Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

KKR: ঝলমলে ইডেনে ফিরতে মরিয়া রাসেল-নারাইনরা

সমর্থকদের কেকেআর ধ্বনিতে উদ্বুদ্ধ হয়ে দলকে জেতাতে চান তাঁরা। মঙ্গলবার চার জন ক্রিকেটারকে রেখে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নাইট শিবির।

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ০৬:৩৬
জুটি: দুই ক্যারিবিয়ান রাসেল ও নারাইনে আস্থা নাইটদের।

জুটি: দুই ক্যারিবিয়ান রাসেল ও নারাইনে আস্থা নাইটদের।
ফাইল চিত্র।

আইপিএল আরও এক বার ফিরছে ভারতে। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে দেশের মাটিতে দর্শক ঠাসা গ্যালারিতেই হবে এ বারের আইপিএল। ভারতীয় সমর্থকেরা আরও এক বার নিজেদের প্রিয় দলের জন্য গলা ফাটানোর সুযোগ পাবেন গ্যালারি থেকে। শেষ দু’বছর যা দেখা যায়নি।

সুনীল নারাইন, বেঙ্কটেশ আয়ারের স্বপ্ন, আগামী বছরের আইপিএলে যেন তাঁদের খেলা থাকে ইডেনে। সমর্থকদের কেকেআর ধ্বনিতে উদ্বুদ্ধ হয়ে দলকে জেতাতে চান তাঁরা। মঙ্গলবার চার জন ক্রিকেটারকে রেখে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নাইট শিবির। ২০১৪ সাল থেকে নাইট জার্সিতে খেলে আসছেন আন্দ্রে রাসেল। তাঁকে রেখে দেওয়া হয় ১২ কোটি টাকায়। আট কোটি টাকায় নাইট শিবিরে থেকে গেলেন সি ভি বরুণ। সদ্য তারকা হয়ে ওঠা বেঙ্কটেশ আয়ারও পাচ্ছেন আট কোটি। ২০১২ সাল থেকে কেকেআর-কে একাধিক সাফল্য এনে দেওয়া সুনীল নারাইন পাবেন ছয় কোটি টাকা।

আরও এক বার কেকেআরের হয়ে খেলার সুযোগ পেয়ে আপ্লুত নারাইন। নাইটদের ওয়েবসাইট কেকেআর ডট ইন-কে তিনি বলেছেন, ‘‘আইপিএল হোক অথবা ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ, নাইট রাইডার্সের হয়েই খেলে যেতে চাই। বিশ্বের যে কোনও প্রান্তে নাইট রাইডার্সের দল থাকলে আমি তাদের হয়ে খেলতে রাজি। শেষ দশ বছরের এই বন্ধন কখনও ভাঙতে পারে না। আমি খুবই উত্তেজিত।’’ নারাইন যোগ করেন, ‘‘কেকেআর বরাবরই সৎ ফ্র্যাঞ্চাইজ়ি। আরও এক বার ইডেনের সমর্থকদের সামনে নাইট জার্সিতে নামতে চাই।’’

Advertisement

আন্দ্রে রাসেলও আবেগাপ্লুত। বলেছেন, ‘‘শেষ আটটি মরসুম একই দলের হয়ে খেলছি। কত অম্লমধুর স্মৃতি জড়িয়ে আছে। সফলও যেমন হয়েছি, ব্যর্থতার স্বাদও পেয়েছি। আমার উপর থেকে কখনও ধৈর্য হারায়নি কেকেআর। সমর্থকেরা পাশে থেকেছেন। ফ্র্যাঞ্চাইজ়ির প্রত্যেককে পাশে পেয়েছি। আমার প্রতি যে রকম আস্থা এবং আত্মবিশ্বাস দেখানো হয়েছে, তাতে সত্যি মুগ্ধ।’’ রাসেল আরও বলেন, ‘‘কেকেআরের লোগো শুধুমাত্র জার্সিতে নেই। হৃদয়ে খোদাই করা হয়ে গিয়েছে।’’ বেঙ্কটেশ আয়ার জানেন, কেকেআরের হয়ে খেলার সুবাদেই ক্রিকেটবিশ্বে জনপ্রিয় হয়েছেন তিনি। আইপিএলের দ্বিতীয় দফায় নাইটদের প্রয়োজন ছিল একজন আগ্রাসী ওপেনারের। তখনই আবির্ভাব ঘটে বেঙ্কটেশের। নাইট জার্সিতে মাত্র ১০ ম্যাচ খেলে তাঁর রানসংখ্যা ৩৭০। উইকেট রয়েছে তিনটি। বেঙ্কটেশের মরিয়া লড়াই নজর কাড়ে বিশেষজ্ঞদের। ধরেই নেওয়া হয়েছিল, তাঁকে ছাড়বে না কেকেআর। কারণ, ভারতীয় দলের হয়ে অভিষেক সিরিজ়েও ব্যাটে-বলে নজর কাড়েন তিনি। শেষ পর্যন্ত বেঙ্কটেশের স্বপ্ন সত্যি হল। আট কোটি টাকায় কেকেআর তাঁকে দলে রেখে দেওয়ার পরে বেঙ্কটেশ বলেছেন, ‘‘নাইট জার্সিতে সফল হয়েছি বলেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের দরজা খোলে আমার জন্য। আমার উপরে আস্থা রাখার জন্য নাইট শিবিরকে ধন্যবাদ। বরাবরই তরুণ ক্রিকেটারদের উপরে ভরসা রেখেছে এই ফ্র্যাঞ্চাইজ়ি। আরও এক বার তার পুনরাবৃত্তি ঘটল।’’ ইডেনে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার অভিজ্ঞতা থাকলেও কেকেআরের হয়ে ইডেনে খেলার স্বাদ পাননি। বেঙ্কটেশ তাই বললেন, ‘‘দর্শকঠাসা ইডেনে কেকেআরের হয়ে খেলতে চাই। নাইট শিবিরের জন্য সমর্থকদের উন্মাদনা দেখার ইচ্ছে হয়তো এ বার পূরণ হবে।’’

নাইটদের কোচ ব্রেন্ডন ম্যাকালাম জানিয়েছেন, রাসেল, নারাইন, বেঙ্কটেশ ও বরুণকে রাখতে পেরে তাঁরা অনেকটাই স্বস্তিবোধ করছেন। বলেছেন, ‘‘দলের চার সম্পদকে আমরা রেখে দিতে পেরেছি। বেঙ্কটেশের মতো অলরাউন্ডার আমরা যে এত সহজে রেখে দিতে পারব, সত্যি ভাবিনি। প্রত্যেককে আগামী মরসুমের জন্য শুভেচ্ছা।’’

আরও পড়ুন

Advertisement