নিজের ‘মেডিটেশন’ নিজেই করে মনকে শান্ত করেছেন।

Advertisement

আট নিজের খারাপ পারফরম্যান্সের সময় সমর্থকদের মুখ ফিরিয়ে নেওয়া, নানা সমালোচনা— কোনও কিছুই গায়ে মাখেননি। ফলে একটা সময়ের পরে হতাশার বদলে মানসিক ভাবে চাঙ্গা হয়ে ওঠেন। এটাও ফর্মে ফিরতে সাহায্য করেছে।

নয় সময়-সুযোগ পেলেই পছন্দের গান শোনেন ডং। মনসংযোগ বাড়াতে। অনেক সময় তাঁর কিছুই করার না থাকলে দক্ষিণ কলকাতার বিলাসবহুল ফ্ল্যাটের নীচেও প্র্যাকটিস করতে দেখা গিয়েছে তাঁকে।

দশ মেসির প্রচণ্ড ভক্ত ডং। মেসির পারফরম্যান্স দেখে সর্বদা নিজেকে উদ্বুদ্ধ করে থাকেন। পাশাপাশি আবার তিনি রিয়াল মাদ্রিদ সমর্থক। মেসি-রোনাল্ডোর ফ্রি-কিক দেখে সেগুলো শেখার চেষ্টা করেছেন। ডার্বি জিতে উঠে শনিবার রাতেও বার্সা-রিয়াল এল ক্লাসিকো টিভিতে দেখেছেন ডং।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement