Advertisement
২৭ জানুয়ারি ২০২৩
Road Safety World Series

প্রাক্তনদের দুই ক্রিকেট লিগ! সচিনদের ম্যাচ কবে, কখন, কোন চ্যানেলে? হদিস আনন্দবাজার অনলাইনে

শনিবার থেকে শুরু হতে চলেছে পথ নিরাপত্তা বিশ্ব সিরিজ। তার ছ’দিন পরে শুরু হচ্ছে লেজেন্ডস লিগ ক্রিকেট। প্রাক্তন ক্রিকেটারদের দুই প্রতিযোগিতার সম্পর্কে সব তথ্য দিল আনন্দবাজার অনলাইন।

প্রাক্তনদের ক্রিকেট ম্যাচে খেলবেন সচিন।

প্রাক্তনদের ক্রিকেট ম্যাচে খেলবেন সচিন। ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৭:১৮
Share: Save:

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট চলছে পুরোদমে। এশিয়া কাপের পর সামনেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। বিরাট কোহলী, রোহিত শর্মা, কেন উইলিয়ামসন, বেন স্টোকসদের বিশ্বসেরা হওয়ার লড়াই আবার দেখা যাবে। এর মাঝে প্রাক্তনরাও কিন্তু পিছিয়ে নেই। আগামী এক মাসে প্রাক্তন ক্রিকেটারদের ধুন্ধুমার দু’টি প্রতিযোগিতা দেখা যাবে। শনিবার থেকে শুরু হচ্ছে পথ নিরাপত্তা বিশ্ব সিরিজ। তার ছ’দিন পরে শুরু হচ্ছে লেজেন্ডস লিগ ক্রিকেট। দুই প্রতিযোগিতার সম্পর্কে সব তথ্য দিল আনন্দবাজার অনলাইন।

Advertisement

সমস্যা হল, দু’টি প্রতিযোগিতা প্রায় একই সময় চলবে। ফলে যদি কোনও ক্রিকেটার দু’টি প্রতিযোগিতাতেই খেলেন, তা হলে মাঝে বিশ্রামের সময় প্রায় পাবেন না। যেমন, ইরফান এবং ইউসুফ পাঠান পথ নিরাপত্তা সিরিজে ভারত লেজেন্ডস দলের সদস্য। পাশাপাশি লেজেন্ডস লিগে ভিলওয়ারা কিংস দলেও আছেন। ইরফান সেই দলের অধিনায়কও। ফলে কে, কী ভাবে, কোন লিগকে প্রাধান্য দেবেন, তা এখনও অস্পষ্ট।

দুই প্রতিযোগিতার ধরনও আলাদা। পথ নিরাপত্তা সিরিজে ছ’টি দল খেলছে। এটি দেশভিত্তিক লিগ। অর্থাৎ ভারতীয় দলে শুধু ভারতের ক্রিকেটাররাই খেলছেন। লেজেন্ডস লিগ সেখানে আলাদা। এটি বিশ্বের অন্যান্য টি-টোয়েন্টি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ ধাঁচের, যেখানে একই দলে বিভিন্ন দেশের ক্রিকেটাররা খেলতে পারেন।

পথ নিরাপত্তা বিশ্ব সিরিজ

Advertisement

তারিখ: ১০ সেপ্টেম্বর থেকে ১ অক্টোবর

মাঠ: কানপুর, রায়পুর, ইনদওর এবং দেহরাদূন। কানপুরে উদ্বোধনী ম্যাচ, রায়পুরে দু’টি সেমিফাইনাল এবং ফাইনাল।

কখন ম্যাচ: পাঁচটি ম্যাচ দুপুর সাড়ে তিনটে থেকে। বাকি সব ম্যাচ সন্ধে সাড়ে সাতটা থেকে।

কোথায় দেখা যাবে: স্পোর্টস ১৮ চ্যানেলে। এ ছাড়া ভুট এবং জিয়ো টিভি অ্যাপেও।

দল:

ইন্ডিয়া লেজেন্ডস: সচিন তেন্ডুলকর (অধিনায়ক), যুবরাজ সিংহ, সুরেশ রায়না, ইরফান পাঠান, ইউসুফ পাঠান, হরভজন সিংহ, মুনাফ পটেল, এস বদ্রীনাথ, স্টুয়ার্ট বিনি, নমন ওঝা, মনপ্রীত গোনি, প্রজ্ঞান ওঝা, বিনয় কুমার, অভিমন্যু ঈশ্বরণ, রাজেশ পওয়ার এবং রাহুল শর্মা।

অস্ট্রেলিয়া লেজেন্ডস: শেন ওয়াটসন (অধিনায়ক), অ্যালেক্স ডুলান, বেন ডাঙ্ক, ব্র্যাড হজ, ব্র্যাড হাডিন, স্টুয়ার্ট ক্লার্ক, ব্রেট লি, ব্রাইস ম্যাকেন, ক্যালাম ফার্গুসন, ক্যামেরন হোয়াইট, জর্জ হরলিন, জেসন ক্রেজা, হেস্টিংস, নানেস, নাথান রিয়ার্ডন এবং চাড সেয়ার্স।

নিউজিল্যান্ড লেজেন্ডস: রস টেলর (অধিনায়ক), জেকব ওরাম, জেমি হাউ, জেসন স্পাইস, কাইল মিলস, স্কট স্টাইরিস, শেন বন্ড, ডিন ব্রাউনলি, ব্রুস মার্টিন, নিল ব্রুম, অ্যান্টন ডেভচিচ, ক্রেগ ম্যাকমিলান, গ্যারেথ হপকিন্স, হামিশ বেনেট এবং অ্যারন রেডমন্ড।

ইংল্যান্ড লেজেন্ডস: ইয়ান বেল (অধিনায়ক), নিকোলাস কম্পটন, ফিল মাস্টার্ড, ক্রিস ট্রেমলেট, ড্যারেন ম্যাডি, ড্যারেন স্টিভেন্স, জেমস টিন্ডাল, রিকি ক্লার্ক, স্টিফেন পারি, টিম অ্যামব্রোড, দিমিত্রি মাসকারেনহাস, ক্রিস স্কোফিল্ড, জেড ডার্নব্যাক এবং মাল লোয়ে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ লেজেন্ডস: ব্রায়ান লারা (অধিনায়ক), ডানজা হায়াত, দেবেন্দ্র বিশু, ডোয়েন স্মিথ, জেরোম টেলর, কার্ক এডওয়ার্ডস, মার্লন ইয়ান ব্ল্যাক, নরসিংহ দেওনারাইন, সুলেমান বেন, ড্যারেন পাওয়েল, উইলিয়াম পারকিন্স, ডারিয়ো বার্থলে, ডেভ মহম্মদ এবং কৃশমার সান্তোকি।

শ্রীলঙ্কা লেজেন্ডস: তিলকরত্নে দিলশান (অধিনায়ক), কৌশল্য উইরারত্নে, মাহেলা উদাওয়াত্তে, রুমেশ সিলভা, আসেলা গুণরত্নে, চামারা সিলভা, ইসুরু উদানা, চামারা কাপুগেদেরা, চামিন্ডা ব্যাস, চতুরঙ্গ ডি সিলভা, চিন্তকা জয়সিংহে, ধাম্মিকা প্রসাদ, দিলরুবান পেরেরা, দিলশান মুনাউইরা, ইশান জয়রত্নে, জীবন মেন্ডিস, নুয়ান কুলশেখরা, সনৎ জয়সূর্য, উপুল থরঙ্গা এবং থিসারা পেরেরা।

দক্ষিণ আফ্রিকা লেজেন্ডস: জন্টি রোডস (অধিনায়ক), আলভিরো পিটারসেন, অ্যান্ডু পাটিক, এডি লেই, গারনেট ক্রুগার, হেনরি ডেভিডস, জাক রুডলফ, জোহান বোথা, জে ফান ডে ওয়াথ, ল্যান্স ক্লুজনার, এল নরিস জোন্স, মাখায়া এনতিনি, মর্নি ফান উইক, টি শাবালালা, ভার্নন ফিল্যান্ডার এবং জান্ডার ডি ব্রুইন।

বাংলাদেশ লেজেন্ডস: শাহাদাত হোসেন (অধিনায়ক), আবদুর রজ্জাক, আলমগির কবীর, আফতাব আহমেদ, অলোক কাপালি, মামুন উর রাশেদ, নাজমুস সাদাত, ধীমান ঘোষ, দোলার মাহমুদ, খালেদ মাসুদ, মহম্মদ শরিফ, মেহরাব হোসেন, ইলিয়াস সানি, মহম্মদ নাজিমুদ্দিন, আবুল হাসান এবং তুষার ইমরান।

লেজেন্ডস লিগ ক্রিকেট

তারিখ: ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে ৫ অক্টোবর।

মাঠ: কলকাতা, লখনউ, দিল্লি, কটক এবং জোধপুর।

কখন ম্যাচ: ইন্ডিয়া ক্যাপিটালস বনাম গুজরাত জায়ান্টস এবং কোয়ালিফায়ার ২ বাদে বাকি সব ম্যাচ সন্ধে সাড়ে সাতটা থেকে।

কোথায় দেখা যাবে: স্টার স্পোর্টসের বিভিন্ন চ্যানেল এবং ডিজনি প্লাস হটস্টার অ্যাপে।

দল

ইন্ডিয়া ক্যাপিটালস: গৌতম গম্ভীর (অধিনায়ক), রবি বোপারা, ফারভেজ মাহরুফ, মিচেল জনসন, জাক কালিস, পঙ্কজ সিংহ, রস টেলর, প্রস্পার উৎসেয়া, জন মুনি, হ্যামিল্টন মাসাকাদজা, রজত ভাটিয়া, লিয়াম প্লাঙ্কেট, আসগর আফগান, দীনেশ রামদিন এবং প্রবীণ তাম্বে।

গুজরাত জায়ান্টস: বীরেন্দ্র সহবাগ (অধিনায়ক), পার্থিব পটেল, ক্রিস গেল, এলটন চিগুমবুরা, রিচার্ড লেভি, গ্রেম সোয়ান, যোগিন্দর শর্মা, অশোক ডিন্ডা, ড্যানিয়েল ভেট্টোরি, কেভিন ও’ব্রায়েন, স্টুয়ার্ট বিনি, মিচেল ম্যাকক্লেনাঘান, লেন্ডল সিমন্স, মনবিন্দর বিসলা এবং অজন্তা মেন্ডিস।

মণিপাল টাইগার্স: হরভজন সিংহ (অধিনায়ক), ব্রেট লি, অ্যান্ড্রু ফ্লিনটফ, ভিআরভি সিংহ, পরবিন্দর আওয়ানা, রীতিন্দর সিংহ সোধি, রমেশ কালুভিথর্নে, দিমিত্রি মাসকারেনহাস, ল্যান্স ক্লুজনার, রায়ান সাইডবটম, মহম্মদ কাইফ, ফিল মাস্টার্ড, কোরে অ্যান্ডারসন, ইমরান তাহির, ড্যারেন স্যামি এবং মুথাইয়া মুরলীধরন।

ভিলওয়ারা কিংস: ইরফান পাঠান (অধিনায়ক), ইউসুফ পাঠান, সুদীপ ত্যাগি, টিনো বেস্ট, ওয়েইস শাহ, টিম ব্রেসনান, শেন ওয়াটসন, এস শ্রীসন্থ, নিক কম্পটন, ম্যাট প্রায়র, সমিত পটেল, ফিডেল এডওয়ার্ডস, উইলিয়াম পোর্টারফিল্ড, নমন ওঝা এবং মন্টি পানেসর।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.