Advertisement
১৪ জুন ২০২৪

ধোনিদের বাড়তি ধার দিয়ে চলেছে বুমরাহ

ঘরের মাঠ বা উপমহাদেশের পরিবেশে ভারতীয় ব্যাটসম্যান আর বোলাররা যে ভাল করবে সেটা মোটামুটি স্বতঃসিদ্ধই। কিন্তু এই দলটাকে যে আরও তীক্ষ্ণ দেখাচ্ছে তার আসল কারণ, ফাস্ট বোলিং বিভাগের উন্নতি। আশিস নেহরা আর বুমরাহ যে কেবল ভাল লেংথ-লাইনে বল করছে তা-ই নয়।

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়
শেষ আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ ০৩:৩৪
Share: Save:

শ্রীলঙ্কার সঙ্গে ভারতের টি-টোয়েন্টি সিরিজ যে ভাবে শেষ হওয়া উচিত ছিল, সে ভাবেই হল।

ঘরের মাঠ বা উপমহাদেশের পরিবেশে ভারতীয় ব্যাটসম্যান আর বোলাররা যে ভাল করবে সেটা মোটামুটি স্বতঃসিদ্ধই। কিন্তু এই দলটাকে যে আরও তীক্ষ্ণ দেখাচ্ছে তার আসল কারণ, ফাস্ট বোলিং বিভাগের উন্নতি। আশিস নেহরা আর বুমরাহ যে কেবল ভাল লেংথ-লাইনে বল করছে তা-ই নয়। ইনিংসের গোড়ায় উইকেটও তুলছে। আর তাতে বিপক্ষ ব্যাটিংয়ের উপর যে চাপ তৈরি হচ্ছে, সেটার ফায়দা তুলছে ভারতের পরের দিকের বোলাররা। তবে সবচেয়ে বড় লাভ বুমরাহর বোলিং। ডেথ-ওভারে অসাধারণ বল করছে ও। ছেলেটা ভারতীয় দলে টাটকা বাতাসের মতো। আর ওর জন্যই ভারতীয় দলকে আরও মারাত্মক দেখাচ্ছে। আমার আশা, বুমরাহ এ ভাবেই চালিয়ে যাবে।

শ্রীলঙ্কা এমন একটা দল নিয়ে এসেছিল, ভারতের সঙ্গে যার কোনও তুলনাই চলে না। সিরিজের শুরুটা ভাল করেও তার পর আর কোনও প্রতিরোধ ছিল না ওদের থেকে। হ্যাঁ, ওদের দলটা নতুন ভাবে তৈরি হচ্ছে। এটাও সত্যি যে, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথেউজ, মালিঙ্গার মতো প্লেয়ার এই সিরিজে ছিল না, কিংবা দিলশানকে পুরো ফিট অবস্থায় পায়নি। তা সত্ত্বেও আমার কাছে সবচেয়ে হতাশজনক শ্রীলঙ্কা দলের মানসিকতাটা। দাঁড়িয়ে উঠে লড়াই দেওয়ার বিন্দুমাত্র ছাপ এই দলটার মধ্যে পেলাম না।

ভারতও সাম্প্রতিকে তেন্ডুলকর, দ্রাবিড়, লক্ষ্মণ, সহবাগ, জাহিরের মতো ক্রিকেটারদের হারিয়েছে। কিন্তু এই সব অতীতের গ্রেটদের বিরাট জুতোয় রোহিত, ধবন, রাহানে আর বিরাট ঠিক মতো পা গলিয়েছে। ওই সব পুরনো তারকারা যেখানে শেষ করেছিল, সেখান থেকেই শুরু করার মতো ইচ্ছেশক্তি আর মানসিকতার প্রমাণ দিয়েছে। যেটার অভাব ছিল শ্রীলঙ্কানদের মধ্যে। সঙ্গকারা, মাহেলাদের মতো প্লেয়ারের অভাব পূরণ করা না হয় অসম্ভব, কিন্তু কম সে কম ওদের মানসিকতার ছাপটা তো উত্তরসূরিদের মধ্যে ফুটে উঠবে! যেটা না শ্রীলঙ্কা দলের মধ্যে ছিল গত বছর ওদের দেশে ভারতের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে, না এই টি-টোয়েন্টি সিরিজে। বিশাখাপত্তনমে শেষ ম্যাচে ওদের খারাপ ব্যাটিং তো বর্ণনার অতীত! এ রকম মানসিকতা যদি শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটে আরও কিছু দিন থাকে, তা হলে ওদের রীতিমতো আত্মসন্ধান করতে হবে।

পুণের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ভারতের হারকে বর্ণনার সেরা উপায় বোধহয় দুর্ঘটনা হিসেবে দেখা! কারণ, তার পর বাকি সিরিজে ভারত ক্রিকেটের প্রতিটা বিভাগে শুধু দাপটই দেখায়নি, বিশ্বকে বুঝিয়ে দিয়েছে, কেন তাদের পরের দু’টো বড়মাপের টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে হটফেভারিট ধরা হচ্ছে।

ধবন-রোহিতের ওপেনি জুটি অসাধারণ ফর্মে রয়েছে। এর সঙ্গে এশিয়া কাপ আর বিশ্বকাপে কোহলি ফিরে এলে ভারতীয় ব্যাটিং বিশ্বের যে কোনও বোলিংয়ের কাছে ভয়ের হয়ে উঠবে। ত্রিমূর্তিকে কুশন দেওয়ার জন্য তার পরে রয়েছে রায়না, রাহানে, যুবরাজ আর সবার উপরে অধিনায়ক ধোনি। বোলিংয়ে অশ্বিনের বেশ কিছু দিন ধরেই সুপার্ব ফর্ম যাচ্ছে। হার্দিক পাণ্ড্য, জাদেজা আর পবন নেগির মতো তিন জন অলরাউন্ডার থাকায় আরও শক্তি বেড়েছে দলটার।

(গেমপ্ল্যান)

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

sourav ganguly dhoni
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE