Advertisement
১০ ডিসেম্বর ২০২২

ক্রিকেট থেকে সরে আসার কথাও ভাবেন ব্যানক্রফ্‌ট

দক্ষিণ আফ্রিকায় বল বিকৃতি কাণ্ডে জড়িয়ে পড়া ব্যানক্রফ্‌টকে নয় মাসের জন্য সাসপেন্ড করেছিল অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ড।

চেষ্টা: যোগের মাধ্যমে নিজেকে বদলান ব্যানক্রফ্‌ট। ফাইল চিত্র

চেষ্টা: যোগের মাধ্যমে নিজেকে বদলান ব্যানক্রফ্‌ট। ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ২৩ ডিসেম্বর ২০১৮ ০৪:৩২
Share: Save:

বল-বিকৃতি কাণ্ডে নির্বাসিত ক্রিকেটার ক্যামেরন ব্যানক্রফ্‌ট একটা সময় ক্রিকেট ছেড়ে যোগব্যায়ামের শিক্ষক হতে চেয়েছিলেন!

Advertisement

দক্ষিণ আফ্রিকায় বল বিকৃতি কাণ্ডে জড়িয়ে পড়া ব্যানক্রফ্‌টকে নয় মাসের জন্য সাসপেন্ড করেছিল অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ড। সেই শাস্তি ওঠার এক সপ্তাহ আগে অস্ট্রেলীয় প্রচারমাধ্যমে লেখা এক চিঠিতে সেই নির্বাসিত জীবনের যন্ত্রণার কথা তুলে ধরেছেন ব্যানক্রফ্‌ট। এও জানিয়েছেন, তিনি এখন অনেক বদলে গিয়েছেন।

চিঠিতে ব্যানক্রফ্‌ট লিখেছেন, ‘‘অনেকেই হয়তো আমাকে প্রতারক বলবে। সে ঠিক আছে। আমি কিন্তু প্রত্যেককে সম্মান করব, প্রত্যেককে ভালবাসব। কারণ আমি যেমন নিজেকেও ক্ষমা করে দিয়েছি, সে রকম বাকিদেরও করেছি।’’ দক্ষিণ আফ্রিকার ওই বিতর্কিত ঘটনার পরে দেশে ফিরে আসা, সাংবাদিকদের মুখোমুখি হওয়া, নির্বাসনের প্রথম দিকটা যে তাঁর জীবনের সব চেয়ে কঠিন সময় ছিল, তা জানিয়েছেন ব্যানক্রফ্‌ট। অস্ট্রেলিয়ার এই ব্যাটসম্যান এও বলেছেন, পরিবারের সমর্থন পেয়ে তিনি আবার ঘুরে দাঁড়াতে পেরেছেন।

একই সঙ্গে ব্যানক্রফ্‌ট জানিয়েছেন, তাঁর জীবনে যোগব্যায়াম কতটা প্রভাব ফেলেছে। তাঁর মন্তব্য, ‘‘প্রথম দিকে চ্যালেঞ্জটা খুব কঠিন ছিল। সপ্তাহে ৩৫ কিলোমিটার দৌড়নো এবং প্রতিদিন যোগব্যায়ামের মাধ্যমে নিজেকে চাপমুক্ত রাখতাম। যোগের মাধ্যমে ভিতর থেকে নিজেকে সুস্থ করে তোলা যায়। খাপ খাইয়ে নেওয়ার চেষ্টায় একটা ভুল করে ফেলেছিলাম। তার মাশুল যে কতটা মারাত্মক হতে পারে, আমি দেখেছি। যোগব্যায়াম নিজেকে নতুন করে চেনাতে সাহায্য করে।’’ ওই সময় যে ক্রিকেট থেকে সরে আসার ভাবনাও তাঁর মনে এসেছিল, সে কথা জানিয়েছেন ব্যানক্রফ্‌ট। বলেছেন, ‘‘একটা সময় মনে হয়েছিল, ক্রিকেট আর আমার জন্য নয়। নিজেকে প্রশ্ন করেছিলাম, তুমি কি আর ফিরবে? যোগব্যায়াম তখন নিজেকে নতুন করে চেনাতে শুরু করেছিল।’’

Advertisement

ব্যানক্রফ্‌ট এমন একটি সংস্থার সঙ্গে যুক্ত হয়েছিলেন, যারা ক্যানসার আক্রান্ত শিশুদের নিয়ে কাজ করে। যাদের সঙ্গে কাজ করতে করতে তিনি বুঝতে পারেন, বল বিকৃতি কাণ্ডই জীবনের শেষ কথা নয়। ‘‘এই শিশুদের দেখে আমি বুঝেছি, আমার চেয়েও কঠিন লড়াই লড়ছে ওরা,’’ বলেন তিনি। পাশাপাশি এও বলেন, ‘‘দক্ষিণ আফ্রিকায় যে ব্যানক্রফ্‌ট ভুল করে শাস্তি পেয়েছিল আর যে ব্যানক্রফ্ট ফিরে আসছে— তারা কিন্তু সম্পূর্ণ অন্য দুটো মানুষ।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.